শরীরে ফলিক অ্যাসিডের অভাব যেভাবে বুঝবেন

শরীরে ফলিক অ্যাসিডের অভাব যেভাবে বুঝবেন
ছবিঃ সংগৃহীত
গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন ভিটামিনের মধ্যে একটি হচ্ছে ফলিক অ্যাসিড বা ভিটামিন বি-৯ অথবা ফোলেট। ফলিক অ্যাসিড হচ্ছে ভিটামিন বি-৯ এর দ্রবণীয় রূপ। এটি মানবদেহে প্রাকৃতিকভাবেই সৃষ্টি হয়ে থাকে ভিটামিন বি-১২ এর মতোই।

আমাদের শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ ভালোভাবে কাজ করার জন্য ভিটামিন ও বিভিন্ন খনিজের ভূমিকা অপরিসীম। এসব ভিটামিন ও খনিজের অভাবে নানা রকম সমস্যা দেখা দিতে পারে।


গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন ভিটামিনের মধ্যে একটি হচ্ছে ফলিক অ্যাসিড বা ভিটামিন বি-৯ অথবা ফোলেট। ফলিক অ্যাসিড হচ্ছে ভিটামিন বি-৯ এর দ্রবণীয় রূপ। এটি মানবদেহে প্রাকৃতিকভাবেই সৃষ্টি হয়ে থাকে ভিটামিন বি-১২ এর মতোই।


ফলিক অ্যাসিড শরীরের অনেক গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রমের জন্য সহায়ক ভূমিকা পালন করে। এটি ডিএনএ গঠন বা সিন্থেসাইজেশন, কোষ বিভাজন এবং ডিএনএ মেরামত করতে সাহায্য করে। আর ক্রমাগত কোষ বিভাজনে এবং কোষের বৃদ্ধিতে বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ এটি। এ ছাড়া ফলিক অ্যাসিডের অভাবে অ্যানিমিয়া রোগ হতে পারে।


ফলিক অ্যাসিডের অভাব হলে তা বিভিন্ন খাবারের মাধ্যমেই পূরণ করতে হয়। তাই শরীরে ফলিক অ্যাসিডের ঘাটতি মেটাতে এটি সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার বিকল্প নেই।


ক্লান্তিভাব


শরীরে ফোলেটের অভাব হলে ক্লান্তিভাব বেড়ে যেতে পারে। তাই নিয়মিতভাবে যদি ক্লান্ত বোধ করেন, তা হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।


চুল ধূসর হয়ে যাওয়া


ফোলেটের অভাবের কারণে অনেক সময় চুল ধূসর হয়ে যেতে পারে।


মুখে ঘা


অনেক সময় আমাদের মুখে ঘা হয়ে থাকে। আর এটি হতে পারে শরীরে ফলিক অ্যাসিডের অভাবের কারণেও।


জিহ্বা ফুলে যাওয়া


শরীরে ফোলেট কমে গেলে জিহ্বা ফুলে যাওয়ার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে।


চামড়া ফ্যাকাসে হয়


চামড়ার রঙ্গে পরিবর্তন হয়ে তা ফ্যাকাসে দেখাতে পারে ফলিক অ্যাসিডের অভাবের কারণে।


শরীরের বৃদ্ধিতে সমস্যা


ফলিক অ্যাসিডের অভাবের কারণে অনেক সময় শরীরের বৃদ্ধি ধীর হয়ে যেতে পারে।


এ ছাড়া ফলিক অ্যাসিডের অভাবের কারণে অ্যানিমিয়া রোগ হয়ে থাকে। তাই রক্ত স্বল্পতার বিভিন্ন লক্ষণও দেখা দিতে পারে শরীরে ফলিক অ্যাসিড কমে গেলে। যেমন অনেক বেশি দুর্বলতা, অলসতা, নিঃশ্বাসে দুর্বলতা চামড়া ফ্যাকাসে ইত্যাদি।