Skip to content

২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | সোমবার | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘রুপালী গীটার’ ফেলে চলে যাওয়ার তিন বছর

দিনটা আজ ১৮ অক্টোবর। ২০১৮ সালের ঠিক এই দিনেই প্রাণের মায়া ফেলে পৃথিবী ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন ব্যান্ড সংগীতের অন্যতম কাণ্ডারি জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু।

 

দেশের তরুণদের রক গানের স্বাদ দিয়েছেন যারা তাদের মধ্যে অন্যতম আইয়ুব বাচ্চু। ব্যান্ড সংগীতের কিংবদন্তি এই শিল্পী দীর্ঘ চার দশক ধরে সুরের মূর্ছনা ছড়িয়ে গেছেন। এছাড়া, গীটারের ছয় তারেও জয় করেছেন উপমহাদেশে। 

 

১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রামে জন্ম নেতা আইয়ুব বাচ্চু ছোটবেলা থেকেই গিটারের প্রেমে পড়েছিলেন।  তবে ব্যান্ডের সঙ্গে তার যাত্রা শুরু 'ফিলিংস' ব্যান্ডের মাধ্যমে। তার কণ্ঠ দেয়া প্রথম গান 'হারানো বিকেলের গল্প'।

 

১৯৮০থেকে ১৯৯০ সালে তিনি 'সোলস' ব্যান্ডের সাথে যুক্ত ছিলেন। ১৯৮৮ সালে তিনি গঠন করেন 'এলআরবি' ব্যান্ড।এই ব্যান্ডের সঙ্গে তার প্রথম ব্যান্ড এলবাম 'এলআরবি' প্রকাশিত হয় ১৯৯২ সালে। এটি বাংলাদেশের প্রথম দ্বৈত এলবাম।

 

শুধু অডিও গানেই নয়, প্লেব্যাকেও দারুণ জনপ্রিয়তা পান আইয়ুব বাচ্চু। তার গাওয়া প্রথম প্লেব্যাক 'অনন্ত প্রেম তুমি দাও আমাকে' বাংলা চলচ্চিত্রের ইতিহাসেই অন্যতম জনপ্রিয় গান। 

 

আইয়ুব বাচ্চু একাধারে গায়ক, গিটারিস্ট, গীতিকার, সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে দেশে-বিদেশে সমাদৃত ছিলেন। মঞ্চ পারফরমেন্সেও ছিলেন অপ্রতিদ্বন্দ্বী। তার গাওয়া গানগুলো তাকে নিয়ে যায় অনন্য উচ্চতায়। এর মধ্যে 'সেই তুমি' গানটি বাংলা সংগীতের ইতিহাসে অন্যতম জনপ্রিয় গান।

 

বাংলা ব্যান্ড সংগীতের এই উজ্জ্বল নক্ষত্র মাত্র ৫৬ বছর বয়সেই সবাইকে কাঁদিয়ে চলে যান না ফেরার দেশে। এই কিংবদন্তি চলে যাওয়ার তিন বছর আজ। আইয়ুব বাচ্চুর গাওয়া অনেক গান আজও দর্শক-শ্রোতাদের মুখে মুখে ফেরে। আইয়ুব বাচ্চুর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে জন্মস্থান চট্টগ্রামে স্থাপন করা হয়েছে রুপালী গীটারের প্রতিকৃতি।