নিরাপদে যুক্তরাজ্য পৌঁছালো আফগান কিশোরী খেলোয়াড়রা

নিরাপদে যুক্তরাজ্য পৌঁছালো আফগান কিশোরী খেলোয়াড়রা
ছবি: সংগৃহীত
যুক্তরাজ্যে পৌঁছানো দলে ৩০ জনের বেশি কিশোরী ফুটবলার রয়েছে। তাদের সঙ্গে পরিবারের সদস্যরাও ছিলেন। সব মিলিয়ে ১৩০ জনের মতো আফগানকে দেশটিতে নেওয়া হয়েছে। যুক্তরাজ্যে বসবাসের আগে তাদেরকে ১০ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

আফগানিস্তানের ক্ষমতা তালেবানদের হাতে চলে যাওয়ায় দেশটিতে নারীদের ব্যাপারে আসতে থাকে একের পর এক নিষেধাজ্ঞা। দেশটির নারীদের শিক্ষা ও স্বাধীনতা কেড়ে নেওয়া হয়। নিষিদ্ধ করা হয় নারীদের খেলাধুলা। এমতাবস্থায়  শতশত নারী ক্রীড়াবিদ ও তাদের পরিবার আতঙ্কগ্রস্ত আফগানিস্তান ছেড়ে পালিয়ে যায়।


সেই ধারাবাহিকতায় আফগান কিশোরী খেলোয়াড়রা দেশ ছেড়ে পালিয়ে যায় পাকিস্তান। তারপর সম্প্রতি পাকিস্তান থেকে যুক্তরাজ্যে পৌঁছেছে আফগান ফুটবল দলের কিশোরী খেলোয়াড়েরা। লন্ডনের স্ট্যানস্টেড বিমানবন্দরে অবতরণ করে তাদের বহনকারী একটি বিশেষ উড়োজাহাজ। আফগান ফুটবলারদের হয়ে ওই উড়োজাহাজের ভাড়া মিটিয়েছেন মার্কিন তারকা কিম কার্ডাশিয়ান ও ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের দল লিডস ইউনাইটেড।

 
যুক্তরাজ্যে পৌঁছানো দলে ৩০ জনের বেশি কিশোরী ফুটবলার রয়েছে। তাদের সঙ্গে পরিবারের সদস্যরাও ছিলেন। সব মিলিয়ে ১৩০ জনের মতো আফগানকে দেশটিতে নেওয়া হয়েছে। যুক্তরাজ্যে বসবাসের আগে তাদেরকে ১০ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।


যুক্তরাজ্যে নিরাপদে পৌঁছাতে এই কিশোরীদের পাশে শুধু কিম কার্ডাশিয়ানই দাঁড়াননি। তাদের সহায়তায় হাত বাড়িয়েছে যুক্তরাজ্যের ফুটবল ক্লাব লিডস ইউনাইটেড থেকে শুরু করে মার্কিন একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠানও।


এদিকে শুধু কিশোরী ফুটবলার নয়, আফগানিস্তান তালেবানের নিয়ন্ত্রণে যাওয়ার পর দেশটি ছেড়েছেন অন্য খেলাধুলার সঙ্গে জড়িত নারীরাও। আফগানিস্তানের জাতীয় নারী ফুটবল দলের খেলোয়াড়দের আশ্রয় মিলেছে অস্ট্রেলিয়ায়। আর ইয়ুথ গার্লস দলের খেলোয়াড়েরা অবস্থান করছেন পর্তুগালে।