মানসিক চাপ মােকাবিলা  সুত্র!

মানসিক চাপ মােকাবিলা  সুত্র!
মানসিক চাপ মােকাবিলা  সুত্র!
আবেগ নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে চাপকে জয় করে এ ধরনের ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। সাফল্য অর্জনের অন্যতম উপায় হচ্ছে আবেগ নিয়ন্ত্রণে রাখা আর চাপের কাছে নতি স্বীকার না করা। 

মানসিক চাপ জীবনের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। জীবনের আঁকে বাঁকে মানসিক চাপ থাকবেই। তবে লক্ষ্য হবে মানসিক চাপ কমিয়ে বা চাপমুক্ত হয়ে জীবন চলার পথে এগিয়ে যাওয়া। মানুষের জীবনে এমন অনেক ঘটনা ঘটে যার ফলশ্রুতিতে মানসিক চাপ তৈরি হয় । দুঃখ দুর্দশা, ক্লান্তি, দুশ্চিন্তা, অতিরিক্ত কাজের ভার, শােক, যন্ত্রণা, বিপর্যয় এগুগলোর ভার একা এবং দীর্ঘ সময় বহন করতে হলে মানসিক চাপ সৃষ্টি হয়।


মানসিক চাপ একটি মনােদৈহিক অবস্থা যা আমাদের শরীর ও মনের স্বাভাবিক ভারসাম্য নষ্ট করে। কোনাে কারণে দুশ্চিন্তা , মনােকষ্ট , উদ্বেগ দীর্ঘ সময় ধরে চললে মনের উপর চাপ সৃষ্টি হয় যা মানুষকে স্বাভাবিক জীবনযাপনে ব্যাঘাত ঘটায়। মানুষ বিচলিত হয় এবং এক পর্যায়ে ভেঙ্গে পড়ে ও ভুল পথে পা বাড়ায়। তাই চাপকে প্রশ্রয় না দিয়ে চাপ মােকাবিলা করে সামনে এগােতে হবে । মানসিক চাপের কারণ অনুসন্ধান করে সে অনুযায়ী কার্যকর ব্যবস্থা নিয়ে চাপকে জয় করাই চাপ মােকাবিলা।


সঠিকভাবে কর্ম সম্পাদনের জন্য চাপ মােকাবিলা করা প্রয়ােজন। জীবনের সকল ক্ষেত্রে চাপ মােকাবিলা করার যােগ্যতা থাকা একান্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ দক্ষতাগুলাে অর্জন করতে পারলে আমরা অনেক ক্ষেত্রেই চাপ মােকাবিলা করতে পারব। 


মানসিক চাপ সৃষ্টিকারী উপাদান / পরিস্থিতি / ব্যক্তি শনাক্ত করা। শরীর ও মন কীভাবে এ সকল চাপ সৃষ্টিকারী উপাদানের প্রতি সাড়া দেয় , তা শনাক্ত করা।চাপ এর জন্য দায়ী উপাদান হ্রাস করা।


নিজেকে শান্ত রাখা এবং নিজেকে বোঝাতে হবে  কোন অবস্থাই স্থায়ী নয়। মনােবল বজায় রাখা। বন্ধু বা নির্ভরযােগ্য কারাে সাথে আলােচনা করা , পরামর্শ করা , শেয়ার করা ।মনে রাখতে হবে, আনন্দ ভাগ করলে বেড়ে যায়, দুঃখ কষ্ট / চাপ ভাগ করলে কমে যায় ।


চাপ মােকাবিলার মাধ্যমে একজন মানুষ তার নিজের উপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়। এর মাধ্যমে তার মানসিক বিকাশ সাধিত হয়। আবেগপ্রবণ মানুষ চাপের কাছে নতি স্বীকার করে। সে তখন কোন যুক্তি দিয়ে পরিচালিত হয় না। ফলে এ ধরনের মানুষেরা অনেক সময় নিজেদের ক্ষতি করে ফেলে। আবেগ নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে চাপকে জয় করে এ ধরনের ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। সাফল্য অর্জনের অন্যতম উপায় হচ্ছে আবেগ নিয়ন্ত্রণে রাখা আর চাপের কাছে নতি স্বীকার না করা। 


চাপ দূর করতে কি করা প্রয়োজন? এর একটি তালিকা নিজের জন্য সাজান এবং সেই অনুসারে পদক্ষেপ গ্রহণ করুন। এই পদক্ষেপগুলোর চর্চা মানসিক চাপ দূর করতে সাহায্য করবে।


সাউন্ড সাইকোলজি বলতে একটি শব্দ আছে।মানসিক ভাবে যে ব্যক্তি যতটা সফলতার দিক থেকে সে ততটাই শীর্ষে। তাই জীবনকে লক্ষ্যের চূড়ায় দেখতে মানসিক চাপকে নিয়ন্ত্রণে রেখে সুস্থ জীবন অতিবাহিত করুন।