Skip to content

২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | শুক্রবার | ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নিউইয়র্ক সিটিতে প্রথম নারী পুলিশ কমিশনার 

নারীরা আজ আর ঘরে বসে থাকে না, তারা সব কাজই করতে পারে। চার দেয়ালের বাইরে বেরিয়ে নারীরা আজ বিশ্বের প্রতিটি জায়গায়ই নিজের অবস্থান করে নিয়েছে। সামরিক বাহিনীতেও নারীরা পিছিয়ে নেই। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক সিটির পুলিশ কমিশনার হিসেবে নিয়োগ পেতে যাচ্ছেন একজন নারী। তিনি হলেন কিচান্ট সিওয়েল।

 

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাতে শহরটির নবনির্বাচিত মেয়র এরিক অ্যাডামসের এক মুখপাত্র ইভান থিস স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

প্রথম নারী পুলিশ কমিশনার হিসেবে ৪৯ বছর বয়সী কিচান্ট সিওয়েলই দেশের সবচেয়ে বড় পুলিশ বাহিনীর নেতৃত্ব দিতে যাচ্ছেন। নতুন মেয়র এরিক অ্যাডামস তাঁর প্রশাসনের জন্য সদস্য বেছে নিচ্ছেন এবং এরই অংশ হিসেবে পুলিশ কমিশনার হিসেবে সিওয়েলকে নিয়োগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।  সিওয়েল নিউইয়র্ক পুলিশ বিভাগের তৃতীয় কৃষ্ণাঙ্গ প্রধান হবেন। সিওয়েলের নিয়োগের ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আজ বুধবার দেওয়া হতে পারে। 

সিওয়েল নিউইয়র্কের কুইন্স শহরে বেড়ে উঠেন এবং ২৩ বছর ধরে নাসাউ কাউন্টির পুলিশ বিভাগে কর্মরত আছেন। বর্তমানে নাসাউ কাউন্টি গোয়েন্দা পুলিশের প্রধান তিনি। তিনি ২০২০ সালে এ পদে নিয়োগ পান। প্রায় ২ হাজার ৪০০ কর্মকর্তা তাঁর অধীনে কাজ করছেন। তিনি নিউইয়র্ক সিটি পুলিশের দায়িত্ব  নিলে প্রায় ৩৫ হাজার কর্মকর্তাকে নেতৃত্ব দেবেন।

 

পুলিশের সাবেক অধিনায়ক নবনির্বাচিত মেয়র অ্যাডামস। নিউইয়র্ক শহরের দ্বিতীয় কৃষ্ণাঙ্গ  মেয়র হিসেবে তিনি দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন। শহর থেকে সহিংস পরিস্থিতি মোকাবিলা ও পুলিশি নির্যাতন প্রতিরোধের অঙ্গিকার তিনি ইতিমধ্যে করেছেন। এই লড়াইয়ে সিওয়েলকে সহযোদ্ধা হিসেবে চান অ্যাডামস।

 

কয়েক মাস ধরে অ্যাডামস বলে আসছেন, নিউইয়র্ক সিটি পুলিশ বিভাগের ১৭৬ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো নারী প্রধান নিয়োগ দিবেন তিনি। তিনি এ পদে নিয়োগ পেতে বেশ কয়েকজন প্রার্থীকে বিবেচনা করেছিলেন, কিন্তু শেষ পর্যন্ত সিওয়েলকে নিয়োগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

 

এক বিবৃতিতে অ্যাডামস সিওয়েলকে অপরাধের বিরুদ্ধে এক লড়াকু যোদ্ধা বলে অভিহিত করেছেন। তিনি বলেন, অভিজ্ঞতা ও বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন এই নারী নিউইয়র্কবাসীর নিরাপত্তা নিশ্চিতের পাশাপাশি তাদের জন্য ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করতে পারবেন।

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ