Skip to content

১১ই মে, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | শনিবার | ২৮শে বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গিনেস বুকে রেকর্ড করা সেই চুল কেটে ফেললেন নীলাংশি! 

লম্বা চুলের কোন কিশোরীকে কল্পনা করতে বলা হলে নিঃসন্দেহে সবার চোখের সামনে ভেসে উঠবে জার্মান রূপকথার কেশবতী কন্যা রুপাঞ্জেলের চেহারা। কিন্তু রূপকথায় শুধু নয়, বাস্তবেও এমন লম্বা লম্বা চুলের কিশোরীর দেখা মিলেছিল বেশ অনেকদিন আগেই। নাম লিখিয়েছিলেন গিনেস বুক ওয়ার্ল্ডেও।  তবে নিজের চুল দিয়ে রেকর্ড গড়া সেই কিশোরী অবশেষে কেটে ফেললেন নিজের সেই লম্বা চুল।

 

গিনেস বুকে রেকর্ড করা সেই চুল কেটে ফেললেন নীলাংশি! 

এই কিশোরীর নাম নীলাংশি পটেল। ১৩ থেকে ১৯ বছর বয়সীদের মধ্যে তার মাথায় সবচেয়ে বেশি চুল ছিল। ৬ বছর বয়স থেকে চুল বাড়িয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। কারণ হিসেবে জানা যায়, তার ৬ বছর বয়সে চুল কাটতে গিয়ে এক ভয়ংকর অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হতে হয়েছিল।  এরপর থেকেই আর কখনও চুল কাটবেন না বলে প্রতিজ্ঞা করেন।  

 

গিনেস বুকে রেকর্ড করা সেই চুল কেটে ফেললেন নীলাংশি! 

২০১৮ সালে ১৬ বছর বয়সে নীলাংশির চুল ছিল ৫ ফিট ৭ ইঞ্চি। এর পর নীলাংশি ১৮-তে পা দেওয়ার আগেই তার চুল আরও দ্রুত বেড়ে গিয়ে ৬ ফিট ৬.৭ ইঞ্চি হয়ে যায়। তিনি তখন স্থির করেন যে একজন টিন এজার হিসেবে সব চেয়ে লম্বা চুলের রেকর্ড করবেন। সেই  ১২ বছর ধরে নিজের প্রতিজ্ঞা রেখেছিলেন তিনি আর মনের ইচ্ছে পূর্ণ করে তিনি গিনেস বুকে নামও তুলেছেন। 

 

গিনেস বুকে রেকর্ড করা সেই চুল কেটে ফেললেন নীলাংশি! 

তার লম্বা চুলের জন্য গুজরাটের স্থানীয় মানুষ তাকে ডাকেন রুপাঞ্জেল বলে। আর এই নামটাও   নীলাংশির কাছে খুব পছন্দের। তিনি বলেছেন যে এই চুল ছিল তার লাকি চার্ম, তার কাছে এই চুল অত্যন্ত শুভ। তাই ১২ বছর পর  এই চুল কেটে ফেলার সময় আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন তিনি। এদিকে চুল কাটার পর মা কামিনীবেনের সঙ্গে আলোচনা করে নীলাংশি ঠিক করেছেন যে এই চুল তিনি একটি মিউজিয়ামে দান করবেন যাতে সেটা দেখে বাকিরা অনুপ্রাণিত হয়।

 

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ