মাঠে কি হয়েছিলো সেদিন এরিকসনের?

মাঠে কি হয়েছিলো সেদিন এরিকসনের?
ছবি: সংগৃহীত
শনিবার ইউরো কাপে ফিনল্যান্ডের বিরুদ্ধে ম্যাচ চলাকালীন মাঠেই সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়েন ডেনমার্কের ফুটবলার এরিকসন। খেলা চলাকালীন হঠাৎই মাঠে লুটিয়ে পড়েন এরিকসন। তাঁকে কেউ ধাক্কা মারেননি। নিজে থেকেই পড়ে যান তিনি।

প্রতি আসরের মতো এবার ও শুরু হয়েছিল ইউরো। মাঠে খেলা গড়িয়ে চলার এক সময় ঘটলো এক অদ্ভুত ঘটনা। লিগটির দ্বিতীয় দিনের খেলায় এই ঘটনার সাক্ষী হলো পুরো দুনিয়া। যা নেটিজেনদের কাছে বিরাট প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে।

 

শুক্রবার ইউরোর ম্যাচে ফিনল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলতে গিয়ে হঠাৎ মাঠে লুটিয়ে পড়েন ডেনমার্কের তারকা ফুটবলার ক্রিশ্চিয়ান এরিকসন। সঙ্গে সঙ্গে তাকে মাঠের মধ্যে চিকিৎসা করিয়ে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। যদিও পরবর্তীতে জানা গিয়েছে এরিকসনের শারীরিক উন্নতি হয়েছে, কিন্তু এরপর প্রশ্ন এসেই যাচ্ছে, আদৌ কি এরিকসন পেশাদার ফুটবল খেলতে পারবেন? এই নিয়ে আশঙ্কার বার্তা দিয়েছেন সেন্ট জর্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্পোর্টস কার্ডিওলজির অধ্যাপক সঞ্জয় শর্মা, যিনি টটেনহ্যাম হটস্পারে এরিকসনের সাথে কাজ করেছেন।

 

বর্তমানে ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের কার্ডিয়াক কনসেন্সাস গ্রুপের এক বিশেষজ্ঞ প্রফেসর শর্মা। তিনি মনে করছেন, ইংল্যান্ডে তিনি কখনই পেশাদার ফুটবল খেলতে পারবেন না, কারণ এই সমস্ত বিষয়ে ব্রিটেন খুবই কড়া ভূমিকা নেয়। পেশাদারি ফুটবলে এরিকসনের আসা নিয়েও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি।এদিকে ব্রিটেনের এনএইচএস এর বিশিষ্ট, কার্ডিওলজিস্ট ডঃ স্কট মারে স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিয়েছেন, ইন্টার মিলানের হয়েও খেলতে পারবেন না এরিকসন, যদি তার কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট ধরা পড়ে।  

 

অবশেষে কিছুটা ইতিবাচক খবর দিল ইউরোপের ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা উয়েফা। জানাল, হাসপাতালে স্থিতিশীল রয়েছেন এরিকসন। চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন তিনি। শ্বাস-প্রশ্বাসও এখন স্বাভাবিক। যে খবর পাওয়ামাত্র সর্বস্তরে স্বস্তি। দুই দলের ফুটবলারদের অনুরোধে শনিবার ইউরো কাপে স্থগিত হয়ে যাওয়া ডেনমার্ক-ফিনল্যান্ড ম্যাচও ফের শুরু করা হয়েছে।

 

উয়েফা জানিয়েছে, দ্রুত সুচিকিৎসার জন্য জীবনরক্ষা হয়েছে এরিকসনের। মাঠে যেভাবে চিকিৎসা করা হয়েছিল, তা অনবদ্য। পাশাপাশি এরিকসনের সতীর্থরা যে সাহসিকতা ও উপস্থিত বুদ্ধির পরিচয় দিয়ে মাউথ টু মাউথ অক্সিজেন দিয়েছেন বা মাঠে চিকিৎসা চলার সময় তাঁকে ঘিরে একটা বলয় রচনা করেছিলেন, তারও প্রশংসা করা হয়েছে উয়েফার তরফে।


শনিবার ইউরো কাপে ফিনল্যান্ডের বিরুদ্ধে ম্যাচ চলাকালীন মাঠেই সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়েন ডেনমার্কের ফুটবলার এরিকসন। খেলা চলাকালীন হঠাৎই মাঠে লুটিয়ে পড়েন এরিকসন। তাঁকে কেউ ধাক্কা মারেননি। নিজে থেকেই পড়ে যান তিনি। সঙ্গে সঙ্গে অবস্থার গুরুত্ব বুঝে খেলা থামিয়ে দেন রেফারি অ্যান্টনি টেলর। সবাই ছুটে যান এরিকসনের দিকে। মাঠেই শুরু হয় প্রাথমিক চিকিৎসা। এরপর এরিকসনকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

 

এরিকসন অসুস্থ হয়ে পড়ার ঠিক আগে বল কর্নার ফ্ল্যাগের কাছে মাঠের বাইরে চলে যায়। থ্রো-ইন থেকে বল রিসিভ করতে ছুটে যান এরিকসন। সেই সময়ই তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। বল তাঁর হাঁটুতে লাগে। এই ঘটনা থেকে কি পেলো এরিকসন বা কি হারালো তা বোঝা দুষ্কর হলেও, সমগ্র ফুটবল প্রেমীদের প্রার্থনায় তিনি ছিলেন। তিনি ফিরে আসুক এই আবেদন ছিল কোটি কোটি ভক্তের মাঝে। নিঃসন্দেহে যা যেকোনো এথলেটের জন্য আশীর্বাদ স্বরূপ।