গর্ভাবস্থায় যেসব পানীয় থেকে সাবধান

গর্ভাবস্থায় যেসব পানীয় থেকে সাবধান
গর্ভাবস্থায় যেসব পানীয় থেকে সাবধান
বোতলের প্যাকেজিং এর গায়ে লেখা থাকে স্বাস্থ্যকর এবং ডায়েটের জন্যও ভালো। কিন্তু এই ডায়েট পানীয়র মধ্যে অন্যতম প্রধান উপকরণ হল ক্যাফিন, যা গর্ভবতীদের শরীরের জন্য ক্ষতিকর। আবার এর মধ্যে স্ক্রিনও মেশানো হয়। যা গর্ভস্থ শিশুর পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকর।

মহিলাদের জীবনে খুবই বিশেষ একটা মুহূর্ত গর্ভাবস্থা। তবে, এই সময় হবু মা ও তার সন্তানের সুস্থতার জন্য বেশ কিছু বিধি নিষেধও পালন করতে হয় গর্ভবতীদের। বিশেষ করে খাওয়া দাওয়ার ক্ষেত্রে নিয়ম মেনে চলার পরামর্শ দেওয়া হয়। আবার গর্ভবতীদের পছন্দের বেশ কিছু খাবারও খাদ্য তালিকা থেকে বাদ রাখতে হয়।

 

গর্ভাবস্থায় যেসব পানীয় এড়িয়ে চলতে হবে


পাস্তুরাইজড নয় এমন দুধ


গর্ভবতীদের শরীরে ক্যালসিয়ামের প্রয়োজন তুলনামূলক বেশি থাকে। সেই কারণে গর্ভবতী মহিলাদের দুধ পান করতে বলা হয়। কিন্তু খেয়াল রাখতে হবে গর্ভাবস্থায় পাস্তুরাইডজ নয় এমন দুধ পান করা মোটেও উচিত নয়। কারণ ননপাস্তুরাইজড দুধে নানা ধরনের ব্যাকটেরিয়া থাকতে পারে যা গর্ভস্থ সন্তানের পক্ষে ক্ষতিকর।

 

ফলের রস


ব্রেকফাস্টে ফলের রস খাওয়া অনেকেরই অভ্যাস। কিন্তু গর্ভাবস্থায় বাজার থেকে বোতল জাত ফলের রস না কিনে ঘরে টাটকা ফলের রস বানিয়ে খাওয়াই ভালো।

 

হুইটগ্রাস জুস


হুইটগ্রাস জুসের নানা উপকারিতা আছে। কিন্তু খেয়াল রাখতে হবে এর মধ্যে নানা ধরনের জীবাণু থাকে, যা গর্ভাবস্থায় মারাত্মক ক্ষতিকর হতে পারে। হুইটগ্রাস জুস কাঁচা হুইটগ্রাস থেকে প্রস্তুত হয় বলে এর মধ্যে ক্ষতিকর জীবাণুগুলো থেকেই যায়।


 
ডায়েট সোডা


বোতলের প্যাকেজিং এর গায়ে লেখা থাকে স্বাস্থ্যকর এবং ডায়েটের জন্যও ভালো। কিন্তু এই ডায়েট পানীয়র মধ্যে অন্যতম প্রধান উপকরণ হল ক্যাফিন, যা গর্ভবতীদের শরীরের জন্য ক্ষতিকর। আবার এর মধ্যে স্ক্রিনও মেশানো হয়। যা গর্ভস্থ শিশুর পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকর।

 

কফি


গরম ধোঁয়া ওঠা এক কাপ কফি আমাদের অনেকেরই দিন শুরু অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। কিন্তু গর্ভাবস্থায় ক্যাফিন থেকে পুরোপুরি বিরত থাকা অত্যন্ত জরুরি। বিশেষ করে প্রথম ত্রৈমাসিকে, কারণ এই সময়ের মধ্যেই ক্যাফিন থেকে গর্ভপাত হওয়ার ঝুঁকির সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি থাকে। কফিতে ক্যাফিনের পরিমাণ যে ভালোরকম থাকে তা আমরা জানি। তাই এই সময় কফির থেকে দূরে থাকাই ভালো।

 

আইস টি


গরম কালে যারা কনসিভ করেন, তারা একটু তরতাজা লাগার জন্য ঠাণ্ডা পানীয় খেতে খুবই পছন্দ করেন। কিন্তু আইস টি এই সময় না খাওয়াই ভালো। কারণ এর মধ্যে চা ঘনীভূত হয়ে থাকায় প্রচুর পরিমাণে ক্যাফিন থাকে।

 

সফট ড্রিংক


সফট ড্রিংক বা কার্বোনেটেড পানীয় গর্ভাবস্থায় একদমই না খাওয়া উচিত। কিন্তু জেনে রাখুন এগুলোর মধ্যে ক্যাফিন থাকে। আবার কোনও কোনও সফট ড্রিংকে কুইনাইন নামে এক ধরনের রাসায়নিক থাকে। ক্যাফিন ও কুইনাইন একসঙ্গে মিলে গর্ভবতী মহিলার পক্ষে বিপজ্জ্বনক হয়ে উঠতে পারে।

 

অ্যালকোহল

 


সামান্য পরিমাণ অ্যালকোহলও আপনার গর্ভস্থ সন্তানের পক্ষে মারাত্মক হয়ে উঠতে পারে। তাই গর্ভবতী মহিলাদের মোটেও অ্যালকোহল পান করা উচিত নয়।

 

গ্রিন টি


গ্রিন টি সাধারণভাবে স্বাস্থ্যকর পানীয় হিসেবে মনে করা হয়। কিন্তু গর্ভবতী মহিলাদের গ্রিন টি থেকে দূরে থাকাই ভালো। কারণ এর মধ্যেও ক্যাফিন থাকে। এছাড়া গ্রিন টি ফলিক অ্যাসিড শোষণের ক্ষমতা অনেকটাই কমিয়ে দেয়।