সপ্তাহে কতদিন শ্যাম্পু করবেন? 

সপ্তাহে কতদিন শ্যাম্পু করবেন? 
সপ্তাহে কতদিন শ্যাম্পু করবেন? 
যাদের খুব সরু পাতলা চুল তারা একদিন পরপর শ্যাম্পু করুন। এতে চুলের স্বাস্থ্য ভালো থাকবে।

কাল একটা প্রোগ্রাম আছে আজকে তাহলে শ্যাম্পু করে নিই। দুদিন না যেতেই চুল তেল চিটচিটে হয়ে গেছে, রুক্ষ লাগছে, তাহলে শ্যাম্পু করে নি। আবার ময়লা হয়েছে বলে মনে হচ্ছে না তাহলে অনেকদিন পরে শ্যাম্পু করার দরকার নেই। এমন অনেকেই করে থাকেন। কিন্তু জানেন কি একেক চুলের জন্য শ্যাম্পুর করার প্রয়োজনীয়তা একেক রকম।  আসুন তবে জেনে নি কেমন চুলে ঠিক কতদিন পর শ্যাম্পু করা প্রয়োজন। 

 

চুলের ময়লা পরিষ্কার করতে আমরা শ্যাম্পু করে থাকি। চুলের গোড়ায় মাথার তালুতে তেল জন্মালে, তাতে নোংরা ময়লা জমে মাথার তালুর কোষগুলো আটকে যায়। ফলে চুল বাড়তে পারে না। এতে চুল পড়া বেড়ে যায়। এক্ষেত্রে যারা নিয়মিত শরীর চর্চা করেন বা অতিরিক্ত কাজের ফলে খুব ঘাম হয় তাদের প্রত্যেকদিনই শ্যাম্পু করা উচিত। অবশ্য এর পাশাপাশি রোজ আধ ঘণ্টার জন্য মাথায় তেল মালিশ করতে পারেন।  

 

যাদের খুব সরু পাতলা চুল তারা একদিন পরপর শ্যাম্পু করুন। এতে চুলের স্বাস্থ্য ভালো থাকবে। তেল ব্যবহার করলে তা অনেকক্ষণ  রেখে দেবেন না। গোসলের আধ ঘণ্টা আগে তেল দেবেন। খুব ঘন চুল হলে সপ্তাহে একদিন বা ২ দিন শ্যাম্পু করলেই যথেষ্ট। যদি মনে হয়, চুল বা মাথার তালু খুব বেশি নোংরা, তবেই শ্যাম্পু করুন। 


চুল শুষ্ক বা রুক্ষ হলে ৫ থেকে ৭ দিন অন্তর চুলে শ্যাম্পু করতে পারেন। যদি দেখেন বেশি রুক্ষ হয়ে যাচ্ছে এতে তাহলে চুলে তেল মালিশ করুন। নারকেল তেলের সঙ্গে রসুন গরম করে সেই তেল মাখতে পারেন। অথবা অ্যালোভেরা চুলে মাখতে পারেন। এতে আপনার চুলে ফিরবে প্রাকৃতিক পুষ্টি। বেশি রাসায়নিক শ্যাম্পু ব্যবহার করা একেবারেই উচিত নয়। 

 

কোঁকড়া চুলে একেবারেই বেশি শ্যাম্পু করা উচিত নয়। ৪ থেকে ৫ দিন অন্তর করতে পারেন।