খাদ্যগুণ

কালোজিরা দিয়েই সামলাতে পারেন নানা অসুখ

প্রকাশ : ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৮:২১ | অনলাইন সংস্করণ

  রুমান হাফিজ

কালোজিরা দিয়েই সামলাতে পারেন নানা অসুখ


কালোজিরা খুব পরিচিত একটি নাম। ছোট ছোট কালো দানাগুলোর মধ্যে সৃষ্টিকর্তা যে কী বিশাল ক্ষমতা নিহিত রেখেছেন তা সত্যি বিস্ময়কর। প্রাচীনকাল থেকে কালোজিরা মানবদেহের নানা রোগের প্রতিষেধক এবং প্রতিরোধক হিসেবে ব্যবহার হয়ে আসছে।  


কালোজিরায় যা আছে-
কালোজিরার মধ্যে রয়েছে ফসফেট, লৌহ, ফসফরাস, কার্বো-হাইড্রেট ছাড়াও জীবাণুনাশক বিভিন্ন উপাদানসমূহ। কালোজিরায় রয়েছে ক্যান্সার প্রতিরোধক কেরোটিন ও শক্তিশালী হর্মোন, প্রস্রাবসংক্রান্ত বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধকারী উপাদান, পাচক এনজাইম ও অ€øনাশক উপাদান এবং অ€øরোগের প্রতিষেধক। 


যেসব অসুখ র?খবে কালোজিরা 
চুলপড়া রোধে : চুল পড়া রোধেও কালোজিরার তেল উপকারী। এক চামচ নারিকেল তেলের সঙ্গে সমপরিমাণ কালোজিরার তেল মিশিয়ে গরম করে নিন। মাথার ত্বকে এই তেল উষ্ণ অবস্থায় মালিশ করুন। টানা এক সপ্তাহ এমনভাবে মাখলে চুল পড়ার সমস্যা মিটবে অনেকটাই।
বাড়তি মেদ কমাতে : গ্রিন টি-র সঙ্গে মিশিয়ে নিন কালো জিরের গুঁড়ো। মেটাবলিজম বাড়িয়ে শরীরের মেদ ঝরাতে বিশেষভাবে কাজে আসবে এই কৌশল।


সর্দি-কাশিতে : একটি পরিষ্কার কাপড়ে কালোজিরা জড়িয়ে তা নাকের কাছে নিয়ে গিয়ে বড়ো করে শ্বাস টানুন কিছুক্ষণ। এর ঝাঁজ বুকে জমে থাকা শ্লেষ্মাকে টেনে বার করতে সাহায্য করে। একইসাথে, নাকবন্ধের সমস্যাতেও ঘরোয়া এই উপায়ের জুড়ি মেলা ভার। বৃষ্টি ভেজার ফলে সর্দি-কাশি থেকে বুকে চাপ লাগলে কলোজিরার তেল গরম করে বুকে ও পিঠে মালিশ করে চাদর গায়ে থাকুন কিছুক্ষণ। বারকয়েক করলেই কষ্ট কমবে। কাশির প্রকোপ থেকেও রক্ষা পাবেন অনেকটাই।


শ্বাসকষ্টের সমস্যায় : হঠাৎ শ্বাসকষ্টের সমস্যা শুরু হলে কালোজিরা কাপড়ে জড়িয়ে রাখুন। এবার নাকের কাছে নিয়ে গন্ধ শুঁকুন। শ্বাসকষ্টের কষ্ট থেকে সাময়িক মুক্তি দিতে পারে এই ঘরোয়া উপায়। 


মাথাব্যথায়  : শুধু কালোজিরাই নয়, এর তেলও শারীরিক নানাসমস্যা সমাধানে কাজে আসে। ক্রনিক মাথা যন্ত্রণা মাইগ্রেনের সমস্যা থাকলে কালো জিরের তেল কপালে মালিশ করলে আরাম পাওয়া যায়।


উচ্চরক্তচাপে : সপ্তাহে একদিন কালোজিরার ভর্তা রাখুন ডায়েটে। এর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণে রাখে। রক্তচাপের ওষুধের সঙ্গে এই পথ্য বিশেষ কার্যকর।


রক্তস্বল্পতায় : কালোজিরায় ফসফেট, ফসফরাস ও লৌহের উপস্থিতি অধিক পরিমাণে থাকায় রক্তস্বল্পতার রোগীরাও এ থেকে উপকার পেয়ে থাকেন। 


জীবাণুর সংক্রমণে : কালোজিরাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ফসফরাস। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়াতে সাহায্য করে ফসফরাস। তাই জীবাণুর সংক্রমণ ঠেকাতে একে অবহেলা করলে চলবে না।