Skip to content

১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | বুধবার | ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অলিম্পিক পদকে এগিয়ে চীন

সকলেরই অন্যতম আকর্ষণ হচ্ছে অলিম্পিক গেমস। এবারের আসরেও অ্যাথলেটরাও পুরো বিশ্বের নজর কাড়তে সক্ষম হয়েছে। প্রতিটি গেমসে প্রতিযোগীদের মধ্যে প্রতিযোগিতা থাকলেও অলিম্পিকে চলে আরেকটি প্রতিযোগিতা। তা হল বিভিন্ন দেশের মোট সংখ্যক পদক জয়ের প্রতিযোগিতা। শীর্ষ কিছু দেশের মধ্যে পুরো আসর জুড়ে থাকে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই।

 

এবারের টোকিও অলিম্পিকে স্বর্ণপদক জয়ে এগিয়ে আছে পূর্ব এশিয়ান দেশ চীন। অলিম্পিকে আধিপত্য চীনের নতুন কিছু নয়। ২০০৮ সালে বেইজিং অলিম্পিক থেকে শুরু হয়েছে এই আধিপত্য। সেবার পদক তালিকায় প্রাধান্য বিস্তার করার পর লন্ডন এবং রিও অলিম্পিকেও একই চিত্র দেখিয়েছে চীন। এবার টোকিও অলিম্পিকেও পদক তালিকায় প্রথম দিনই নিজেদের শীর্ষে তুলে এনেছে চীনা অ্যাথলেটরা। 

 

টোকিও অলিম্পিকের প্রথম দিনে ২৮টি দেশ পদক তালিকায় নাম লিখল। প্রথম দিনে নিষ্পত্তি হওয়া ১১টি সোনা জিতে নিয়েছে ৯টি দেশ। এর মধ্যে তিনটি সোনা জিতে প্রথম দিনে এগিয়ে আছে চীন। মাঝে জাপান শীর্ষে গেলেও শেষ আপডেট পর্যন্ত সর্বোচ্চ সোনা চাইনিজদের দখলেই।

 

টোকিও অলিম্পিকে চীনের অর্জন মোট ৭৩ টি পদক। এর মধ্যে স্বর্ণ ৩৩, রৌপ্য ২৪ আর ব্রোঞ্জ ১৬ টি। পরের চারটি স্থানে রয়েছে যথাক্রমে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, অস্ট্রেলিয়া ও আরওসি। ২৭ টি স্বর্ণ, ৩৪ টি রৌপ্য ও ২৪ টি ব্রোঞ্জসহ মোট ৮৫ টি পদক নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র আছে দ্বিতীয়তে। আর ২১ টি স্বর্ণ, ৮টি রৌপ্য ও ১৪ টি ব্রোঞ্জসহ মোট ৪৩ টি পদক নিয়ে এর পরের স্থানে এবারের অলিম্পিক আয়োজক জাপান।

অন্যান্য বারের তুলনায় এবার অলিম্পিকে পদক জয়ী দেশের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। এবার অন্তত একটি পদক জেতা দেশের সংখ্যা এখন ৮০টি। সোনা জেতা দেশের মধ্যে নতুন যোগ হয়েছে চারটি দেশ। অলিম্পিকে অংশ নেওয়া ৫৭টি দেশ এখন পর্যন্ত স্বর্ণপদকের দেখা পেয়েছে। অন্যদিকে শুধু রুপা জয়ী দেশের সংখ্যা এখন ১৩টি। আর শুধু ব্রোঞ্জজয়ী দেশ এখন ১০টি।

 

বরাবরের মতো টোকিও অলিম্পিকে বাংলাদেশের যাত্রা তেমন ভালো ছিলোনা। পদক ছাড়াই ফিরতে হয়েছে অংশগ্রহণকারীদের। এতে হতাশার কিছু নেই। আশা করা যাচ্ছে সামনে বাংলাদেশও একদিন পদকের মুখ দেখবে।

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ