Skip to content

২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | সোমবার | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মোবাইল ঠাণ্ডা করার কৌশল!

বিশ্বের আধুনিকায়নের সাথে সাথে আমাদের ডিভাইসগুলো হচ্ছে ক্ষুদ্র থেকে ক্ষুদ্রতর। প্রযুক্তির নিত্যনতুন পরিবর্তনের সাথে সাথে জীবন হয়ে উঠেছে সহজ থেকে সহজতর। আন্তর্জাতিক প্রেক্ষাপট বিবেচনায় চিন্তা করে দেখা গেলে বাংলাদেশ অনেকটাই স্বাবলম্বী হয়ে উঠেছে উক্ত খাতটিতে। দেশে প্রায় ১০ কোটি মানুষ হ্যান্ডসেট ব্যবহার করছে। এরমধ্য থেকে ৬ কোটি মানুষ স্মার্টফোন ব্যবহার করছে। স্মার্টফোন ব্যবহারের পাশাপাশি একটি সমস্যা দেখা যায় মাঝে মধ্যেই। অধিক সময় চালানোর ফলে তা অতিমাত্রায় গরম হয়ে ওঠে।

প্রযুক্তির এই যুগে প্রায় সবাই স্মার্টফোন ব্যবহার করেন। কিন্তু স্মার্টফোনের একটি অন্যতম সমস্যা হলো ফোন গরম হয়ে যাওয়া। মাঝে মাঝে ফোন এমন গরম হয়ে যায় যে হাতে ধরা যায় না। অনেকেই মনে করেন, স্মার্টফোনের দোষেই হয়তো এমনটা হচ্ছে। কিন্তু তা আসলে ঠিক নয়, বরং আমাদের দোষেই এই সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ব্যবহার করার সময়ে অনেকেরই স্মার্টফোন গরম হয়ে যায়। কিন্তু ব্যবহার না করেও যদি মোবাইল গরম হয়, তাহলে তা চিন্তার বিষয়। ফোন গরম হলে তার প্রভাব পড়ে যন্ত্রাংশে, ফলে ফোনের আয়ু কমে। এই সমস্যা থেকে উত্তরণের কিছু পদ্ধতি রয়েছে। ফোন অতিরিক্ত গরম হওয়া রোধ করার সবচেয়ে সহজ উপায় হলো- আপনার ফোন সূর্যের আলোয় সরাসরি না রাখা। ফোন সূর্যের আলো এবং তাপ ধরে রাখে, ফলে মোবাইল যত বেশি সূর্যের আলো বা তাপে থাকবে, তত বেশি গরম হয়ে যাবে।

অনেক সময় আমরা কোনো অ্যাপ ব্যবহারের পর সেটি সম্পূর্ণ বন্ধ না করে মিনিমাইজ করে রেখে দিই। আর ফোনের ব্যাকগ্রাউন্ডে চলমান এই অব্যবহৃত অ্যাপগুলোর ফলে মোবাইল আরও গরম হয়ে যায়। তাই অ্যাপগুলো বন্ধ করুন। এতে আপনার ফোনের ব্যাটারি লাইফও বাড়বে, ফোন গরমও হবে না।মোবাইলের ব্রাইটনেস বেশি বাড়িয়ে দিলে ব্যাটারির ওপর চাপ পড়ে এবং ফোন গরম হয়ে যায়। তাই এটি করার পরিবর্তে, আপনার ডিভাইসের জন্য একটি anti-glare কভার কিনতে পারেন। এতে আপনি সূর্যের আলোয়ও সহজেই স্ক্রিন দেখতে পারবেন।

এয়ারপ্লেন মোড সর্বদা মোবাইলের বেসিক ফাংশন ব্যবহার করা চালিয়ে যেতে দেয়, কিন্তু অন্যান্য অপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলো বন্ধ করে দেয় যা আপনার ব্যাটারির ওপর প্রভাব ফেলতে পারে। আমরা অনেক সময় মোবাইল চার্জে দিয়েও কারো সঙ্গে কথা বলি বা অন্য কোনো কাজ করি। কিন্তু এটা করা একেবারেই উচিত নয়। ফোন চার্জে বসানোর সময়ে তাতে কোনো কাজ করবেন না। এতে ফোন গরম হওয়ার প্রবণতা আরও বেড়ে যায়।ফোনে অতিরিক্ত জিনিস জমা হয়ে থাকলে সেগুলো ডিলিট করুন। হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেঞ্জার বা ইমেলে আসা গাদা গাদা ছবি, ভিডিও, গান ফোনে থাকলে ফোন গরম হতে পারে। যেগুলোর প্রয়োজন নেই সেগুলি ডিলিট করে দিন। এ ছাড়া যে অ্যাপগুলো আপনার কাজে লাগবে না সেগুলোও ফোন থেকে মুছুন। তাতে ফোন ঠাণ্ডা থাকবে।

পৃথিবীকে হাতের মুঠোয় নিয়ে এসেছে প্রযুক্তি। তার মধ্যে মোবাইল অন্যতম। দিন দিন নতুন প্রযুক্তি সংযুক্ত হচ্ছে এই মোবাইলে। নিত্যকার জীবনের প্রয়োজনীয় সকল তথ্য উপাত্ত থেকে যোগাযোগের সুবিধা পাওয়া যায় এই ডিভাইস থেকে। তাই জরুরি জিনিসটির প্রতি যত্নও কিন্তু সে রকমই হওয়া উচিত। যাতে আপনাকে দীর্ঘদিন সার্ভিস দিয়ে যেতে পারে।