উৎসবের আমেজে সাজুক ঘর

উৎসবের আমেজে সাজুক ঘর
উৎসবের আমেজে সাজুক ঘর
অন্দরের আলোকসজ্জা সৌন্দর্য হাজারগুণ বাড়িয়ে দেয়। আলোকসজ্জার ফলে ঘরের সবকিছুই রঙ্গিন মনে হয়। তাই প্রবেশ পথে কম উজ্জ্বলতার এবং হালকা রঙের বাতি ব্যবহার করতে পারেন। আর ড্রয়িং রুমে উজ্জ্বল আলো ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া ঘরের এক কোণে ল্যাম্পশেড ব্যবহার করতে পারেন।

চলছে পবিত্র মাস মাহে রমজান। আগামীকাল ইসলাম ধর্মের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। আর তাই ঈদকে সামনে রেখে এখন থেকেই শুরু হয়ে গেছে সকল প্রস্তুতি। ঈদে কোন কিছুই যেন কমতি না থাকে তাই এখন থেকেই সবাই শুরু করে দিয়েছে ঈদের শপিং ও রূপচর্চা। ঈদকে কেন্দ্র করে সবাই যে যার মতো পার করছে ব্যস্ত সময়। তেমনিভাবে বাড়ির গৃহিণীও ব্যস্ত সময় পার করে ঘরের সাজ সজ্জা নিয়ে। ঈদ বলে কথা তাই সবাই চায় নিজের ঘরকে একটু বিশেষভাবে সাজাতে। সারা বছর খুব একটা অতিথির আগমন না ঘটলেও বছরের অন্যতম সেরা এই দিনে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে বাড়িতে আগমন ঘটে অনেক অতিথির। আর তাই নিজের অন্দর সজ্জায় চাই বিশেষ কিছু। আর তাই উৎসবের আমেজে ঘর কিভাবে সাজাবেন চলুন দেখে নেই-

 

 

দেয়াল সজ্জা

ঘর সাজানোয় আমরা সর্বদা আসবাবপত্রের দিকে বেশি মনোযোগ দেই। আর তাই সেইদিক থেকে ঘরের দেয়াল অনেকটা অবহেলিত। তবে, ঘরের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে দেয়াল রাখতে পারে অপরিসীম ভূমিকা। দেয়ালে বিভিন্ন ধরনের পেইন্টিং এবং ওয়াল হ্যাঙ্গিং এর মাধ্যমে আপনার  ঘরটিকে দিতে পারেন নান্দনিকতার ছোঁয়া। এছাড়াও বর্তমান অনেক সুন্দর সু্ন্দর ওয়াল স্টিকার পাওয়া যায়। ড্রয়িং, ডাইনিং,বেডরুমের জন্য বিভিন্ন  ডিজাইনের স্টিকার আছে যেগুলো দেয়ালে লাগালে ঘরের সৌন্দর্য বহুগুণ বৃদ্ধি পাবে।


আলোকসজ্জা

অন্দরের আলোকসজ্জা সৌন্দর্য হাজারগুণ বাড়িয়ে দেয়। আলোকসজ্জার ফলে ঘরের সবকিছুই রঙ্গিন মনে হয়। তাই প্রবেশ পথে কম উজ্জ্বলতার এবং হালকা রঙের বাতি ব্যবহার করতে পারেন। আর ড্রয়িং রুমে উজ্জ্বল আলো ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া ঘরের এক কোণে ল্যাম্পশেড ব্যবহার করতে পারেন।

 

বিছানার চাদর

বেডরুমে প্রবেশ করলেই সর্বপ্রথমেই যে জিনিসটা নজর কাড়ে তা হল বিছানার চাদর। আর তাই বিছানার চাদরটি হওয়া চাই ঘরের আসবাব, বিছানা সবকিছুর সাথে মানানসই এবং রুচিসম্মত। তাহলে যখন কেউ ঘরে প্রবেশ করবে তখন তার মনে সুন্দর এক অনুভূতির সৃষ্টি হবে। হালকা রঙ চোখে এক ধরনের প্রশান্তি দেয়। তবে চাদরে ভিন্নতা আনতে চাইলে পছন্দমত কালার এবং ডিজাইন দিয়ে চাদরে ব্লক বা হাতের কাজের ছোঁয়া দিতে পারেন।

 

পর্দা

ঘর সাজানের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি পর্দা। পর্দা শুধু যে আপনার ঘরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করবে তা নয় বরং সাথে আপনার ঘরের গোপনীয়তাও রক্ষা করে। ঘরের পর্দা বাছাইয়ে দিতে হবে বাড়তি নজর।  নতুন পর্দা ঘরকে যেন নতুনভাবে উপস্থাপন করে। আর তাই ঈদের আগেই আপনার ঘরের জন্য বিছানার চাদর এবং দেয়ালের সাথে মিলিয়ে পর্দা কিনে ফেলতে পারেন।

 

উইন্ড চাইম

ঘরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি কিংবা মিষ্টি টুং টাং শব্দ শোনার জন্য  উইন্ড চাইম অতুলনীয়। উইন্ড চাইমের মিষ্টি  টুং টাং শব্দ ভালো লাগে না এমন মানুষ পাওয়া দুষ্কর। তাই বেড রুমে বা বসার ঘরের জানালাতেই ঝুলিয়ে ফেলুন। এতে করে হালকা বাতাসেই টুং টাং শব্দে আপনার ঘরে অসাধারণ এক পরিবেশ সৃষ্টি হবে। এছাড়াও চাইলে ড্রয়িং রুমের প্রবেশ দরজায় লাগাতে পারেন উইন্ড চাইম।

 

সবুজের ছোঁয়া

ইট পাথরের এই শহরে আমরা সবাই কম বেশি একটু সবুজ খুঁজে বেড়ায়। আর তাই অন্দর সজ্জায় দিন একটু সবুজের ছোঁয়া। আধুনিক অন্দর সজ্জায় সবুজে খুঁজে পাওয়া যায় প্রকৃতির ছোঁয়া। ঘরে সবুজের ছোঁয়া দিতে ইনডোর প্ল্যান্ট-এর কোন বিকল্পই নাই। ঘরে রাখা এমন গাছ  ও টবে ছোট ফুলের গাছ লাগাতে পারেন। এর ফলে সবুজের ছোঁয়ায় ঘর পূর্ণতা পাবে।