কমলাকে বহনকারী বিমানের জরুরি অবতরণ

কমলাকে বহনকারী বিমানের জরুরি অবতরণ
কমলাকে বহনকারী বিমানের জরুরি অবতরণ
বিমানে থাকা এক সাংবাদিক বলেন, ‘উড্ডয়নের পর ল্যান্ডিং গিয়ার থেকে অস্বাভাবিক রকমের শব্দ হচ্ছিল। তবে পরে সেটি খুবই নিরাপদে অবতরণ করে।’

দায়িত্ব গ্রহণের পর প্রথমবারের মতো বিদেশ সফরে গিয়েছেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস। ৬ জুন (রবিবার) গুয়েতেমালা সফরে যাওয়ার পথে তাকে বহনকারী বিমানটি জরুরি অবতরণ করতে বাধ্য হয়। উড্ডয়নের পরই যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে উড়োজাহাজটি দ্রুত অবতরণ করে। কমলার বিমানের জরুরি অবতরণ সম্পর্কে খবরটি নিশ্চিত করেছে এনডিটিভি।

 

ওয়াশিংটনে জয়েন্ট বেস অ্যান্ড্রুসে ফিরে আসার পর উড়োজাহাজ থেকে নামেন কমলা। সেখানে তিনি সাংবাদিকদের জানান, ‘আমি ভালো আছি। আমি ভালো আছি।’ খবর এএফপির। 

 

কমলা হ্যারিসের মুখপাত্র সিমন স্যান্ডার্স বলেন, ‘জরুরি অবতরণের পর হ্যারিসের বিমান পরিবর্তন করা হয়। কোন বিলম্ব ছাড়াই স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যায় তিনি নিরাপদে গুয়েতেমালায় পৌঁছান।’ তিনি জানান, এয়ার ফোর্স টু বিমানে করে কমলা হ্যারিসের সঙ্গে তারা গুয়েতেমালার পথে রওয়ানা হন। উড্ডয়নের পরপরই ক্রুরা দেখতে পান ল্যান্ডিং গিয়ার কাজ করছে না। এ কারণে অন্যান্য যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেয়ার আশঙ্কা করছিলেন তারা। এ ছাড়া আর কোন সমস্যা ছিল না। পরে বিমানটি জরুরি অবতরণ করে এবং জয়েন্ট অ্যান্ড্রু বেসে ফিরে আসেন তারা।

 

বিমানে থাকা এক সাংবাদিক বলেন, ‘উড্ডয়নের পর ল্যান্ডিং গিয়ার থেকে অস্বাভাবিক রকমের শব্দ হচ্ছিল। তবে পরে সেটি খুবই নিরাপদে অবতরণ করে।’

 

পরবর্তীতে স্থানীয় সময় গতকাল রোববার সন্ধ্যায় গুয়াতেমালায় নিরাপদে পৌঁছেছেন কমলা হ্যারিস।