Skip to content

৩রা মে, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | শুক্রবার | ২০শে বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সমাজ ও শাস্ত্রকে যেন বুড়োআঙুল দেখালো মন্দিরা

হিন্দু ধর্মের শত বছরের পুরনো প্রথা অনুযায়ী কারো মৃত্যুর পর তার মুখাগ্নিসহ অন্যান্য কাজ করতে হয় পুত্র সন্তানকে। হিন্দুসমাজে বছরের পর বছর ধরে চলে আসছে এই রীতি।  কিন্তু এবার রীতিমতো সমাজ ও শাস্ত্রকে বুড়োআঙুল দেখালো মন্দিরা বেদী। পুত্রসন্তান থাকা সত্ত্বেও স্বামীর শেষকৃত্য নিজেই সম্পন্ন করলেন তিনি। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় চলছে আলোচনা – সমালোচনা।  

 

সমাজ ও শাস্ত্রকে যেন বুড়োআঙুল দেখালো মন্দিরা

ভারতে শুধু পুত্রসন্তানের দ্বারা মুখাগ্নি  করার সংস্কার ভাঙার চেষ্টা চালাচ্ছে অনেকেই। অনেকক্ষেত্রেই দেখা যায় পুত্রসন্তান না থাকলে কিংবা থাকলেও কন্যা সন্তানকে দিয়ে করানো হচ্ছে মুখাগ্নি। তবে স্ত্রীকে দিয়ে স্বামীর মুখাগ্নি করার দৃশ্য চোখে পরেনা সহজে। তাই মন্দিরা বেদীর ঘটনা সারা ফেলে দিয়েছে দেশজুড়ে। এর আগেও বিভিন্ন পাবলিক ফিগাররা বিভিন্ন সময় ধর্মীয় বিভিন্ন রীতিনীতি ভাঙার চেষ্টা করেছেন এবং আলোচনায়ও এসেছেন।  এবার মন্দিরা বেদীও হাটলো সে পথে। 

মূহুর্তেই তার স্বামীর মুখাগ্নি করার ঘটনা হয়ে যায় খবরের শিরোনাম। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের পাতা জুড়ে শুরু হয়ে আলোচনা সমালোচনা। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে আলোচনা চলছে দেশের বাইরেও৷ একদল আধুনিক মানসিকতার মানুষ এ ঘটনাকে সাধুবাদ জানাচ্ছে। আবার একদল মানুষ সমালোচনা করছেন তার এই কর্মকাণ্ডের। 

 

সমাজ ও শাস্ত্রকে যেন বুড়োআঙুল দেখালো মন্দিরা

এর আগে বুধবার সকালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান  অভিনেত্রী ও সঞ্চালিকা মন্দিরা বেদীর স্বামী পরিচালক, প্রযোজক রাজ কৌশল। রাজ-মন্দিরা দম্পতির এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।  রাজের মৃত্যুতে গভীর শোকে আচ্ছন্ন হয়ে যান মন্দিরা। রাজ কৌশলের মরদেহ বাড়িতে পৌছতেই কান্নায় ভেঙে পড়েন মন্দিরা বেদী।  সেই ভিডিও ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। যা দেখে তাকে সহানুভূতি জানায় নেটিজেনরা। 

কিন্তু শুধু শোকে কাতর হয়ে এক কোনে পড়ে থাকেননি মন্দিরা বেদী। স্বামীর শেষ বিদায়ের সময়ও চেষ্টা করেছেন পুরুষতান্ত্রিক সমাজের শেকল ভাঙার। দেহ কাঁধে তুলে নেওয়া থেকে শুরু করে, নিয়ম অনুযায়ী, আগুনের মালসা নিজের হাতে তুলে নেয়া।  এ যেন শাস্ত্রকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে সমাজ বদলে দেয়ার নতুন ইঙ্গিত।
 

 

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ