Skip to content

২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | মঙ্গলবার | ১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চা- কফি পান করবেন যে সময়ে

এক কাপ চা বা কফি না হলে অনেক সময় দিনই শুরু হতে চায় না, এমন লোকের সংখ্যা আমাদের আশেপাশে নেহাত কম নেই। এই অভ্যাস অনেক সময়ই আমাদের প্রতিদিনের শুরু থেকে শেষের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। আর তাই হয়তো বিশ্বাস করতেও কষ্ট হবে যে, অসময়ে চা বা কফি পানে আপনি শারীরিকভাবে বিভিন্ন প্রতিকূলতার সম্মুখীন হতে পারেন। আবার, সঠিক সময়ে চা বা কফি আপনার জন্য বয়ে নিয়ে আসতে পারে অফুরন্ত শক্তি আর সজীবতা।

 

বিশেষজ্ঞরা সম্প্রতি বলেছেন, চা বা কফি পান করার শ্রেষ্ঠ সময় হলো খাবার গ্রহণের ১-২ ঘন্টা পর। এই সময় চা- কফির ক্যাফেইন আপনার শরীরে স্বাভাবিক কাজ করে শরীরকে চাঙ্গা করতে সাহায্য করে। সকালেও চা বা কফি পান করতে পারেন, তবে অবশ্যই খাবার গ্রহণের আগে নয়। ৭-৮ ঘন্টা ঘুমের পর খাবার গ্রহণের আগে চা পানে, ভুগতে পারেন জলশূন্যতায়। যেহেতু তখন দেহে খাবার এবং জলের পরিমাণ থাকে না বললেই চলে, তাই সেই সময় চা পানে ডিহাইড্রেশন পেশীগুলির বাধা সৃষ্টি করতে পারে। তাছাড়া খালি চা পান থেকে বিরত থাকতেও পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। চায়ের সাথে হালকা খাবার যেমন, বিস্কুট বা টোস্ট গ্রহণ করা ভালো।

 

বিশেষজ্ঞরা জিমে যাওয়ার আগে বা শারীরিক কসরতের আগে কফি পান করার জন্য পরামর্শ দেন। কফি আপনার শরীরে প্রচুর শক্তি যোগায় এবং ক্যালরি বার্ন করতে সাহায্য করে। তবে, ঘুমের আগে অবশ্যই কফি পান থেকে বিরত থাকতে হবে। এটি আপনার ঘুমচক্রকে ব্যাহত করে, রাত্রিকালীন ঘুমের অভ্যাসকে নষ্ট করে দেয়।

 

তাছাড়া চা- কফি এসিডিটি সৃষ্টি করে। এর ভেতরের ক্যাফেইন পদার্থ থাকায়, খালি পেটে আপনার বুকে জ্বালা পোড়ার সৃষ্টি করতে পারে। খালি পেটে ব্ল্যাক কফি পানে পেট ফেঁপে উঠতে পারে। তাছাড়া অতিরিক্ত পান করলে পেটে আলসারও হতে পারে। তাই, বিশেষজ্ঞদের মতামত হলো, চা-কফি পানে নির্দিষ্ট সময়-জ্ঞান অবলম্বন করা।

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ