Skip to content

২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | সোমবার | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অবশেষে পরীমনির জামিন মঞ্জুর 

ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা পরীমনির বাসা সার্চ করে মাদকদ্রব্য পাওয়ায় মাদক মামলায় কারাগারে ছিলেন। আজ (মঙ্গলবার, ৩১ আগস্ট) তার জামিন শুনানির তারিখ ছিল। 

 

অবশেষে ঢাকাই সিনেমার এই নায়িকার জামিন মঞ্জুর হল। মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েস পরীমনির জামিন মঞ্জুর করেন। 

 

গত ৪ আগস্ট রাতে ঢাকার বনানীতে পরীমনির বাসায় অভিযান চালিয়ে র‍্যাব তাকে গ্রেফতার করে। পরের দিন বনানী থানায় তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা করা হয়। পরীমনির বাসা থেকে 'মদ, আইস ও এলএসডির মতো মাদকদ্রব্য' উদ্ধার করা হয়েছে বলে জব্দ তালিকায় দেওয়া হয়।

 

ঐ দিনই পরীমনিকে প্রথম দফায় ৪ দিন এবং ১০ আগস্ট দ্বিতীয় দফায় ২ দিনের রিমান্ডে নিয়ে মামলার তদন্ত সংস্থা সিআইডি জিজ্ঞাসাবাদ করে। সবশেষে ১৯ আগস্ট পরীমনির ১ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত। তৃতীয় দফার এই রিমান্ড শেষে তাকে ২১ আগস্ট আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। 

 

গত ২২ আগস্ট পরীমনির জামিন চেয়ে আদালতে আবেদন করা হলে আদালত শুনানির জন্য ১৩ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেন। পরের দিন আরেক দফা আবেদনে পরীমনির আইনজীবী 'দ্রুত শুনানির' আবেদন করেন। এতে সাড়া না পেয়ে তিনি হাইকোর্টে রিট করেন। সেখানে রুল চাওয়ার পাশাপাশি পরীমনির জামিন আবেদনও করা হয়। ২৬ আগস্ট হাইকোর্ট বেঞ্চ সরাসরি জামিন আদেশ না দিয়ে রুল জারি করেন। 

 

রুলে আদেশের অনুলিপি পাওয়ার দুদিনের মধ্যে পরীমনির জামিন আবেদনের শুনানি করতে কেন দেওয়া হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়। সেই সাথে ২২ আগস্ট পরীমনির জামিন আবেদন করার পর শুনানির জন্য ২১ দিন পরের তারিখ রেখে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে যে আদেশ দিয়েছে সেটি কেন বাতিল করা হবে না তাও জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। 

 

১ লা সেপ্টেম্বর শুনানির তারিখ রেখে এই সময়ের মধ্যে মহানগর দায়রা জজ আদালতকে রুলের জবাব দিতে বলা হয় এবং হাইকোর্টের এ আদেশ সেই দিনই বিশেষ বার্তা বাহকের মাধ্যমে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বিবাদীর কাছে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করতে সরকারের আইন কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়। 

 

রবিবার (২৯ আগস্ট) উচ্চ আদালতের নির্দেশে পরীমনির জামিন শুনানির জন্য ৩১ আগস্ট তারিখ ধার্য করা হয়। মাদক আইনের মামলায় পুলিশের অভিযোগ পত্র দাখিল না করা পর্যন্ত আদালত পরীমনিকে জামিন দিয়েছেন। ঢাকাই চলচ্চিত্রে আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনিকে নারী, শারীরিক অসুস্থতা এবং অভিনেত্রী এই তিন বিবেচনায় জামিন দিয়েছেন আদালত। 

 

রাষ্ট্রপক্ষের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর তাপস পাল বলেন, আদালত ৫০ হাজার টাকা মুচলেকায় পরীমনির জামিন মঞ্জুর করেছেন। পুলিশের প্রতিবেদন হওয়া পর্যন্ত অন্তর্বর্তীকালীন জামিন হয়েছে পরীমনির। 

 

পরীমনির আইনজীবী মজিবুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, আদালত পরীমনির জামিন মঞ্জুর করেছেন। তার মুক্তিতে আর কোন বাধা নেই। তাকে আজকের মধ্যেই জেল থেকে বের করার চেষ্টা করবো। 

 

পরীমনির রূপালী পর্দায় ক্যারিয়ার শুরু হয় ২০১৪ সালে এবং এখন পর্যন্ত ৩০ টি সিনেমা ও বেশ কয়েকটি টিভিসিতে অভিনয় করেছেন। প্রযোজক রাজ পিরোজপুরের মেয়ে পরীমনিকে ঢাকাই চলচ্চিত্র জগতে নিয়ে আসেন।