ঘরের বাতাস বিশুদ্ধ করতে করণীয়

ঘরের বাতাস বিশুদ্ধ করতে করণীয়
ঘরের বাতাস বিশুদ্ধ করতে করণীয়
সম্প্রতি একটি গবেষণায় দেখা যায়, ঢাকার শহরের বাড়িগুলোতে ঘরের ভেতরে ও বাইরের বায়ু প্রায় সমানভাবে দূষিত। যার ফলে মানুষ ভুগে নানা সমস্যায়। তবে একটু সচেতন হলেই এসব থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। সম্ভব ঘরের বাতাসকে বিশুদ্ধ করে তোলা। 

করোনা ভয়াল থাবায় থমকে গেছে গোটাবিশ্ব। করোনার সময়ে দেশে চলছে লকডাউন। চলমান এই লকডাউনে অধিকাংশ সময় কাটাতে হচ্ছে ঘরেই।তাই ঘরের বাতাস হওয়া প্রয়োজন বিশুদ্ধ। কারণ দূষিত বাতাস শরীরের জন্য ক্ষতিকারক। আর এই দূষিত বাতাসই বেশিরভাগ বায়ুবাহিত রোগের কারণ। 


সম্প্রতি একটি গবেষণায় দেখা যায়, ঢাকার শহরের বাড়িগুলোতে ঘরের ভেতরে ও বাইরের বায়ু প্রায় সমানভাবে দূষিত। যার ফলে মানুষ ভুগে নানা সমস্যায়। তবে একটু সচেতন হলেই এসব থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। সম্ভব ঘরের বাতাসকে বিশুদ্ধ করে তোলা। 


দীর্ঘসময় ঘর বন্ধ অবস্থায় থাকলে বাতাস চলাচলে অসুবিধা হয়। তাই ঘরের দরজা - জানালা খোলা রাখার চেষ্টা করুন। এছাড়াও ঘরে ভ্যান্টিলেটরের ব্যবস্থা রাখুন যাতে ঘরে বাতাস চলাচল করতে পারে।


অনেকসময় ঘরে একধরনের ভ্যাপসা গন্ধ হয়। যা খুব অস্বস্তিকর। তাই ঘরের এই ভ্যাপসা ভাব দূর করতে বিভিন্ন গাছ লাগাতে পারেন।যেমন - পিস লিলি, লেডি পাম, গোল্ডেন পোথোস, বাটারফ্লাই পাম, গোল্ডেন পাম, ব্যাম্বো পাম ইত্যাদি। এগুলো ঘরের বাতাসকে বিশুদ্ধ রাখার পাশাপাশি ভ্যাপসা গন্ধ দূর করবে। 


ঘরের বাতাস জীবাণুমুক্ত করতে  এয়ার পিউরিফায়ার লাগাতে পারেন। এছাড়াও ঘরের বাতাস সুগন্ধযুক্ত রাখতে চাইলে বিসওয়াক্স ক্যানডেল ব্যবহার করা যায়। নিজেদের কিছু ছোট কাজ- ই ঘরের বাতাসকে অনেক বিশুদ্ধ করে দিতে পারে৷ তাই ঘরের বাতাস বিশুদ্ধ রাখতে এসব ব্যাপারে খেয়াল রাখুন।