Skip to content

১০ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | বুধবার | ২৬শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিক্ষোভরত নারীদের উপর তালেবানের হামলা! 

সম্প্রতি তালেবানদের আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল দখলের পর নারী নিরাপত্তা ও স্বাধীনতা নিয়ে আশঙ্কার মধ্যে রয়েছেন দেশটির নারীরা।  তাইতো নারীদের অধিকার আদায়ের দাবিতে শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) ও শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) কাবুলের রাস্তায় বিক্ষোভে অংশ নেন আফগান নারী অধিকার কর্মীরা। তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করতে বিক্ষোভে হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছে তালেবানদের বিরুদ্ধে।  

 

স্থানীয় টোলো নিউজের সূত্রে জানা যায়, বিক্ষোভরত নারীরা নগরীর একটি সেতু থেকে প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের দিকে মিছিল করে যাওয়ার চেষ্টা করে। তখন তালেবান কর্মকর্তা ও নিরাপত্তা রক্ষীদের বাঁধার সম্মুখীন হন এসব নারীরা। তাদের ছত্রভঙ্গ করার লক্ষ্যে ফাঁকা গুলি ও পরবর্তীতে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে তালেবান। 

 

এনডিটিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী, এক ভিডিওতে দেখা গেছে, বিক্ষোভে অংশ নেওয়া এক আফগান নারী মাথায় আঘাত পেয়েছেন এবং তার মুখে রক্তের ছাপ। অন্যদিকে, তালেবান জানিয়েছে, বিক্ষোভরত নারীরা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায় এবং আর কোন বিকল্প না থাকায় কাঁদুনে গ্যাস ব্যবহার করেছেন তারা।

 

প্রসঙ্গত, ১৫ আগস্ট  কাবুল দখলের মাধ্যমে আবারও গোটা আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ হাতে তুলে নেয় তালেবান। ২০ বছর পর আবারও দেশটিতে  পুনরাবৃত্তি হতে যাচ্ছে তালেবান শাসনের।  কিন্তু ২০ বছর আগের সেই স্মৃতি থেকেই বের হতে পারছেন না আফগান নাগরিকরা। তাই বর্তমান পরিস্থিতি যেন দেশটির নাগরিকদের মধ্যে আরো উৎকণ্ঠা তৈরি করে দিয়েছে। আর এ পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি আশঙ্কার মধ্যে রয়েছেন দেশটির নারীরা।

 

আফগান নারীরা দুই দশক আগের মতো ঘরবন্দী হয়ে থাকতে রাজি নয়। তারা কর্মক্ষেত্রে যাওয়ার অধিকার দাবি করছেন। পাশাপাশি নতুন সরকার গঠনে নারীদের অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানাচ্ছেন। কিন্তু এরইমধ্যে 'নারীরা ভবিষ্যৎ সরকারের উঁচু পদে কাজ করতে পারবে না'  ঘোষণা দিয়েছে তালেবান। এরপর থেকেই কাবুল ও হেরাতে বিক্ষোভ করছে দেশটির নারীরা।

 

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ