আলোর জন্য আকুল

আলোর জন্য আকুল
আলোর জন্য আকুল
বুকের ভিতর ঘুমিয়ে থাকা সিংহটাকে জাগাই লোভগুলোকে অবহেলায় পায়ের তলে মাড়াই হাত দুটোকে কর্মপুষ্ট সতেজ করে সাজাই

সকালটাকে দেখব বোলে দুয়ার খুলে দাঁড়াই
সূর্যটাকে ধরব বোলে আকাশে হাত বাড়াই

 

তখন বাতাস বইছে জোরে,
ক্লান্তিটুকু ভাসিয়ে দিলাম সময় নদীর জলে
হাজার পাখির ঘুম ভেঙেছে,
সবাই মিলে গাছের ডালে প্রভাতী সুর তোলে
ফুলের মেলায় মৌমাছিরা ব্যাকুল মধুর খোঁজে;
শিশিরে পা ধুব বোলে পথের সবুজ ঘাস গুলিকে মাড়াই
আলোয় পরান ভরব বোলেই দুয়ার খুলে দাঁড়াই।

 

ঘর ডাকে আয়, আমার কোণের আঁধার পুরে বন্দি হয়ে থাক
নারী আছে খাদ্য আছে আর কি আবশ্যক?
বাহুল্য তোর প্রকৃতি প্রেম পেট ভরেনা তাতে
দিন কাটে তোর ভাবনা ব্যাকুল ঘুম আসেনা রাতে
মনের ভিতর দ্বিধার পাহাড়,
শাবল মেরে শক্ত হাতে ভিত্তিটাকে নাড়াই
স্বপ্ন মরা দু'চোখ হতে পর্দাটাকে সরাই
আলোয় পরাণ ভরব বোলেই দুয়ার খুলে দাঁড়াই।

 

দিনের বয়স বাড়তে থাকে, সূর্য যখন যৌবনে দেয় পা
আলোর মুখে শ্লোগান উঠে-
চেনা পথের বাঁকে বাঁকে স্বপ্ন বুনে যা
বিষন্নকাল দূর হয়ে যাক, 


বুকের ভিতর ঘুমিয়ে থাকা সিংহটাকে জাগাই
লোভগুলোকে অবহেলায় পায়ের তলে মাড়াই
হাত দুটোকে কর্মপুষ্ট সতেজ করে সাজাই
আলোয় পরাণ ভরব বোলে দুয়ার খুলে দাঁড়াই
সূর্যটাকে ধরব বোলেই আকাশে হাত বাড়াই।