খালি পেটে চা-কফি কতটা স্বাস্থ্যসম্মত?

খালি পেটে চা-কফি কতটা স্বাস্থ্যসম্মত?
ছবি: সংগৃহীত
সকালে খালি পেটে চা-কফি পান করলে দেহে অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে যায়। ফলে গ্যাস-অম্বল, হজমসহ পেটের নানাবিধ সমস্যা বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। বিশেষজ্ঞদের মতে, খালি পেটে চা-কফি পান করার আগে অন্তত এক মগ পানি পান করা উচিত।

সকালে খালি পেটে চা-কফি পান করতে পছন্দ করেন না এমন মানুষ নগণ্য। এর মধ্যে ভিন্ন এক তৃপ্তিও খুঁজে পান অনেকে। এমনকি অধিকাংশ মানুষই কোনো নাস্তা না করে শুধু চা-কফি পান করেই পুরো সকালটা কাটিয়ে দেন। কিন্তু জানেন কি, খালি পেটে চা-কফি পান করা শরীরের জন্য কতটা স্বাস্থ্যসম্মত?


সকালে খালি পেটে চা-কফি পান করলে দেহে অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে যায়। ফলে গ্যাস-অম্বল, হজমসহ পেটের নানাবিধ সমস্যা বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। বিশেষজ্ঞদের মতে, খালি পেটে চা-কফি পান করার আগে অন্তত এক মগ পানি পান করা উচিত। তা না হলে একাধিক রোগের প্রকোপও বৃদ্ধি পায়। চলুন তবে আজ জানবো খালি পেটে চা-কফির পানের ক্ষতিকর দিকগুলো সম্পর্কে -


মেটাবোলিজমের ক্ষতি হয়

 

সকালে চা-কফি পান খাবার হজম ও তা শরীরের কাজে লাগানোর প্রক্রিয়াটাকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। এতে পেটে এসিডিক ও অ্যালকালাইন পদার্থের ভারসাম্য ব্যাহত হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়। 


পানিস্বল্পতা তৈরি করে 

 

চা হলো এক ধরনের ডাইইউরেটিক, যা শরীর থেকে পানি বের করে দেয়। রাতে দীর্ঘ সময় ঘুমের কারণে আমাদের শরীর সকালে পানিস্বল্পতায় ভোগে। এরপর চা-কফি পান করলে পানিস্বল্পতা আরো বেড়ে যায়। তাই চা - কফির পরিবর্তে পানি বা জুস পান করুন। 


দাঁত নষ্ট করে

 

সকালে খালি পেটে মুখে অনেক ব্যাকটেরিয়া থাকে। এসময় চা- কফি পান করলে মুখের ব্যাকটেরিয়াগুলো চায়ের চিনি ভেঙে এসিড তৈরি করে। এতে দাঁতের এনামেল ক্ষয় হতে পারে। এমনকি এর কারণে ব্যাকটেরিয়ার পরিমাণ বেড়ে মাড়ির রোগ জিঞ্জিভাইটিস তৈরি হতে পারে।


ক্যাফেইনের প্রভাব

 

ক্যাফেইনের বৈশিষ্ট্য হলো তা চট করে শরীরে উদ্যম এনে দেয়। কিন্তু খালি পেটে চা পান করলে এই ক্যাফেইনের কারণেই আপনার বমি ভাব, মাথা ঘোরা ও অন্যান্য অস্বস্তি দেখা দেবে। তাই চা-কফি পানের আগে হালকা নাস্তা করার চেষ্টা করুন। 


পেট ফেঁপে যায়

 

দুধ চা পান করলে অনেকের পেট ফেঁপে যায়। খালি পেটে দুধ চা পান করলে এমনটা হতে পারে। এতে পেট ফাঁপার পাশাপাশি গ্যাস ও কোষ্ঠকাঠিন্যেরও আশঙ্কা থাকে।


স্বাস্থ্যকর বিকল্প

 

সকালে খালিপেটে চায়ের বদলে পান করতে পারেন হালকা গরম পানি, লেবুর পানি, মেথি পানি, ডাবের পানি, অ্যালোভেরা জুস বা মধু মেশানো গরম পানি ব্ল্যাক টি, গ্রিন টি খেতে পারলে সবচেয়ে ভাল হয়, তবে অনেকেই আছেন যারা দুধ চিনি ছাড়া চা খেতে পারেন না। তাঁদের বলব দুধ (লো-ফ্যাট দুধ ব্যবহার করতে পারেন) আর চিনির পরিমাণ যতটা সম্ভব কম রাখতে পারলেই ভাল হয়। মধু আর লেবুর রস মিশিয়ে চা খেলেও মন্দ লাগবে না। সকালের নাশতা করার পরই চা পান করুন।