Skip to content

২০শে ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | মঙ্গলবার | ৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

পাক্ষিক অনন্যার ৩৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

সাফল্যের ৩৩ বছর পার করে ৩৪তম বছরে পদার্পণ করলো পাক্ষিক অনন্যা। এ উপলক্ষে রবিবার (২৪ অক্টোবর) রাজধানীর কাওরান বাজারের ইত্তেফাক ভবনে মাজেদা বেগম স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজন করা হয় এক জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের। কেক কাটা, আলোচনা সভা ও ভিডিও চিত্র প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে উদযাপন করা হয় দেশের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী নারীভিত্তিক এই ম্যাগাজিনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী।

 

সেই ৩৩ বছর আগের কথা , যখন সমাজে নারীর অবস্থান আজকের মত ছিল না। তখন নারীর অধিকার নিয়ে কথা বলার মানুষও ছিল খুবই কম। তখন 'নারীর কথা বলা'র প্রত্যয় নিয়ে যাত্রা শুরু পাক্ষিক অনন্যার। গুটি গুটি পায়ে এগিয়ে চলছে পাক্ষিক অনন্যা। ৩৩ বছর পূর্ণ করে ৩৪ বছরে পদার্পণ করলো জনপ্রিয় বাংলা ম্যাগাজিন 'অনন্যা'। গতকাল ২৪ অক্টোবর উদযাপন করা হয় অনন্যার ৩৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঝর্ণা রহমান, বিবি রাসেল, কামরুল হাসান, হাসান আলী, ফারুখ ফয়সল, তাহমিনা কৌরাইশী, রোকেয়া ইসলাম, ফরিদুর রহমান, লাইলা আফরোজ, ম্যারিনা নাসরিন এবং অনন্যার সম্পাদক তাসমিমা হোসেন। 

 

অনুষ্ঠানের শুরুতেই সেই ৩৩ বছরের ইতিহাস স্মরণ করেন পাক্ষিক অনন্যার সম্পাদক তাসমিমা হোসেন। তুলে ধরেন পুরো যাত্রার গল্প । অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে ৩৩ বছরে পাক্ষিক অনন্যার অগ্রযাত্রা নিয়ে একটি ডকুমেন্টারি প্রদর্শনী চলে। প্রদর্শনীতে তুলে ধরা হয় সেই শুরু থেকে এখন পর্যন্ত অনন্যার কাজের ধারাবাহিকতা। এছাড়াও সেখানে দেখানো হয় পাক্ষিক অনন্যার ৩৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিশিষ্ট-জনদের শুভেচ্ছা বার্তা। 

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে শুভেচ্ছা বার্তা পাঠান ঝর্ণা রহমান, সাদেকা হালিম, পিঙ্কি চরণ, ফরিদা জামান, মুনিয়া ইমদাদ, বিবি রাসেল, নাসিমা আক্তার নিসা, আনোয়ারা সৈয়দা হক। শুভেচ্ছা-বার্তায় তারা অনন্যার আগামীর পথ যেন শুভ হয় সেই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন এবং শত বাঁধা পেরিয়ে অনন্যা নারীর পাশে দাঁড়াতে , নারীর অবস্থান তুলে ধরতে যে ভূমিকা রাখে সেই সব বিষয়ে কথা বলেন। অনন্যা ম্যাগাজিনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এবার শহরের বিভিন্ন স্থানে সচেতনতামূলক পোস্টার লাগানো হয়। এছাড়া দেশের ৮ টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়েও এসব সচেতনতামূলক পোস্টার লাগানো হয়।  

 

অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে সম্পাদক তাসমিমা হোসেন নারীর পাশাপাশি প্রবীণদের নিয়ে কিছু করা যায় কি না সেই বিষয়ে সকলের কাছে পরামর্শ চান। এসময় হাসান আলী বলেন, প্রবীণরা নিজেদের বার্ধক্যকে অতিক্রম করে অনেক কিছু করতে পারে। তবে বয়স ৭০ শুরু হলে এই বয়সে অনেক সমস্যা চলে আসে। সাহিত্য জগতের সকলে এই সময় অনেকটা ভেঙে পড়ে। তাই প্রবীণদের জন্য কিছু অনুষ্ঠান করার কথা তুলে ধরেন। যেখানে প্রবীণদের শক্তি হিসেবে দেখাতে হবে। ফারুক ফয়সাল বলেন, নানান গুণী প্রবীণ আছে যাদের কথা সকলে শুনবেন তাদের নিয়ে বিভিন্ন প্রোগ্রাম করা যায়।

এ বিষয়ে ফ্যাশন ডিজাইনার বিবি রাসেল বলেন, প্রবীণদের মাথায় ঢুকিয়ে দেওয়া যাবে না যে প্রবীণ কাজ করতে পারে না। অর্থাৎ প্রবীণদের দিকে আঙুল দেখাতে হবে না। নিজেদের মধ্যে থাকলে অনেককিছু করা যায়।  শেখার কোনো বয়স নেই। প্রবীণেরও বাঁচার অধিকার আছে যা তাদের বোঝাতে হবে।

 

অনুষ্ঠানের শেষের দিকে অনন্যার ৩৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাঁটা হয়। এরপর ভবিষ্যতে অনন্যা এভাবেই নারীর পাশে দাঁড়াবে , নারীর অধিকার আদায়ে লড়াই করবে, নারীর সফলতার গল্প তুলে ধরবে বলে আশা ব্যক্ত করে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন পাক্ষিক অনন্যার সম্পাদক তাসমিমা হোসেন।

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ