ডায়েটে চাপমুক্ত থাকুন

প্রকাশ : ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৮:৫৩ | অনলাইন সংস্করণ

  মাশরুবা সোহা

অনেকদিন ধরেই রোগা হওয়ার চেষ্টা করছেন, নিয়মিত গ্রিন টি, ব্রাউন ব্রেড, লো ফ্যাট খাবার সবই খাচ্ছেন। রোগা হচ্ছেনও হয়ত, কিন্তু ক্রমশই খারাপ হচ্ছে মেজাজ? অবসাদে ভুগছেন? এমনটা যাতে নাহয় তার জন্য কয়েকটা বিষয়ে চাপমুক্ত থাকুন।
ডায়েট কথাটা মাথার মধ্যে ঘুরতে থাকলেই মনে অতিরিক্ত চাপ তৈরি হয়। তাই ডায়েট বিষয়টাকে সহজভাবে নিন। ডায়েট নিয়ে চাপ নেবেন না। ডায়েট কথাটা মাথার মধ্যে ঘুরতে থাকলেই মনে অতিরিক্ত চাপ তৈরি হয়। তাই ডায়েট বিষয়টাকে সহজ ভাবে নিন।


মনে রাখবেন, ডায়েটিং করা মানে কিন্তু খিদে চেপে রাখা নয়। না খেয়ে রোগা হওয়া যায় না। তাই খিদে পেলে অবশ্যই খাবেন। মনে রাখবেন, ডায়েটিং করা মানে কিন্তু খিদে চেপে রাখা নয়। না খেয়ে রোগা হওয়া যায় না। তাই খিদে পেলে অবশ্যই খাবেন।
ডায়েট করতে গিয়ে কখনই নিজের প্রিয় খাবার খাওয়া ছেড়ে দেবেন না। কারণ আমরা যে খাবার খাবো না ঠিক করি সেটাই বারবার খেতে ইচ্ছা করে। তাই কোনো খাবারের সঙ্গেই সম্পর্ক একেবারে ত্যাগ করবেন না। 


ডায়েট করতে গিয়ে হ্যাঁ আর না-এর ওপর খুব বেশি জোর দিয়ে ফেলেন অনেকেই। সময় অনুযায়ী ও পরিমিত পরিমাণে খেলে কোনো খাবারই খুব ক্ষতিকারক নয়। তাই হ্যাঁ, না দূরে সরিয়ে রেখে সব খাবারই পরিমিত পরিমাণ খাওয়ার চেষ্টা করুন।  
পেটভরে গেলে কিন্তু শরীরের আগে মন আমাদের জানান দেয়। তাই খাওয়ার সময় মনযোগ দিন মাথা ও শরীরের সিগন্যালের দিকে। পেটভরে গেলে খাবেন না। মনে রাখবেন, বেশি খাওয়ার জন্যই ওজন বাড়ে।   
ডায়েট করতে গিয়ে এমন খাবার খাবেন না যা খেতে আপনার একটুও ভালো লাগে না। এতে তৃপ্তি হবে না। এমন খাবার খান যা খেয়ে তৃপ্তি হবে। এতে মন ভালো থাকবে। যার প্রভাব পড়বে শরীরে। 

 
খিদে পাওয়া একটি শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়া এবং আমরা শরীরের জন্যই খাই। তাই চোখের খিদে বা আবেগের বশে খেয়ে ফেলবেন না যা খুশি। এতেই ভুলভালে খাওয়া হয়ে যায়।  
সবশেষে খাবারের মানের ওপর জোর দিন। যে খাবারে পুষ্টি বেশি সেই খাবারের ওপর গুরুত্ব দিন। কারণ সবচেয়ে আগে জরুরি সুস্বাস্থ্য। 

----  ছবি : মঞ্জুরুল আলম