Skip to content

৪ঠা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | মঙ্গলবার | ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বৈষম্য-হীনতার দৃষ্টান্ত হতে চলেছে ট্রুডোর মন্ত্রীসভা

২০১৫ সাল থেকেই কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো কানাডায় নারী-পুরুষের লিঙ্গ-বৈষম্য দূর করার কথা বলে আসছেন। সে লক্ষ্যে এবার তিনি কানাডার মন্ত্রীসভা গঠন করলেন। ৩৯ সদস্যের এই মন্ত্রীসভায় অর্ধেকই নারী। জাস্টিন ট্রুডো বাদে ৩৮ জন সদস্যদের মধ্যে ১৯ জন নারী সদস্য। যা বৈষম্য-হীনতার এক অনন্য দৃষ্টান্ত হতে চলেছে। 

 

গত ২৬ অক্টোবর এই মন্ত্রীসভা শপথ গ্রহণ করে। অটোয়ার রিডিও হলে কানাডার গভর্নর জেনারেল মেরি সাইমনের উপস্থিতিতে এ শপথ অনুষ্ঠিত হয়। মন্ত্রীসভার বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পদে নিযুক্ত হয়েছেন নারীরা। নতুন গঠিত এই মন্ত্রীসভায় শুধু যে লিঙ্গ বৈষম্য দূর করতে দৃষ্টান্তমূলক তাই নয়, বরং বর্ণ বিরোধীও বটে। কারণ নতুন মন্ত্রীসভায় বিভিন্ন বর্ণ ও গোত্রের মানুষ রাখা হয়েছে। ৩৮ জনের মধ্যে ৮ জনই আছেন ভিজিবল মাইনরিটির(যাদের গায়ের রঙে সাদা নয়)। 

 

এই মন্ত্রীসভায় একজন আদিবাসীও আছেন। কানাডার মোট জনসংখ্যার ৪.৯ শতাংশ জনগণই আদিবাসী। এবং ২২ শতাংশ ভিজিবল মাইনরিটি।  ধর্ম ভেদাভেদের বিরোধিতায় মন্ত্রীসভায় ২ জন মুসলমানকেও রাখা হয়েছে। এছাড়াও এলজিবিটিকিউ২এস কমিউনিটি থেকে ৩ জন মন্ত্রী নেওয়া হয়েছে। এমনকি ভারতীয়-পাঞ্জাবি বংশোদ্ভূত তিনজন এই মন্ত্রীসভায় রয়েছেন। 

 

জাস্টিন ট্রুডোর এই মন্ত্রীসভায় যারা যে পদে আছেন: 

 

প্রধানমন্ত্রী: জাস্টিন ট্রুডো, উপপ্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রী: ক্রিস্টিয়া ফ্রিল্যান্ড, স্বাস্থ্যমন্ত্রী: জিন-ইভেস ডুকলোস, পররাষ্ট্রমন্ত্রী: মেলানি জোলি, কৃষি ও কৃষিখাদ্যমন্ত্রী: মারি-ক্লদ বিবেউ, পরিবহন-মন্ত্রী: ওমর আলগাবরা, প্রতিরক্ষামন্ত্রী: অনিতা আনন্দ, মানসিক স্বাস্থ্য, আসক্তি, স্বাস্থ্য সহযোগী-মন্ত্রী: ক্যারোলিন বেনেট, জরুরি প্রস্তুতি-বিষয়ক মন্ত্রী: বিল ব্লেয়ার, পর্যটন ও অর্থমন্ত্রী: র‌্যান্ডি বোয়সনল্ট, উদ্ভাবন, বিজ্ঞান ও শিল্পমন্ত্রী: ফ্রাঁসোয়া-ফিলিপ শ্যাম্পেন, ট্রেজারি বোর্ড প্রেসিডেন্ট: মোনা ফোর্টিয়ার, অভিবাসন, শরণার্থী ও নাগরিকত্ব-মন্ত্রী: শন ফ্রেজার, পরিবার, শিশু ও সামাজিক উন্নয়ন-মন্ত্রী: কারিনা গোল্ড,  পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন-মন্ত্রী: স্টিভেন গিলবল্ট, আদিবাসী পরিষেবা ও উত্তর অন্টারিও ফেডারেল অর্থনৈতিক উন্নয়ন সংস্থা-মন্ত্রী: প্যাটি হাজদ, হাউস অব কমন্সে সরকারের নেতা: মার্ক হল্যান্ড, আবাসন, বৈচিত্র্য ও অন্তর্ভুক্তিমন্ত্রী: আহমেদ হুসেন। 

 

আন্তর্জাতিক বাণিজ্য, রপ্তানি উন্নয়ন, ক্ষুদ্র ব্যবসা ও অর্থনৈতিক উন্নয়নমন্ত্রী: মেরি এনজি, শ্রম-মন্ত্রী: রেগান জুনিয়, সরকারি ভাষা ও আটলান্টিক কানাডা সুযোগ সংস্থা-মন্ত্রী: জিনেট পেটিটপাস টেল, কর্মসংস্থান, কর্মশক্তি উন্নয়ন ও প্রতিবন্ধী অন্তর্ভুক্তিমন্ত্রী: কার্লা কোয়ালট্র, কানাডিয়ান হেরিটেজ ও কুইবেক–বিষয়ক মন্ত্রী: লেফটেন্যান্ট পাবলো রদ্রিগে, আন্তর্জাতিক উন্নয়ন ও কানাডার প্যাসিফিক ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট এজেন্সিমন্ত্রী: হারজিত সজ্জ, ক্রীড়া ও কুইবেক প্যাস্কেল সেন্ট-ওঞ্জ অঞ্চলের জন্য কানাডার অর্থনৈতিক উন্নয়ন সংস্থামন্ত্রী: পাসকেল সেন্ট-অনগ,
পাবলিক সার্ভিস ও প্রকিউরমেন্টমন্ত্রী: ফিলোমেনা তাস, উত্তরবিষয়ক মন্ত্রী, কানাডিয়ান নর্দান ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট এজেন্সির দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী: ড্যান ভ্যান্ডা, প্রাকৃতিক সম্পদমন্ত্রী: জনাথন উইলকিনস, গ্রামীণ অর্থনৈতিক উন্নয়ন-মন্ত্রী: গুডি হাচিং, নারী, লিঙ্গসমতা ও যুবমন্ত্রী: মার্সি আইন,  দক্ষিণ অন্টারিও জন্য ফেডারেল অর্থনৈতিক উন্নয়ন সংস্থামন্ত্রী: হেলেনা জ্যাকজেকের, সিনিয়র মন্ত্রী: কমল খেরা, বিচারমন্ত্রী ও অ্যাটর্নি জেনারেল: ডেভিড ল্যামেটি। 
আন্তসরকার, অবকাঠামো ও সম্প্রদায়মন্ত্রী: ডমিনিক লেব্লাঙ্ক, জাতীয় রাজস্বমন্ত্রী: ডায়ান লেবুথিলিয়া, ভেটেরান্স ও জাতীয় প্রতিরক্ষার সহযোগীমন্ত্রী: লরেন্স ম্যাকওল, জননিরাপত্তামন্ত্রী: মার্কো মেন্ডিসিন,  ক্রাউন-আদিবাসী সম্পর্কমন্ত্রী: মার্ক মিলার, মৎস্য, মহাসাগর ও কানাডিয়ান কোস্ট গার্ড: জয়েস মারে।