বেন্নুকে ধ্বংস করবে চীন!

বেন্নুকে ধ্বংস করবে চীন!
বেন্নুকে ধ্বংস করবে চীন!
পৃথিবীকে ধ্বংসের হাত থেকে বাঁচাতে গ্রহাণুর গতিপথ পরিবর্তন করার জন্য মহাকাশে ২০টির বেশি রকেট পাঠাতে চায় চীনের বিজ্ঞানীরা। তাদের লক্ষ্য হচ্ছে  গ্রহাণুটির গতিপথ পরিবর্তন করা। যেটি ৮৫.৫ মিলিয়ন টন ওজনের একটি পাথর। আর যা পৃথিবীর কক্ষপথের ২১৭৫ থেকে ২১৯৯ এর মধ্যে ৪.৬ মিলিয়ন মাইলের পথ আবর্তন করে। যদিও এটি পৃথিবীতে আঘাত হানার সম্ভাবনা খুবই কম।

পৃথিবী বরাবর কেন্দ্র করে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন এস্ট্রয়েড, উল্কা, ধূমকেতু কিংবা কোন গ্রহাণু প্রবল গতিতে ধেয়ে আসে। অধিকাংশ সময়েই এসকল অবজেক্ট পৃথিবীর খুব কাছ থেকে গেলেও মাঝে মধ্যে কিছু অবজেক্ট পৃথিবীর বুকে আছড়ে পরে।

 

তেমনেই ধারণা করা হচ্ছে বেন্নু নামের একটি গ্রহাণু পৃথিবীর বুকে আঁচড়ে পড়ার সম্ভাবনা আছে।এ ব্যাপারটি নিয়ে শঙ্কায় আছে চিনের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা।

 

পৃথিবীকে ধ্বংসের হাত থেকে বাঁচাতে গ্রহাণুর গতিপথ পরিবর্তন করার জন্য মহাকাশে ২০টির বেশি রকেট পাঠাতে চায় চীনের বিজ্ঞানীরা। তাদের লক্ষ্য হচ্ছে  গ্রহাণুটির গতিপথ পরিবর্তন করা। যেটি ৮৫.৫ মিলিয়ন টন ওজনের একটি পাথর। আর যা পৃথিবীর কক্ষপথের ২১৭৫ থেকে ২১৯৯ এর মধ্যে ৪.৬ মিলিয়ন মাইলের পথ আবর্তন করে। যদিও এটি পৃথিবীতে আঘাত হানার সম্ভাবনা খুবই কম।

 

ধারণা করা হয় পৃথিবীতে আঘাত হানার সময় বেন্নু ১২ হাজার মেগাটন ওজন নিয়ে আঘাত করবে। যা হিরোশিমায় আঘাত হানা বোমার থেকে ৮০ হাজার গুণ বেশি শক্তিশালী। তুলনা করার জন্য লাইভ সাইন্স একটি প্রতিবেদনে বলেছিল মহাকাশ শিলার আঘাতেই পৃথিবী থেকে ডাইনোসর নিশ্চিহ্ন হয়ে যায়।

 

চীনের জাতীয় মহাকাশ বিজ্ঞান কেন্দ্রের বিশেষজ্ঞরা ২৩ মার্চ থেকে গণনা করছেন, ৯৯২ টন ওজনের ৫টি রকেট প্রতিনিয়ত পাথরটিকে চাপ দিয়ে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলে প্রায় ৬ হাজার মাইল দূরে সরিয়ে নেয়া সম্ভব হবে। তাদের এই গণনার বিস্তারিত আইকারাস জার্নালে প্রকাশিত হয়।

 

বেইজিংয়ের জাতীয় মহাকাশ বিজ্ঞান কেন্দ্রের প্রকৌশলী ও গবেষক মিংতাও তার গবেষণাপত্রে লিখেছেন, ‘গ্রহাণুর প্রভাব পৃথিবীর সমস্ত প্রাণীকুলের জন্য একটি বড় হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছ।’ এছাড়াও তিনি আরও বলেন, এই হুমকি থেকে রক্ষা পেতে গ্রহাণুটি সরিয়ে ফেলতে হবে।

 

এই গ্রহাণুটি এম্পায়ার স্টেট বিল্ডিংয়ের মতো লম্বা। যদি এটি কখনো পৃথিবীর সঙ্গে ধাক্কা লাগে তবে পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাবে। খবর লাইভ সাইন্সের।

 

বলা হয়ে থাকে "যদি থাকে নসিবে আপনা আপনি আসিবে"। মহাজাগতিক বস্তু গুলো এমনেই ক্ষমতাশালী এবং এদের নিজের বৃন্ত গতি এতোটাই বেশি যে মানব প্রচেষ্টায় এদের রুখে দেওয়াটা অনেকটাই আকাশ-কুসুম। তবুও মানবজাতি হল প্রাণীকুলের মাঝে অন্যতম। অদূর ভবিষ্যতে কি হবে তা কল্পনা করা কঠিন হলেও, বেন্নু নামের গ্রহাণুটি মানবজাতির জন্য হুমকি।