মেকআপ সরঞ্জাম পরিষ্কার রাখছেন তো? 

মেকআপ সরঞ্জাম পরিষ্কার রাখছেন তো? 
মেকআপ সরঞ্জাম পরিষ্কার রাখছেন তো? 
চুল শোকানোর যন্ত্রও যে পরিষ্কার করতে হয়, তা অনেকেই জানেন না। কিন্তু নোংরা জমে জমে যন্ত্রটির মুখ বন্ধ হয়ে আসে। তাতে যন্ত্রটি খুব তাড়াতাড়ি বেশি মাত্রায় গরম হয়ে যায়। এটি পরিষ্কার করতে প্রথমে একটা সরু কাঠির ডগায় তুলো দিয়ে গ্রিডের মধ্যে থেকে নোংরা বার করে নিন। তারপর ভিজে কাপড় দিয়ে মুছে নিন।

নিয়মিত সুষম খাবার,  পর্যাপ্ত পানি, ঘুম, শরীরচর্চা সবই চলছে তারপরও মুখে ব্রণ রেশ এসব সমস্যা সারছেই না? কিন্তু ভেবে দেখেছেন কি এজন্য ঠিক কি দায়ী হতে পারে? আপনার মেকআপ করা ব্রাশ বা অন্যান্য সরঞ্জাম নয়তো? হতে ও পারে দীর্ঘদিন মেকআপ সরঞ্জাম পরিষ্কার করা হয়নি।  তাই এমন ত্বকের সমস্যা লেগেই আছে।  আর তাই এসব সরঞ্জাম পরিষ্কার করুন নিয়ম করে। আসুন জেনে নি কিভাবে করবেন? 

 

 

ব্লো ড্রায়ার 

চুল শোকানোর যন্ত্রও যে পরিষ্কার করতে হয়, তা অনেকেই জানেন না। কিন্তু নোংরা জমে জমে যন্ত্রটির মুখ বন্ধ হয়ে আসে। তাতে যন্ত্রটি খুব তাড়াতাড়ি বেশি মাত্রায় গরম হয়ে যায়। এটি পরিষ্কার করতে প্রথমে একটা সরু কাঠির ডগায় তুলো দিয়ে গ্রিডের মধ্যে থেকে নোংরা বার করে নিন। তারপর ভিজে কাপড় দিয়ে মুছে নিন। 

 

মেকআপ ব্রাশ 

মেকআপ ব্রাশ  সবথেকে বেশি পরিষ্কার রাখা জরুরি।  কেননা নিয়মিত  মেকআপ করার কারণে বিভিন্ন প্রসাধনী লেগে থেকে এগুলোতে ব্যাকটেরিয়া জন্মে।  যা থেকে মুখে নানান সমস্যা দেখা দেয়।  তাই ঘন ঘন পরিষ্কার করা প্রয়োজন। ফাউন্ডেশন ব্রাশ প্রত্যেকবার ব্যবহার করার পর ধুয়ে ফেলুন। চোখও প্রচণ্ড স্পর্শকাতর। তাই লাইনার ব্রাশও ধুতে হবে নিয়মিত। গ্লিটার মেকআপ ব্যবহার করলে সাবান জলে ব্রাশ বা ব্লেন্ডার ভিজিয়ে রাখুন। 

ব্রাশ পরিষ্কার করার স্প্রে পাওয়া যায়। সেগুলো দিয়ে পরিষ্কার করতে পারেন। তবে খুব সাবধানে পরিষ্কার করলে ব্রাশের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকেনা৷  ব্লো ড্রাই না করে  এমনি হাওয়ায় শুকিয়ে নিন। 

 

চিরুনি 

চিরুনি কয়েক দিন পরপরই  পরিষ্কার করা প্রয়োজন। এক্ষেত্রে গরম পানিতে আধ ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে টুথব্রাশ দিয়ে ময়লা ছাড়িয়ে নিন।