Skip to content

১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | বুধবার | ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কমলালেবুর খোসায় ত্বকের যত্ন 

কমলালেবু শীতকালীন ফল হলেও আমাদের দেশে প্রায় সারাবছরই কমলালেবু পাওয়া যায়। কমলালেবু খেতে ভালোবাসে না এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া মুশকিল। কমলালেবু প্রচুর পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ একটি ফল।

 

আমরা সাধারণত কমলালেবু খাওয়ার পর খোসা ফেলে দেই কিন্তু কমলালেবুর খোসাতেও রয়েছে অসাধারণ পুষ্টি। কমলালেবুর খোসা, শাস সবই রূপচর্চার কাজে ব্যবহার করা হয়।

 

কমলার খোসা ত্বকের নমনীয়তা রক্ষা  করতে সাহায্য করে। এটি ত্বকের তেলের ভারসাম্য ঠিক রাখে ও ত্বককে মসৃণ ও নরম করে। কমলালেবুর খোসায় রয়েছে অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল ও অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি যা ত্বককে ব্রণের হাত থেকে সাহায্য করে। কিন্তু শুধু কমলার খোসা সরাসরি মুখে লাগানো উচিত না।

 

চালের গুঁড়া, দই ও কমলার খোসা একসাথে মিশিয়ে হালকাভাবে ম্যাসাজ করলে ব্ল্যাকহেডস দূর হয়। প্রাকৃতিক স্ক্রাবার হিসাবে কমলার খোসা খুবই উপকারী। এটি ত্বকের মৃত কোষ দূর করে ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনে।

 

মুখের ক্লান্ত ভাব দূর করতে পাকা কলার সাথে কমলার খোসার গুঁড়া মিশিয়ে লাগালে ক্লান্ত ভাব চলে যায়। মুখের কালো দাগ কমাতে কমলার খোসার গুঁড়ার সাথে ময়দা ও দই মিশিয়ে নিয়মিত ব্যবহার করলে দাগ দূর হবে।

 

রোদে পোড়া ভাব দূর করতে দুধের সাথে কমলার খোসার গুঁড়া মিশিয়ে মুখে লাগালে রোদে পোড়া ভাব দূর হবে এবং ত্বককে তরতাজা দেখাবে। বলিরেখা কমিয়ে আনতে ও মেছতার দাগ দূর করতে কমলালেবু খোসা অনেক উপকারী। 

 

সংবেদনশীল ত্বকে কমলার খোসা ব্যবহার না করাই ভালো। কারণ কমলার খোসা ব্যবহারে অ্যালার্জি হতে পারে।

 

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ