সাইকেল চালিয়ে হাসপাতালে গিয়ে সন্তান জন্মদান!

সাইকেল চালিয়ে হাসপাতালে গিয়ে সন্তান জন্মদান!
ছবি: সংগৃহীত
এ বিষয়ে তিনি তার ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে লিখেছেন, রোববার ভোর তিনটায় আমাদের পরিবারে নতুন অতিথি এসেছে। বাড়ি থেকে যখন বের হই, বেশ যন্ত্রণা হচ্ছিল। ভাবছিলাম, হাসপাতালে পৌঁছতে পারব কি না। কিন্তু ১০ মিনিট দেরি হলেও পৌঁছে গিয়েছিলাম হাসপাতালে। বাচ্চা এবং আমার দু’জনের শরীরই ভাল রয়েছে।

নারী-জীবনের সবচেয়ে রোমাঞ্চকর একটি সময় সন্তান জন্মদান। এসময়ে নারীদের বেশ কঠিন একটি সময় পার করতে হয়। তবে এবার সন্তান জন্মদান নিয়ে ভিন্ন নজির গড়লেন নিউজিল্যান্ডের এক নারী এমপি। গর্ভাবস্থায় সাইকেল চালিয়ে হাসপাতালে গিয়ে সন্তানের জন্ম দিলেন তিনি। 


নিউজিল্যান্ডের সময় অনুযায়ী রোববার (২৮ নভেম্বর) ভোর তিনটার সময় সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এই নারী। জন্ম দেয়ার আগে বাড়ি থেকে হাসপাতালে প্রসবযন্ত্রণা সহ্য করেই সাইকেল চালিয়ে গেছেন। পার্লামেন্টের সদস্য ওই নারীর নাম জুলি অ্যানি জেন্টার। রোববার ভোরে প্রসব উপসর্গ বুঝতে পেরে সাইকেল চালিয়ে নিজেই হাসপাতালে ছুটেন ঐ নারী এমপি। 


সন্তান জন্মের খবর সামাজিকমাধ্যমে শেয়ার করেছেন জুলি নিজেই। ইচ্ছে করে নয়, মধ্যরাতে প্রসব বেদনা উঠলে বাধ্য হয়ে সাইকেল চালিয়ে হাসপাতালে যান তিনি। আর এর ১ ঘণ্টা পরই জন্ম দেন ফুটফুটে কন্যা সন্তানের।


এ বিষয়ে তিনি তার ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে লিখেছেন, রোববার ভোর তিনটায় আমাদের পরিবারে নতুন অতিথি এসেছে। বাড়ি থেকে যখন বের হই, বেশ যন্ত্রণা হচ্ছিল। ভাবছিলাম, হাসপাতালে পৌঁছতে পারব কি না। কিন্তু ১০ মিনিট দেরি হলেও পৌঁছে গিয়েছিলাম হাসপাতালে। বাচ্চা এবং আমার দু’জনের শরীরই ভাল রয়েছে।


জুলি হাসপাতালে যাওয়ার জন্য যে সাইকেলটি ব্যবহার করেছিলেন তা ছিল একটি ইলেকট্রিক সাইকেল। জুলি বলেন, রাত ২টায় যখন হাসপাতালে যাওয়ার জন্য রওনা হয়েছিলেন তিনি, তখনও প্রসব বেদনা অতটা খারাপ ছিল না। কিছুক্ষণের মধ্যেই অবস্থা খারাপ হতে থাকে। তবে অবস্থা খারাপ হওয়ার আগেই পৌঁছে যান তিনি। এবং সুস্থভাবে সন্তান প্রসবও করেন। তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ ঘটনা নিয়ে পোস্ট দেয়ার পরপরই নেটিজেনরা তাকে প্রশংসায় ভরিয়ে দেন।  বিশ্বজুড়ে গণমাধ্যমের শিরোনামেও উঠে আসে তার নাম৷ 


নিউজিল্যান্ডের রাজনৈতিক দল গ্রিন পার্টির সংসদ সদস্য জুলি অ্যানি জেন্টার। পরিবেশ রক্ষায় বরাবরই সাইকেলকে প্রাধান্য দেন তিনি। তিনি বরাবরই বলে আসতেন যে তিনি তার বাইসাইকেলকে অনেক ভালোবাসেন।  এবার এই সাইকেল নিয়েই ব্যতিক্রমী এমন কাণ্ড ঘটালেন তিনি। ৪১ বছর বয়সী মার্কিন বংশোদ্ভূত এই নারী এমন ঘটনা এবারই প্রথম ঘটনানি। ২০১৮ সালে প্রথম সন্তান জন্মদেয়ার সময়ও নিজেই সাইকেল চালিয়ে হাসপাতালে গিয়েছিলেন তিনি।

 

উল্লেখ্য, নিউজিল্যান্ডের নারী রাজনীতিবিদরা মাতৃত্বের ক্ষেত্রে বিশ্বে অনন্য নজির রেখে চলেছেন। ১৯৭০ সালে দায়িত্বে থাকাকালে নিউজিল্যান্ডের এক নারী সংসদ সদস্য সন্তান জন্ম দেন। ১৯৮৩ সালে আরেক নারী সংসদ সদস্য পার্লামেন্টে সন্তানকে স্তন্যপান করিয়ে আলোচনায় এসেছিলেন। নিউজিল্যান্ডের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্নও দায়িত্ব গ্রহণের পর সন্তান জন্ম দিয়েছেন।