ঘুরে আসুন বাংলার তাজমহল!

ঘুরে আসুন বাংলার তাজমহল!
ঘুরে আসুন বাংলার তাজমহল!
ঢাকা থেকে মাত্র ৩২ কিলোমিটারের ব্যবধান হওয়ায় আপনি চাইলে দিন গিয়ে দিনেই ঘুরে আসতে পারবেন বাংলার তাজমহল থেকে।

ভারতের আগ্রার তাজমহল গোটা বিশ্ব জুড়ে পরিচিত। মমতাজের প্রতি সম্রাট শাহজাহানের ভালোবাসার এক অপূর্ব নিদর্শন এই তাজমহল। এর স্থাপত্যশিল্পে সকলে মুগ্ধ।তবে বিশ্বের প্রাচীন সপ্তাশ্চর্য আগ্রার তাজমহলের আদলে  নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও উপজেলার পেরাব গ্রামে নির্মিত হয়েছে  'বাংলার তাজমহল।'

 

চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক আহসানউল্লাহ্ মনি নিজস্ব অর্থায়নে পেরাব গ্রামে নিজ বাড়িতে প্রায় ১৮ বিঘা জমির ওপর এ তাজমহল নির্মাণ করেন।  ২০০৮ সালে উদ্বোধন হয় বাংলার তাজমহল। সেখানে বিভিন্ন স্থানে বসানো টাইলস, বিদেশি ডায়মন্ড পাথর, গম্বুজের ওপরে ব্রোঞ্জের তৈরি চাঁদ-তারায় দৃষ্টিনন্দন এই তাজমহল। এই মহলের ভেতরে আহসানউল্লাহ্ মনি ও তার স্ত্রী রাজিয়া দু’জনের কবরের স্থান সংরক্ষিত আছে। 

 

তাজমহলে ব্যবহৃত টাইলসগুলো বাইরের দেশ থেকে ক্রয়কৃত। এখানে বসানো হয়েছে ১৭২ টি বিদেশি ডায়মন্ড পাথর। তাজমহলে প্রবেশের সময় রয়েছে পানির ফোয়ারার। 
আগ্রার তাজমহলের ন্যায় বাংলার তাজমহলেও চারকোণে ৪টি বড় মিনার রয়েছে। চারিদিকে রয়েছে সুন্দর ফুলের বাগান এবং দর্শনার্থীদের জন্য  বসার জায়গা। 


তাজমহলের ভেতরে আরও রয়েছে “রাজমনি ফিল্ম সিটি স্টুডিও”। তাজমহলের বাইরে রয়েছে “রাজমনি ফিল্ম সিটি রেস্তোরাঁ”, আরও রয়েছে বিভিন্ন খাবার দোকান, হোটেল, আবাসিক ভবন, জামদানি শাড়ির দোকান, হস্তশিল্প সামগ্রী, মাটির গহনা সহ আরও অন্যান্য পণ্য সামগ্রীর দোকান। এর আশেপাশে রয়েছে কয়েকটি পিকনিক স্পট।

 

 

যেভাবে যাবেন

 

ঢাকা থেকে মাত্র ৩২ কিলোমিটারের ব্যবধান হওয়ায় আপনি চাইলে দিন গিয়ে দিনেই ঘুরে আসতে পারবেন বাংলার তাজমহল থেকে।
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক দিয়ে কুমিল্লা, দাউদকান্দি অথবা সোনারগাঁ গামী যেকোনো বাসে চড়ে মদনপুর বাস স্ট্যান্ডে নামতে হয়। সেক্ষেত্রে ভাড়া লাগবে ১৫ টাকা।সেখান থেকে সিএনজি বা অটোরিকশায় জনপ্রতি ২৫ টাকা ভাড়ায় খুব সহজে যাওয়া সম্ভব হবে  তাজমহলে।