করোনা আক্রান্ত মায়ের সন্তানের যত্ন

করোনা আক্রান্ত মায়ের সন্তানের যত্ন
করোনা আক্রান্ত মায়ের সন্তানের যত্ন
সাধারণত উপসর্গ দেখা দেওয়া ৭-১৪ দিন আগেই ভাইরাস শরীর প্রবেশ করে। তারমানে এ সময়ের মধ্যে সন্তান আক্রান্ত হয়ে যাওয়ার ঝুঁকিতে থাকে।তাই কঠিন হলেও সন্তানকে আলাদা রেখে পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে। 

করোনা সংক্রমণ এখন দ্রুত বাড়ছে।  এই সময়ে কোন মা যদি করোনায় আক্রান্ত হন তখন তার সন্তানেরও করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকে। তাই মায়েরা করোনা আক্রান্ত হলে সন্তানের বিষয়ে অধিক সতর্ক হতে হবে। সেক্ষেত্রে, 

 

প্রথমেই সন্তানকে মায়ের থেকে আলাদা রাখা ব্যবস্থা করতে হবে। সাধারণত উপসর্গ দেখা দেওয়া ৭-১৪ দিন আগেই ভাইরাস শরীর প্রবেশ করে। তারমানে এ সময়ের মধ্যে সন্তান আক্রান্ত হয়ে যাওয়ার ঝুঁকিতে থাকে। 
তাই কঠিন হলেও সন্তানকে আলাদা রেখে পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে। 

 

করোনা আক্রান্ত মায়ের শিশুরও করোনা পরীক্ষা করাতে হবে। এতে আপনি যেমন নিশ্চিত হতে পারবেন, আবার উপসর্গের মাত্রা বেড়ে গেলে সহজে চিকিৎসাও নিতে পারবেন।  

 

করোনা আক্রান্ত হলেও সন্তানকে বুকের দুধ খাওয়াতে হবে। এ বিষয়ে অনেকে চিন্তিত থাকেন যে বুকের দুধ খাওয়ানো ঠিক হবে কিনা। মনে রাখবেন শিশুর জন্য রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে বুকের দুধের জুড়ি নেই।

  
তবে এক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সতর্কতা মেনে চলতে হবে। যেমন: দুধ খাওয়ানোর আগে মাকে ভালো করে হাত মুখ সাবান দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে।  মাস্ক পরতে হবে। দুধ খাওয়ানো শেষে শিশুকে আলাদা করে ফেলতে হবে এবং শিশুর হাত ও মুখ ভালো করে ধুয়ে দিতে হবে। 

 

শিশুকে সর্বক্ষণ পর্যবেক্ষণে রাখুন।  তার জন্য  সুষম খাবার নিশ্চিত করুন।  জিংক, ভিটামিন সি এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ানোয় জোর দিন।  পরিস্থিতি খারাপ হলে দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিন।