তরকারিতে তেল বেশি?

তরকারিতে তেল বেশি?
ছবিঃ সংগৃহীত
সবজির রং ঠিক রাখতে ঢাকনা দিয়ে জ্বাল না দেয়াই ভাল। আর কিছু সবজি আছে যাদের সামান্য সিদ্ধ করে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেললে কিংবা বরফ কুঁচিতে রাখলে রান্নার পরও রং ঠিক থাকে।

রান্নায় অনেক সময় দেখা যায় তেল বেশি হয়ে যায় কিংবা তরকারির পুষ্টিগুণ ঠিক আছে কি না এটা নিয়ে দুশ্চিন্তা থেকে যায়। তাই রান্নার সময় টুকিটাকি কিছু জিনিস মাথায় রাখলেই এসব পরিস্থিতি মোকাবেলা করা যাবে। এসব টুকিটাকি তথ্যগুলো হলো-

 

ভাজিতে তেল বেশী পড়ে গেলে ভাজি কড়াই, প্যানের এক দিকে সরিয়ে কড়াই বা প্যান কাত করে রেখে দিবেন ১৫/২০ মিনিট। তারপর ঐ কাত করা অবস্থাতেই ভাজিগুলো বাটিতে নিয়ে নিবেন। আর ঐ বাড়তি তেল পরে অন্য ভাজিতে ব্যাবহার করতে পারবেন। মাংসের তরকারীতেও যদি তেল বেশী হয়, উপর থেকে চামচ দিয়ে তেল উঠিয়ে পরে ভাজিতে ব্যাবহার করলে ভালো লাগে।

 

রান্নায় এলাচ সম্পূর্ণ গুড়ো করে ব্যবহার করা ভালো। গোটা এলাচ কামড়ে পড়লে খাওয়ার মজাই নষ্ট হয়ে যায়। আবার এলাচ ভালো করে না ফাটালে তো সুগন্ধই হবেনা।

 

সবজির রং ঠিক রাখতে ঢাকনা দিয়ে জ্বাল না দেয়াই ভাল। আর কিছু সবজি আছে যাদের সামান্য সিদ্ধ করে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেললে কিংবা বরফ কুঁচিতে রাখলে রান্নার পরও রং ঠিক থাকে।

 

কিছু ভাজিতে কড়াইতে তেল গরম হলে যা দেবেন তার সাথে সামান্য লবণ দিয়ে দিন, তেলের ছিটকা উঠবে না।

 

ডালের মজা জ্বালে! অর্থাৎ ডাল যত বেশি সময় জ্বালানো হবে সেই ডালের স্বাদ ততই বেড়ে যাবে। 

 

যদি তেলাপিয়া মাছে কোন গন্ধ থাকে তবে তেলাপিয়া মাছ হলুদ ও ভিনিগার বা লেবুর রস মাখিয়ে মিনিট ১৫ রেখে ধুয়ে নিলে গন্ধ থাকেনা।

 

লাল সর্ষে তিতা বা ঝাঁঝ বেশী হয়। হলুদ সর্ষে ব্যাবহার করলে তিতা হয়না। তবে সর্ষে বাটার সময় লবণ আর কাঁচামরিচ এক সাথে বাটলে তিতা হয়না।