গৃহবন্দী ঈদ রাঙিয়ে তুলুন

গৃহবন্দী ঈদ রাঙিয়ে তুলুন
গৃহবন্দী ঈদ রাঙিয়ে তুলুন
দুপুরে পরিবারের সবাই একসাথে খেতে বসুন। ফেলে আসা কোনো ঈদের সুন্দর সব স্মৃতি নিয়ে আলোচনা করুন। ঘর বন্দী এই ঈদকেও আনন্দময় করে তুলতে ফ্রেমবন্দী করে রাখুন কিছু মুহূর্তকে।  প্রতি ঈদে অজস্র ছবি সব তো বন্ধুদের সাথেই।  এবার ছবি তুলুন মায়ের সাথে। পরিবারের সকলের সাথে। 

সারাদেশে করোনার প্রকোপ পরিস্থিতিকে মৃত্যুর আহাজারিতে রূপান্তরিত করেছে। শত শত মানুষ রোজ আক্রান্ত হচ্ছে,  মৃত্যুর সংখ্যাও বেড়ে চলেছে প্রতিদিন৷ আর এমন পরিস্থিতিতেই এসেছে পবিত্র ঈদুল ফিতর৷ 
সরকারি নির্দেশ স্বাস্থ্য সচেতনতা মানা, জনসমাগম এড়িয়ে চলা। এক কথায়  ঈদ উদযাপন করুন ঘরে। 

 

তাহলে কি ঈদের আনন্দ পরিপূর্ণ হবেনা? প্রতিবারের মতো ঈদে বন্ধুবান্ধবের সাথে বেরোনো হবেনা? আত্মীয় স্বজনদের বাড়ীতে বেড়াতে যাওয়াও বাদই থাকবে? থাকুক না।  প্রতিবছরই তো এ সবকিছু হয়। এবার না হয় জীবন বাঁচানো, নিরাপদে থাকাটাই গুরুত্বপূর্ণ হোক। 

 

বেরোনো হবে না মানেই ঈদ রঙিন হবে না এমনও নয়। ঘরে থেকেই ঈদকে করে তুলুন রঙিন। সময় কাটান পরিবারের সাথে। মায়ের সাথে সকলের জন্য বাহারি খাবার বানানোয় হাত লাগান। ঘরকে সাজিয়ে তুলুন রঙিনভাবে নতুন কোনো ছন্দে। 

 

ঈদের দিনের একটা নির্দিষ্ট সময় রাখুন বন্ধুদের জন্য।  বেরোতে পারবেন না তো কি হয়েছে,  ভিডিও কল করুন, আড্ডা দিন বন্ধুদের সাথে। 

 

দুপুরে পরিবারের সবাই একসাথে খেতে বসুন। ফেলে আসা কোনো ঈদের সুন্দর সব স্মৃতি নিয়ে আলোচনা করুন। ঘর বন্দী এই ঈদকেও আনন্দময় করে তুলতে ফ্রেমবন্দী করে রাখুন কিছু মুহূর্তকে।  প্রতি ঈদে অজস্র ছবি সব তো বন্ধুদের সাথেই।  এবার ছবি তুলুন মায়ের সাথে। পরিবারের সকলের সাথে। 

 

ঘরে থেকেই ঈদ হোক নিরাপদ, হোক রঙিন।