Skip to content

২০শে ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | মঙ্গলবার | ৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ভ্যাটিকানের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদে প্রথম নারী

ভ্যাটিকান শহরের রাজনীতি মূলত একটি পরম ধর্মীয় রাজতন্ত্র কাঠামোয় সংঘটিত হয়। যেখানে পোপ হলেন রাষ্ট্রের প্রধান। রাষ্ট্রের নির্বাহী কর্মকাণ্ড, আইন প্রণয়ন ও বিচার ব্যবস্থা সমস্ত কিছু পোপের অধীনে। ভ্যাটিকান সিটি সারাবিশ্বের রোমান ক্যাথলিকদের প্রতিনিধিত্ব করে। যেখানে পৃথিবীর ১৩০ কোটি ক্যাথলিকদের অর্ধেকই নারী সেখানে ভ্যাটিকান সিটিতে দ্বিতীয় শীর্ষপদে এবার প্রথম নারী।

ভ্যাটিকান সিটি সরকারের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদে কোন নারীকে নিয়োগ দিয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। শনিবার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, পোপ ফ্রান্সিস ইতালীয় নান সিস্টার রাফায়েলা পেত্রিনিকে ভ্যাটিকান সিটির গবর্নেটোরেট অব দ্য স্টেটের মহাসচিব নিয়োগ দিয়েছেন।

রোমান ক্যাথলিক চার্চ সবসময়ই পাদ্রীদের নিয়োগ দিয়ে এসেছে। নারীরা সবসময় প্রশাসনের অন্তরালে থেকে গেছেন। ক্যাথলিক নানদের সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অব সুপিরিয়র জেনারেলসহ বেশ কিছু নারী সংগঠন ভ্যাটিকানকে নারীদের শীর্ষ পদে নিয়োগের আহ্বান জানিয়ে আসছিলো।

ভ্যাটিকানে ৫২ বছর বয়সী পেত্রিনিই এখন সর্বোচ্চ পদধারী নারী। পদটি একটি রাজ্যের ডেপুটি গভর্নর বা শহরের ডেপুটি মেয়রের সমমর্যাদার।

নারীরা এখন তার যোগ্যতা আর ইতিবাচক চিন্তাভাবনায় প্রমাণ করতে সক্ষম যে পুরুষের পাশাপাশি তারাও যেকোনো দায়িত্ব গ্রহণের জন্য যোগ্য। রাফায়েলা পেত্রিনি যেন এবার ভ্যাটিকানের ইতিহাসে আরেকবার প্রমাণ করলেন।

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ