Skip to content

২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | মঙ্গলবার | ১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেশের প্রথম তৃতীয় লিঙ্গের চেয়ারম্যান ঋতু

প্রচলিত প্রথার এক বিপরীত দৃশ্য দেখা গেছে এবারের ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে। বাংলাদেশে এই প্রথমবারের মতো তৃতীয় লিঙ্গের কোন ব্যক্তি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন। 

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের ছয় নম্বর ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন নজরুল ইসলাম ঋতু। স্থানীয়দের মাঝে ঋতু হিজড়া নামে পরিচিত। গত রবিবার তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনি জয়ী হয়েছেন। তিনি যে কেবল প্রথম তৃতীয় লিঙ্গের চেয়ারম্যান তাই নয়, তিনি পরাজিত করেছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীকে। তিনি নৌকার প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম ওরফে ছানার চেয়ে দ্বিগুণ ভোট পেয়েছেন। এর মাধ্যমেই বাংলাদেশ পেয়েছে প্রথম তৃতীয় লিঙ্গের চেয়ারম্যান। 

নজরুল ইসলাম ঋতু 'আনারস' প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়েছিলেন। তথ্যমতে ওই ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ১৯ হাজার ছয়শ। এর মধ্যে ভোটে অংশ নিয়েছেন অন্তত ৭৫% ভোটার। প্রাথমিক ফলাফল অনুযায়ী, নজরুল ইসলাম ঋতু ৯ হাজার ৫৫৭টি ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকের নজরুল ইসলাম সানা পেয়েছেন ৪ হাজার ৫২৯টি ভোট।

নজরুল ইসলাম ঋতুর পিতার নাম আবদুল কাদের। তিনি জন্ম নিয়েছেন কালীগঞ্জে উপজেলার দাদপুর গ্রামে। তার আরও তিন ভাই ও তিন বোন রয়েছে। জন্মের পর হিজড়ার বৈশিষ্ট্য প্রকাশ পাওয়ার পর পাঁচ বছর বয়সে তাঁকে গ্রাম ছেড়ে ঢাকায় চলে যেতে হয়। সামান্য লেখাপড়া করলেও সামাজিক নানা প্রতিবন্ধকতায় প্রাথমিকের গণ্ডি পেরোনো সম্ভব হয়নি তাঁর। ছোটবেলা থেকেই ঢাকার ডেমরা এলাকায় তাঁর দলের গুরুমার কাছে বেড়ে ওঠেন। এখন তাঁর বয়স ৪৩ বছর।

ঢাকায় থাকলেও পরিবারের টানে প্রায়ই তিনি গ্রামের বাড়িতে আসেন। ১৫ বছর ধরে তিনি ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের অসহায় মানুষকে আর্থিক সহযোগিতা করে আসছেন। এভাবেই এলাকায় তাঁর পরিচিতি ও জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকে।

জয়ী হবার পর নজরুল ইসলাম ঋতু বলেন, "ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নবাসীর কাছে আমি ঋণী। আমি হিজড়া হলেও মানুষ আমাকে পছন্দ করেছে, আমাকে ভোট দিয়ে পাস করিয়েছে, আমি তাদের মনের আশা পূরণে চেষ্টা করে যাবো।"

 

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ