Skip to content

২০শে মে, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | সোমবার | ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আজ বাংলাদেশের সংবিধান দিবস

১৯৭১ সালে দীর্ঘ নয় মাস রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের পরে বাংলাদেশের বিজয় অর্জিত হয় এবং গঠিত হয় স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। এরপর ১৯৭২ সালে বাংলাদেশের সংবিধান রচিত হয়। আজ ৪ নভেম্বর, বাংলাদেশের সংবিধান দিবস। ১৯৭২ সালের আজকের এই দিনে গণপরিষদে বাংলাদেশের সংবিধান গৃহীত হয় এবং ১৬ ডিসেম্বর ১৯৭২ (বিজয় দিবস) থেকে কার্যকর হয়। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধান স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশ রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ আইন।

তবে এর আগে, ১৯৭২ সালের ১১ এপ্রিল সংবিধান প্রণয়নের উদ্দেশ্যে ড. কামাল হোসেনকে সভাপতি করে ৩৪ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়। একই বছরের ১৭ এপ্রিল থেকে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত এই কমিটি বিভিন্ন পর্যায়ে বৈঠক করে এবং জনগণের মতামত সংগ্রহের জন্য মতামত আহ্বান করা হয়। সংগ্রহীত মতামত থেকে ৯৮টি সুপারিশ গ্রহণ করা হয়। ১৯৭২ সালের ১২ অক্টোবর গণপরিষদের দ্বিতীয় অধিবেশনে খসড়া সংবিধান বিল আকারে উত্থাপন করা হয়। 

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গণপরিষদে সংবিধানের ওপর বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, ‘এই সংবিধান শহীদের রক্তে লিখিত, এ সংবিধান সমগ্র জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার মূর্ত প্রতীক হয়ে বেঁচে থাকবে।’

মূল সংবিধান ইংরেজি ভাষায় রচিত হয় এবং তা বাংলায় অনুবাদ করা হয়। তাই, বাংলাদেশের সংবিধান বাংলা ও ইংরেজি উভয় ভাষায় বিদ্যমান। তবে, যদি ইংরেজি ও বাংলার মধ্যে অর্থগত বিরোধ দৃশ্যমান হয় সেক্ষেত্রে বাংলা রূপ অনুসরণীয় হবে।

 

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ