'স্কুইড গেম'কে টপকে নেটফ্লিক্সের শীর্ষে ‘হেলবাউন্ড’

'স্কুইড গেম'কে টপকে নেটফ্লিক্সের শীর্ষে ‘হেলবাউন্ড’
ছবিঃ সংগৃহীত
ডার্ক ফ্যান্টাসি হরর 'হেলবাউন্ড'-এর কাহিনী আবর্তিত হয়েছে ভিন্ন জগতের একদল রাক্ষসকে নিয়ে যারা হুট করে এসেই পাপীদের তাড়া করে এবং তাদেরকে নরকে নিয়ে যায়। সেই পাপীদের আবার মৃত্যুর আগে এক স্বর্গীয় দূতের সাথে সাক্ষাত হয়, যিনি তাদেরকে তাদের মৃত্যুর সময় ও তারিখ আগেভাগেই বলে দিয়ে যান। দৈত্যাকার ও সারা গায়ে চুলে ভর্তি জন্তুগুলো তাদের শিকারদের নরকে পাঠানোর আগে আগুনে পোড়ায় এবং মানুষের মধ্যে ভয়-আতঙ্ক সৃষ্টি করে। 

নেটফ্লিক্সের কোরিয়ান সিরিজ ‘স্কুইড গেম’ দর্শকমহলে সাড়া ফেলেছিল বেশ। ফলাফল হিসেবে স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মটির ইতিহাসে সবচেয়ে বেশিবার দেখা সিরিজই হয়ে গিয়েছিল ‘স্কুইড গেম’। টানা ৪৬ দিন নেটফ্লিক্সের শীর্ষে থাকা 'স্কুইড গেম'কে সরিয়ে রাতারাতি নেটফ্লিক্স সেনসেশন হয়ে দাঁড়িয়েছে দক্ষিণ কোরীয় ফ্যান্টাসি হরর 'হেলবাউন্ড'।


ভৌতিক ঘরানার এ সিরিজ নির্মাণ করেছেন ‘ট্রেন টু বুসান’ খ্যাত ইয়ন সাং-হো। মুক্তির পর এই কয়েক দিনেই এটি ‘স্কুইড গেম’-এর রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। যার ফলে রাতারাতি আলোচনার কেন্দ্রে চলে এসেছে সিরিজটি। গত ১৯ নভেম্বর প্রিমিয়ার হওয়ার পর ২৪ ঘণ্টার মাথায় বিশ্বের ৮০টি দেশে নেটফ্লিক্সের সবচেয়ে বেশি বার দেখা সিরিজের তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে 'হেলবাউন্ড'।


ডার্ক ফ্যান্টাসি হরর 'হেলবাউন্ড'-এর কাহিনী আবর্তিত হয়েছে ভিন্ন জগতের একদল রাক্ষসকে নিয়ে যারা হুট করে এসেই পাপীদের তাড়া করে এবং তাদেরকে নরকে নিয়ে যায়। সেই পাপীদের আবার মৃত্যুর আগে এক স্বর্গীয় দূতের সাথে সাক্ষাত হয়, যিনি তাদেরকে তাদের মৃত্যুর সময় ও তারিখ আগেভাগেই বলে দিয়ে যান। দৈত্যাকার ও সারা গায়ে চুলে ভর্তি জন্তুগুলো তাদের শিকারদের নরকে পাঠানোর আগে আগুনে পোড়ায় এবং মানুষের মধ্যে ভয়-আতঙ্ক সৃষ্টি করে। 


হেলবাউন্ড পরিচালক ইউন সাং-হো জানিয়েছেন, তিনি 'অ্যালাইভ' খ্যাত অভিনেতা ইউ আহ-ইনের কথা মাথায় রেখেই সিরিজের চিত্রনাট্য লিখেছিলেন। সিরিজটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইয়ো আহ-ইন, কিম হুং-জো, পার্ক জেওং-মিন ও ও জিং-আ প্রমুখ। দক্ষিণ কোরিয়ার সিরিজটিতে রয়েছে ৬টি পর্ব।