Skip to content

১৪ই মে, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | মঙ্গলবার | ৩১শে বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গুগলে চাকরি পেলেন বাংলাদেশের ফাতিমা তাসনিম! 

প্রযুক্তির আশীর্বাদে বিশ্ব অনেক দূর এগিয়ে গেলেও, বিজ্ঞান-প্রযুক্তির বিষয়গুলোতে নারীর আনাগোনা খুবই কম। যে হার আমাদের দেশে মাত্রাতিরিক্ত কম বলা চলে। প্রযুক্তির দিক থেকে আমাদের দেশের নারীরা বেশ অনেকটাই পিছিয়ে।  তবুও আশার আলো দেখিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে কিছু নারীরা। তেমনি একজন ফাতিমা তাসনিম। যিনি সম্প্রতি গুগলে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে চাকরির অফার লেটার পেয়েছেন।  

ফাতিমা তাসনিম ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের একজন শিক্ষার্থী। আর তাইতো বিশ্বের সবচেয়ে বড় টেক জায়ান্ট 'গুগল' -এ চাকরি পাওয়ার বিষয়টি আনন্দের সঙ্গে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। শনিবার দুপুরে এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।  

ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অত্যন্ত মেধাবী একজন ছাত্রী ফাতিমা তাসনিম। ফাতিমা তাসনিম ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম সেরা মহিলা প্রোগ্রামার ছিলেন। তিনি কম্পিউটার প্রোগ্রামিং ক্লাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবেও কাজ করেছে।

ফেসবুক, গুগল, মাইক্রোসফটের মতো বড় বড় প্রতিষ্ঠানগুলোয় কাজের সুযোগ পাওয়া নেহাত মুখের কথা নয়। ফাতিমা তাসনিমের আগেও বাংলাদেশ থেকে বেশ কয়েকজনই এসব প্রতিষ্ঠানে কাজ করার সৌভাগ্য অর্জন করেছেন। সে তালিকায় নারীও যে ছিলনা তা নয়। গেল বছরই গুগলের সফটওয়্যার প্রকৌশলী হিসেবে ডাক পান দেশের প্রথম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় নর্থ সাউথের ছাত্রী নাবিলা আহমেদ। 

আমাদের সমাজের ধারণা, বিজ্ঞান-প্রযুক্তির মতো এমন কঠিন বিষয়বস্তুতে নারী কিভাবে পারদর্শী হবে? এ কাজ নারীর নয়। আর এসব ধারণার মাধ্যমেই নারীর চারদিকে জড়িয়ে দেয়া হয় অদৃশ্য এক জাল। তবে নিজেদের যোগ্যতা দিয়ে সেই জাল কেটে এগিয়ে যাচ্ছেন নাবিলা আহমেদ ও ফাতিমা তাসনিমের মতো নারীরা। উজ্জ্বল করছেন দেশের মুখ। আর এগিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরণা জোগাচ্ছেন পিছিয়ে থাকা হাজারো নারীদের।

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ