মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম মুনমুন! 

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম মুনমুন! 
মিশোরী মুনমুন
এবার মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে মোট এক লাখ ২২ হাজার ৮৭৪ জন পরীক্ষার আবেদন করেন। তাদের মধ্যে এক লাখ ১৬ হাজার ৭৯২ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন।

মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষায় সারা বাংলাদেশে প্রথম হয়েছেন পাবনার মিশোরী মুনমুন। তার এ ফলাফল রীতিমতো তাক লাগিয়ে দিয়েছে সকলকে। তার বাবা একজন শ্রমিক, মা গৃহিনী। সকল প্রতিকূলতা পার হয়েও আজ দেশসেরা মুনমুন। 


মুনমুনদের বাড়ি পাবনা শহরের রাধানগর মহল্লার নারায়ণপুরে। তাঁর বাবা মো. আব্দুল কাইয়ুম স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজে শ্রমিকের কাজ করেন। মা মুসলিমা খাতুন গৃহিণী। তিনবোনের মধ্যে সবার ছোটো মুনমুন। মুনমুনের বড় বোন চিকিৎসক। তিনি চুয়াডাঙ্গায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। মেজো বোন পাবনা এডওয়ার্ড কলেজে  বিভাগে স্নাতক (সম্মান) শেষ বর্ষে পড়ছেন।


এর আগেও স্কুল ও কলেজ লাইফেও বেশ সফল ছিল মুনমুন। গোল্ডেন জিপিএ পেয়ে পাবনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও পাবনা এডওয়ার্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন তিনি। তার সাফল্যে বেশ উচ্ছ্বসিত তার পরিবার। 


২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষার ফল রোববার সন্ধ্যায় আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর। পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন ৪৮ হাজার ৯৭৫ জন। পাসের হার ৩৯ দশমিক ৮৬ শতাংশ। পাস করা ৪৮ হাজার ৯৭৫ জনের মধ্যে সরকারি মেডিকেলের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন চার হাজার ৩৫০ জন। এদের মধ্যে ছাত্রী দুই হাজার ৩৪১ জন ও ছাত্র দুই হাজার নয়জন। চলমান শিক্ষাবর্ষ থেকে নির্বাচিত হয়েছেন তিন হাজার ৯৩৭ জন। আগের শিক্ষাবর্ষ থেকে নির্বাচিত হয়েছেন ৪১৩ জন।


এবার মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে মোট এক লাখ ২২ হাজার ৮৭৪ জন পরীক্ষার আবেদন করেন। তাদের মধ্যে এক লাখ ১৬ হাজার ৭৯২ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। এই শিক্ষার্থীদের মধ্যেই এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় মেধা তালিকায় প্রথম হন পাবনার মেয়ে মিশোরী মুনমুন।