Skip to content

২রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | রবিবার | ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নারী পর্যটকদের জন্য তৈরি হচ্ছে ‘বিশেষ এলাকা’

বেশ কিছুদিন ধরেই দেশজুড়ে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে কক্সবাজারে এক নারী পর্যটককে ধর্ষণের ঘটনা। এ ঘটনার রেশ কাটার আগেই কক্সবাজারে নারী পর্যটকদের জন্য 'বিশেষ এলাকা' তৈরির ঘোষণা দিলো কক্সবাজার জেলা প্রশাসন।  

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আবু সুফিয়ান বলছেন, ''কক্সবাজারে আসা শুধু নারী পর্যটকদের জন্য আলাদাভাবে কার্যক্রম চলছে। যারা নারী পর্যটক বা পর্দানশীন নারী যারা রয়েছেন, তাদের জন্য ১০০ বা ১৫০ ফিটের একটা সংরক্ষিত এলাকা করছি। যারা ইচ্ছুক হবেন বা স্বেচ্ছায় চাইবেন, তারা সেখানে গিয়ে পানিতে নামতে পারবেন। "

এছাড়াও আবু সুফিয়ান আরো বলেন, ''পর্যটন এলাকা নারী-বান্ধব করার জন্য সৈকতে যারা কাজ করেন, তাদের বড় একটি অংশে নারীদের নিয়োগ দেয়া হয়েছে। টুরিস্ট পুলিশের মধ্যেও নারী পুলিশ রয়েছেন।''

এসব সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে দুই এক মাস সময় লাগলেও যেকোনো উপায়ে বাস্তবায়ন করতে চান কক্সবাজার জেলা প্রশাসন। মূলত সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে যাওয়া নারী পর্যটকদের নিরাপত্তা জোরদার করার লক্ষ্যেই এ উদ্যোগ। এ পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে পর্যটনে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে বলে আশা স্থানীয় প্রশাসনের। 

উল্লেখ্য, গত ২২ ডিসেম্বর বুধবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে এক নারী পর্যটককে গেস্ট হাউজ থেকে উদ্ধার করে পুলিশের বিশেষ বাহিনী র‍্যাব। কক্সবাজারে বেড়াতে যাওয়া ঐ নারীকে অপহরণের পর একটি হোটেলে আটকে রেখে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনার পরই শুক্রবার বিকালে কক্সবাজারের হোটেল মালিক ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের সঙ্গে জেলা প্রশাসনের বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে এসব সিদ্ধান্ত জানানো হয়।