যাত্রা শুরু হলো আইটি ভিত্তিক ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট 'অপটিমাইজার' এর

অপটিমাইজার
প্রতিষ্ঠানটিতে স্বল্প মূল্য নির্ধারিত কোর্সগুলো অফলাইন ও অনলাইনে করা যাবে। গরীব ও মেধাবীদের জন্য প্রত্যেক ব্যাচে নিদিষ্ট পরিমাণ সিট বরাদ্দ থাকবে। অপ্টিমাইজারে যেসব সেক্টরের কোর্সগুলো পাবেন, সেগুলো হচ্ছে ব্যাসিক কম্পিউটার এবং আইটি ট্রেইনিং, ওয়েব ডিজাইন এবং ইউআই/ইউএক্স ডিজাইন, ডিজিটাল মার্কেটিং, গ্রাফিক্স ডিজাইন, ফ্রিল্যান্সিং/আউটসোর্সিং এবং মার্কেটপ্লেস, সেলস, বিজনেস এবং লাইফ স্কিল।

ডিজিটাল বাংলাদেশ ও যুব সম্প্রদায়ের বেকারত্ব দূরীকরণের লক্ষ্যে মুনতাসির মুনতাসির মাহদী এবং ফারহানা আক্তারের হাত ধরে সিলেট শহরে আইটি ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান এবং ট্রেইনিং ইন্সটিটিউট ‘অপ্টিমাইজার’ এর যাত্রা শুরু হয়েছে গত ১৪ই জানুয়ারী। অপ্টিমাইজার সিলেটের সবচেয়ে উন্নত এবং ক্রিয়েটিভ ট্রেইনিং ইন্সটিটিউট হিসেবে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। ১৪ই জানুয়ারী, বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটায় সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে ‘অনুবীক্ষন’ আয়োজিত আইটি ট্রেইনিং ইন্সটিটিউট এন্ড সার্ভিস প্রোভাইডার ‘অপটিমাইজার’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হয়। প্রতিষ্ঠানটি সিলেটের সবচেয়ে উন্নত ট্রেইনিং ইন্সটিটিউট হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে। অপ্টিমাইজার শুধুমাত্র ট্রেইনিং ইন্সটিটিউটই নয়, আপনার ব্যবসাগুলোকে ডিজিটালাইজড করে দিতেও সক্ষম। অপ্টিমাইজারের সেবাগুলো হচ্ছে ইন্টারনেট মার্কেটিং, যেকোনো ধরণের ডিজাইন, ওয়েব এবং অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট, চ্যাটবোট ডেভেলপমেন্ট, ব্র্যান্ডিং এবং প্রেস রিলিজ সেবা, পিওএস (POS) সেবা, ব্যবসা এবং মার্কেটিং কন্সালটেন্সি, ফেসবুক এবং ওয়েবসাইট চ্যাটবোট ডেভেলপমেন্ট, কাস্টোমাইজড ল্যাপটপ এবং ডেস্কটপ তৈরি করে দেয়া।

প্রতিষ্ঠানটিতে স্বল্প মূল্য নির্ধারিত কোর্সগুলো অফলাইন ও অনলাইনে করা যাবে। গরীব ও মেধাবীদের জন্য প্রত্যেক ব্যাচে নিদিষ্ট পরিমাণ সিট বরাদ্দ থাকবে। অপ্টিমাইজারে যেসব সেক্টরের কোর্সগুলো পাবেন, সেগুলো হচ্ছে ব্যাসিক কম্পিউটার এবং আইটি ট্রেইনিং, ওয়েব ডিজাইন এবং ইউআই/ইউএক্স ডিজাইন, ডিজিটাল মার্কেটিং, গ্রাফিক্স ডিজাইন, ফ্রিল্যান্সিং/আউটসোর্সিং এবং মার্কেটপ্লেস, সেলস, বিজনেস এবং লাইফ স্কিল।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট মদন মোহন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ এবং রোটারি ৩২৮২ জেলার গভর্নর লেফটেন্যান্ট কর্নেল আতাউর রহমান পীর। তিনি বলেন, বেকারত্ব দূরীকরণে আন্তর্জাতিক আইটি সেক্টরের দরজা খোলা রয়েছে। তাই শিক্ষিত বেকারদের স্বপ্ন পূরণ সহজ পথ আইটি সেক্টর। গত ১০ বছরে বর্তমান সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশের ভীত প্রস্তুত করেছে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এ ভীত মজবুত করতে হবে। ডিজিটাল বাংলাদেশ বির্নিমাণের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নে সকলকে সম্মিলিতভাবে এগিয়ে আসতে হবে। আইসিটি খাতের যথাযথ বিকাশ ও উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগাতে হবে। ‘অনুবীক্ষন’ আয়োজিত এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অপটিমাইজার’র প্রতিষ্ঠাতা মুনতাসির মাহদীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ, বিশিষ্ট আইনজীবী মো. রবিউল ইসলাম। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, অপটিমাইজারের প্রতিষ্ঠাতা ফারহানা আক্তার, সঞ্চালনা করেন সাইবান সাহাজ। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ভয়েস অব সিলেট থেকে মইন উদ্দিন মনজু, অনুবীক্ষণ থেকে অনুবীক্ষণের প্রতিষ্ঠাতা বদরুল ইসলাম ও সহ-প্রতিষ্ঠাতা জহুরুল ইসলাম শাহরিয়ার। এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের অন্যতম ডোমেইন-হোস্টিং কোম্পানি গট মাই হোস্টের বোর্ড মেম্বারগন। অনুষ্ঠানে প্রায় শয়ের বেশি শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে অপ্টিমাইজারের প্রতিষ্ঠাতা ফারহানা আক্তার বলেন, অপ্টিমাইজারের অবস্থান সিলেটের একেবারে প্রানকেন্দ্র বন্দরবাজারের সুরমা টাওয়ারের অষ্টমত তলায়। অনুষ্ঠানে অপ্টিমাইজারের প্রতিষ্ঠাতা মুনতাসির মাহদী বলেন, স্বল্প মূল্যে সব গুলো সার্ভিস এবং কোর্স প্রোভাইড করাই অপ্টিমাইজারের মূল লক্ষ্য। সিলেটের তারুণ্যকে কাজে লাগাতে চাই। সিলেটকে বেকারত্বর অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে চাই। অপ্টিমাইজারের অবস্থান সিলেটের একেবারে প্রানকেন্দ্র বন্দরবাজারের সুরমা টাওয়ারের অষ্টম তলায়।