Skip to content

৫ই মে, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | রবিবার | ২২শে বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্তন ক্যান্সার প্রতিরোধে কিছু সতর্কতা!

পুরো বিশ্বে অক্টোবর মাসকে স্তন ক্যানসার–সচেতনতার মাস হিসেবে পালন করা হয়। এর মূল লক্ষ্যই হলো পৃথিবীর সব নারীকে স্তন ক্যানসার বিষয়ে সচেতন করে তোলা এবং এর প্রাথমিক পর্যায়েই তা শনাক্ত করতে পারা। তবে নিঃসন্দেহে প্রতিকার এর থেকে প্রতিরোধ ভালো। তাই আজ কথা বলবো স্তন ক্যান্সার প্রতিরোধে কিছু সতর্কতা নিয়ে। 

এই রোগ থেকে রক্ষা পেতে সচেতনতাই হতে পারে একমাত্র চাবিকাঠি। কেননা স্তন ক্যান্সারে মৃত্যু ঝুঁকি যেমন বেশি তেমনি রোগ নির্ণয়ের প্রথম থেকে সঠিক চিকিৎসার মাধ্যমে শতভাগ নিরাময়ও সম্ভব। আর তাই অধিক সতর্কতা অবলম্বনের মাধ্যমে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি এড়ানো সম্ভব। এক্ষেত্রে প্রত্যেকের সঠিক স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা উচিত। যেমন :

১. অন্তর্বাস ব্যবহারে সতর্ক থাকা, সঠিক মাপ জানা, নির্দিষ্ট প্রয়োজনীয় সময় ব্যতীত ব্যবহার না করাই উত্তম। 

২. খাবার দাবারে সুষম পুষ্টিগুণ বজায় রেখে খাদ্যাভ্যাস গড়ে তোলা। 

৩. নিয়মিত স্তন পরীক্ষা করা এবং কোন ধরণের লক্ষণ দেখা দিলে ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়া। 

৪. অতিরিক্ত মদ্যপানের কারণেও স্তন ক্যান্সার হয়ে থাকে, তাই অতিরিক্ত মদ্যপান হতে বিরত থাকতে হবে।

৫. শরীরে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা। পুরুষদের থেকে নারীদের স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বেশি থাকে। তাই প্রতিদিন কমপক্ষে আধঘন্টা ব্যায়াম করা এই ঝুঁকি এড়াতে শরীরের জন্য উত্তম । 

রক্ষণশীল সমাজে দেখা যায় অনেক সময় নারীরা লজ্জায় নিজেদের গোপনাঙ্গজনিত কোন রোগ বা অসুস্থতার কথা বলতে চান না। এতে তাদের জীবন ঝুঁকি আরো বেড়ে যায়। রোগ বা অসুস্থতা কখনো লজ্জার বিষয় নয়। তাই যেকোনো লক্ষণ বা অসুস্থতা দেখা দিলে সেটাকে গোপন না রেখে অবশ্যই তার চিকিৎসা নেওয়া উচিত। আর তার আগে প্রতিটি নারীর উচিত নিজে সচেতন হওয়া ও অন্যকে সচেতন করা।
 

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ