Skip to content

২০শে ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | মঙ্গলবার | ৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

স্ন্যাক্স খাওয়ার সময় যে ভুলগুলো করা যাবে না 

স্ন্যাক্স খাওয়ার সময় মানতে হবে সচেতনতা। যারা ডায়েট করছে তাদের এই ক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে বেশি। জিম, ডায়েট সব ঠিক রাখলেন কিন্তু স্ন্যাক্স এর বিষয়ে সচেতনতা মানলেন না। তাহলে তো হবে না।  

 

যারা সত্যি ওজন কমাতে চান তারা স্ন্যাক্স এর ক্ষেত্রে পুষ্টিকর খাবার টা বেছে নেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু সব কিছুর একটা সীমা আছে।তাই সেই বিষয়ের দিক ও খেয়াল রাখতে হবে। কেননা অতিরিক্ত কোন কিছুই ভালো না। যেমন অতিরিক্ত বাদাম খাওয়া বা সালাদ খাওয়া উচিত নয়। এতে ক্ষতির সম্ভাবনা থাকে। 

 

তেলের খাবার বা বাইরের খাবার খাওয়া থেকে দূরে থাকতে হবে। যেমন, জাঙ্ক ফুড। এই গুলোতে বেশি মাত্রায় ক্যালোরি থাকে যা শরীরের জন্য খারাপ এবং ক্ষতিকর। স্ন্যাক্স খাওয়ার জন্য এমন কিছু বানিয়ে খান যেটা খেলে আপনার পেট ও মন দুই ই ভরবে। 

 

খুব বেশি খুদা না লাগলে ইচ্ছার বিরুদ্ধে খাওয়া বন্ধ করুণ। এতে ওজন কমাতে কষ্টকর হয়ে যাবে। খুদা লাগলে পরিমাণ মতো খাবেন, কিন্তু অতিরিক্ত নয়। যাদের এক মাত্র ইচ্ছা শরীরের অতিরিক্ত মেদ কমানো তারা চিনি যুক্ত খাবার বা তেলের খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকবেন। এটা খেয়াল রাখবেন কি খাচ্ছেন? এবং এতে শরীরের কি প্রক্রিয়া হবে। 

 

পেট ভরে খাবার খাবেন না। পেটকে ৩ ভাগে ভাগ করে নিবেন। এতে সুবিধা হবে আপনার। যেমন একভাগে খাবার,একভাগে পানি আর বাকি একভাগ খালি রেখে দিবেন। এক্ষেত্রে শুধু খেলেই হবে না করতে হবে শরীরচর্চা ও সমান তালে।তাহলেই ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে। 

 

বিভিন্ন রকমের শাক-সবজি,ফল খেতে হবে আর প্রোটিন এর পরিমাণ ও বাড়াতে হবে। এই সব ফল বা শাক সবজিতে আপনার শরীরের জন্য প্রয়োজন ভিটামিন আছে। যা আপনার শরীরের সকল চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম। 

 

খাওয়ার আগে গোটা একটা পেয়ারা বা শসা খেয়ে নিতে পারেন। এতে করে ভাতের প্রতি যে টান তা কমে যাবে ফলে কম খাওয়া হবে। আর শরীরচর্চা করতে হবে প্রতিদিন। যতটুকু আপনার দ্বারা সম্ভব ততোটুকু করলেই হবে। এক্ষেত্রে নিয়মিত হাঁটা হাটি করতে পারেন, চাইলে জিম ও করতে পারেন। 

 

এতে অনেক ভালো ফলাফল পাবেন। যত পারবেন হাঁটাহাঁটির অভ্যাস করবেন। এতে শরীরের মেদ ঝরে যাবে এবং আপনি ও সুস্থ থাকবেন।

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ