দৃষ্টি দিয়ে ছবি তুলবে ফেসবুকের ' স্মার্টগ্লাস '!

দৃষ্টি দিয়ে ছবি তুলবে ফেসবুকের ' স্মার্টগ্লাস '
ছবি: সংগৃহীত
ফেইসবুক ‘রে-ব্যান স্টোরিস’ নামের নতুন স্মার্টগ্লাস উন্মোচন করেছে বৃহস্পতিবার। এর মাধ্যমে স্মার্টগ্লাস প্রযুক্তির বাজারে যোগ দেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর তালিকায় নাম লেখালো ফেইসবুক। ছবি ও ছোট ছোট ভিডিও ধারণ করা যাবে ফেসবুকের স্মার্টগ্লাস দিয়ে। ওই ছবি আর ভিডিও সরাসরি হোয়াটসঅ্যাপ, ফেইসবুক এবং ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করতে পারবেন ব্যবহারকারীরা । পাশাপাশি ডিভাইসটির মাধ্যমে গান ও পডকাস্ট শোনা যাবে, ফোনের কল ধরার ফিচারও আছে এতে।

প্রযুক্তির সূচনা যাত্রায় মানুষের কাছে স্থিরচিত্র ছিল যেন কল্পনার এক বিস্ময়কর বস্তু। সেই স্থিরচিত্র থেকে আজকের প্রযুক্তির পথটা বেশি দীর্ঘ নয় তবে এর পরিবর্তন বিপুলসংখ্যক। দিনকে দিন এর পরিবর্তন যেন চমকে দিচ্ছে গোটা বিশ্বকে। অভাবনীয় আবিষ্কার ক্রমশই ভাবিয়ে তুলছে প্রযুক্তির এক একটি নতুন রূপের প্রকাশে। প্রথম প্রকাশিত হচ্ছে ফেসবুকের স্মার্টগ্লাস। যেটা ব্যবহার করে ব্যবহারকারীরা নিজের দেখা যেকোনো জিনিস সহজেই ফ্রেম-বন্দী করতে পারবেন। 

 

ব্যবহারকারীরা নিজের দৃষ্টি দিয়ে যা দেখেন, সেটা ভিডিও ক্যামেরা দিয়ে ফ্রেম-বন্দী করা আরও সহজ করতে চায় ফেসবুক। তাই এবার চশমা নির্মাতা প্রতিষ্ঠান রে-ব্যানের সঙ্গে জোট বেঁধে নতুন স্মার্টগ্লাস বানিয়েছে সোশাল মিডিয়া জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটি।

 

ফেসবুক ‘রে-ব্যান স্টোরিস’ নামের নতুন স্মার্টগ্লাস উন্মোচন করেছে বৃহস্পতিবার। এর মাধ্যমে স্মার্টগ্লাস প্রযুক্তির বাজারে যোগ দেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর তালিকায় নাম লেখালো ফেসবুক। ছবি ও ছোট ছোট ভিডিও ধারণ করা যাবে ফেসবুকের স্মার্টগ্লাস দিয়ে। ওই ছবি আর ভিডিও সরাসরি হোয়াটসঅ্যাপ, ফেইসবুক এবং ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করতে পারবেন ব্যবহারকারীরা । পাশাপাশি ডিভাইসটির মাধ্যমে গান ও পডকাস্ট শোনা যাবে, ফোনের কল ধরার ফিচারও আছে এতে।

 

ফেইসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ ভবিষ্যতের ভার্চুয়াল এবং অগমেন্টেড রিয়ালিটি প্রযুক্তির উপর জোর দিচ্ছেন, ‘রে-ব্যান স্টোরিস’ উপলক্ষে ফেইসবুকের নির্মিত ভিডিওতে তার পরিষ্কার ইঙ্গিত মিলেছে। রে-ব্যান স্টোরিজ এমন একটি ভবিষ্যতের দিকে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ যেখানে মোবাইল ফোন আর আমাদের জীবনের কেন্দ্রবিন্দু নয় এবং ডিভাইস আর আমাদের পারিপার্শ্বিক জগত, এই দুইয়ের মধ্যে একটি বেছে নিতে হবে না আমাদের।

 

স্মার্টগ্লাস প্রযুক্তি নিয়ে ফেসবুক বেশ জোরেসোরে এগোলেও এই খাতের অতীত ইতিহাস প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য ঠিক আশা জাগানোর মত নয়। এর আগে স্মার্টগ্লাস ডিভাইস নিয়ে বাজারে নেমে ব্যর্থ হয়েছে সিলিকন ভ্যালির একাধিক প্রতিষ্ঠান। ২০১৩ সালে ‘গুগল গ্লাস’ উন্মোচন করে প্রযুক্তি বাজারে আলোড়ন ফেলে দিয়েছিলো গুগল। ডিভাইসটির ভিডিও-রেকর্ডিং ফ্রেম নিয়ে ব্যবহারকারীরা এতোটাই আশাহত ছিলেন যে অনেকেই একে ‘গ্লাসহোলস’ বলে আখ্যা দিয়েছিলেন। ২০১৫ সালে পণ্যটির উৎপাদন বন্ধ করে দেয় গুগল।

 

গুগলের অতীত বিড়ম্বনা থেকে শিক্ষা নিয়ে ফেইসবুক রে-ব্যানের সঙ্গে জোট বেঁধেছে। আর প্রাইভেসি প্রশ্ন এড়াতে স্মার্টগ্লাসগুলোতে যোগ করা হয়েছে ভিডিও রেকর্ডিংয়ের সময় এলইডি লাইট জ্বলে ওঠার ফিচার। প্রাইভেসি প্রশ্নে ফেইসবুক সমালোচনার মুখে পড়ছে অনেকটা নিয়মিতভাবে। তবে রে-ব্যান স্টোরিসের ক্ষেত্রে ক্রেতার অনুমতি ছাড়া তার মিডিয়া অ্যাক্সেস করা হবে না বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ২৯৯ ডলার দামের স্মার্টগ্লাস ব্যবহারের অভিজ্ঞতা বিজ্ঞাপন-মুক্ত হবে বলেও জানিয়েছে ফেইসবুক।

 

স্মার্ট গ্লাস বিভিন্ন সময়ে বাজারে এসেছে। গ্লাসগুলোর বিভিন্ন ক্ষমতা থাকার কারণে তা সাধারণ মানুষের মন দখল করে নিয়েছে। ফেসবুকের  উদ্দেশ্য ব্যবসায়িক ভাবে  সফল হলেই কেবল বিষয়টি টিকে থাকবে নতুবা পরীক্ষণ হিসেবেই এটিকে ধরা হবে ফেসবুকের ইতিহাসে।