Skip to content

২০শে ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | মঙ্গলবার | ৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ডায়েটের অভিনব পদ্ধতি ডিউক ডায়েট

হলিউড কিংবা বলিউড তারকার ফিটনেসে ডায়েট যেন এক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আর এ বিষয়ে আগ্রহ থাকে একটা বড় অংশের দর্শকদের। তারকাদের মতো চেহারা পেতে হবে যে। আমিষ এর নাম শুনলেই ভাবনায় আসে মুটিয়ে যাওয়ার কল্পনা। তবে শোনা যায় তারকাদের এই ডায়েটে তারা বেহিসাবি প্রোটিন কিংবা আমিষ খেয়ে থাকে। তবে কি এই ডায়েট এর রহস্য?

 

কিন্তু প্রোটিন নির্ভর এই ডায়েটের নাম কি জানেন? বিদেশে এই ধরনের ডায়েট বেশ জনপ্রিয়। নাম ডিউক ডায়েট। এতে সারাদিনের খাদ্য তালিকায় মূলত প্রোটিন থাকে। মাছ, মাংস, ডিম, দুধ নির্ভর এই ডায়েট। আর সঙ্গে থাকে খানিকটা শাক-সবজি।

 

কার্বোহাইড্রেট ছোঁয়াও চলবে না ডিউক ডায়েট করলে। বাদ দিতে হবে যে কোনও ধরনের মিষ্টিও। এই ডায়েটের নিয়ম হল, পুষ্টিবিদ ১০০টি খাবারের তালিকা দেবেন। তার মধ্যে থেকেই বেছে খাওয়াদাওয়া করতে হবে। তবে কম খাওয়ার কোনও ব্যাপার নেই। বরং অনেকে বলে থাকেন, এমনিতেও এত খাওয়া হয় না, যত ডিউক ডায়েট করলে খেতে হয়। এই ডায়েটের চারটি স্তর আছে। রয়েছে হাজার রকম নিয়ম। ফলে প্রশিক্ষকের সাহায্য ছাড়া এ পথে চলতে নিষেধ করা হয়।

 

ফরাসি চিকিৎসক পিয়ের ডুকানের সৃষ্টি এই ডায়েট। তার নামেই পরিচিত ওজন ঝরানোর এই নিয়ম। তবে এই ডায়েট নিয়ে কিছু মত পার্থক্যও আছে। শোনা যায়, চিকিৎসকদের সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল তাঁকে। এই ডায়েট ঘিরে ব্যবসাই ছিল তাঁর বিরুদ্ধে মূল অভিযোগ। ফলে চিকিৎসকদের একাংশ এখনও এই ডায়েটকে সন্দেহের চোখে দেখে। অনেকে বলেন, অতিরিক্ত পরিমাণ প্রোটিন খাওয়ার ফলে কিডনির সমস্যা দেখা দেওয়ার আশঙ্কা থাকে।

 

তবে ডিউক ডায়েটের মূল হল কম ক্যালোরি খাওয়া। ফলে খাবারের থালার অর্ধেকে দেওয়া হয় হাল্কা ওজনের শাক-পাতা দিয়ে। আর বাকি অর্ধেক থাকে মাছ-মাংসে ভরা। এ ভাবেই ভারসাম্য রক্ষা করার কথা বলা হয় এই ডায়েটে। 

 

ডায়েট হচ্ছে পরিমিত খাওয়া। তবে এমন ডায়েট করা উচিত নয় যে তাতে শরীরের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই একজন বিজ্ঞ চিকিৎসক এর পরামর্শে ডায়েট চার্ট অনুযায়ী ডায়েট করাই উত্তম।

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ