Skip to content

১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | শনিবার | ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে করণীয় 

ডায়াবেটিস এমনই অসুখ যে, নিয়ন্ত্রণে না থাকলে শরীরের গুরুত্বপূর্ণ সব প্রত্যঙ্গ খারাপ হতে থাকে সময়ের সঙ্গে। ডায়াবেটিস পুরোপুরি নিরাময়যোগ্য না কিন্তু ডায়াবেটিসকে নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়। তার জন্য ওষুধের চেয়ে বেশী দরকার আমাদের সচেতনতা ও নিয়ন্ত্রিত খাদ্যাভ্যাস। 

 

ডায়াবেটিস থেকে বাঁচতে অন্তত দিনের এক ঘণ্টা সময় নিজের জন্য রাখতে হবে। ওষুধের থেকেও বেশি কার্যকরী হাঁটা। ডায়াবেটিস আক্রান্তদের প্রতিদিন নিয়মিত হাঁটতে হবে। পরিমিত খাবার খেতে হবে। একসঙ্গে বেশি খাবার খেলে প্যানক্রিয়াসের উপর চাপ পরে। সেই জন্য ডায়াবেটিস রোগীদের অল্প অল্প করে দিনে ছ’বার খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। খাবারে শাক সবজির পরিমাণ বাড়াতে হবে। ডায়াবেটিসের ক্ষেত্রে ভাত না খেয়ে রুটি খাওয়ার বিষয়টিও ঠিক নয়। কারণ ভাত এবং রুটি দু’ টিই কার্বোহাইড্রেট। সাধারণত খাওয়া যায় সবকিছুই কিন্তু ক্যালোরি হিসেব করে খেতে হবে।

 

প্রতিদিন ১৪০০ থেকে ১৬০০ ক্যালোরির খাবার খেতে হবে। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ খাওয়ার পাশাপাশি প্রকৃতি থেকে প্রাপ্ত কিছু ঔষধি গাছের সাহায্য নিলে ফলাফল আরো ভাল হয়। তিসিগুঁড়া, তুলসিপাতার রস, মেথিচূর্ণ প্রতিদিন সকালে খেলে ডায়াবেটিসের উপশম হয়। তুলসীকে অনেকেই প্রাকৃতিক ইনসুলিন বলে থাকে।সঙ্গে থাকবে নিয়মিত শরীরচর্চা। পরিশ্রম করা, নিয়মিত হাঁটা, চিন্তা দূর করা, আনন্দে থাকা, হাই ক্যালোরিযুক্ত খাবার না খাওয়া, খেলেও ক্যালোরি মেনে—এ গুলো মেনে চললেই জটিলতা কম হবে।

ডায়াবেটিস বেড়ে যাওয়ার জন্য কিন্তু কোনও ব্যক্তি মারা যান না। কিন্তু ডায়াবেটিস শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয়, এ থেকে শরীরে সৃষ্টি হয় নানা রোগের বসবাস। ডায়াবেটিস থেকে হওয়া জটিলতার কারণেই ৯০ শতাংশ মানুষ মারা যান।