বুধবার,২৩ অগাস্ট ২০১৭
হোম / বিজ্ঞান-প্রযুক্তি / নারীদের জন্য অ্যাপস ও ওয়েবসাইটস
০৩/০২/২০১৭

নারীদের জন্য অ্যাপস ও ওয়েবসাইটস

-

একবিংশ শতাব্দীর এই সভ্য বিশ্বে নারী-পুরুষের সাম্যতা নিয়ে সচেতনতা কিংবা উদ্যোগ বাড়লেও এখনো অনেক ক্ষেত্রেই নানা প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হন অসংখ্য নারী। তবে জীবনে চলার পথে নানা ঝক্কি-ঝামেলা যেমন আছে, তা কমানোর কিছু উপায়ও আছে বৈকি। এক্ষেত্রে বর্তমানে প্রযুক্তি বিশ্বে এমন কিছু অ্যাপস এবং ওয়েবসাইট রয়েছে, যা শুধুমাত্র নারীদের কথা চিন্তা করেই বানানো হয়েছে। বলাই বাহুল্য, দৈনন্দিন জীবনের নানা সমস্যা মোকাবেলায় এই অ্যাপস বা ওয়েবসাইটগুলো বিশেষভাবে কাজে লাগবে।

মিন্ট অ্যাপ

কর্মজীবী হোন কিংবা গৃহিণী, পরিবারের মাসিক বাজেট অনুযায়ী খরচ করা কিংবা টাকা-পয়সার হিসেব মেলানোর মতো গুরুদায়িত্ব অধিকাংশ সময়েই বাড়ির নারী সদস্যদের ঘাড়ে এসে পড়ে। তবে এহেন অস্বীকৃত ‘ম্যানেজমেন্ট’ করাটা সহজ কথা নয়। তবে এ ধরনের কাজের চাপ অনেকাংশে কমিয়ে দেবে মিন্ট নামের এই অ্যাপটি। এই অ্যাপটি মূলত একটি পার্সোনাল ফাইন্যান্স এবং বাজেট ম্যানেজিং অ্যাপ। পরিবারের আয়, সঞ্চয় এবং নির্ধারিত বাজেট সম্পর্কে অ্যালার্ট পেতে এই অ্যাপটি হতে পারে নারীর মোক্ষম অস্ত্র।

ফিফটিন মিনিট বিউটি থেরাপি

এটি মূলত একটি ওয়েবসাইট। নাম দেখেই বোঝা যায়, এটি মূলত একটি হেলথ এবং বিউটি কেয়ার ওয়েবসাইট। স্কিন, হেয়ার টিপস থেকে শুরু করে ঝটপট মেকআপ-এর গুরুত্বপূর্ণ টিপস পেতে এই ওয়েবসাইট হতে পারে আপনার সঠিক ঠিকানা। এছাড়া কোন অনুষ্ঠানে কী ধরনের ড্রেস বা গেটআপে যাবেন, তা সম্পর্কে অল্প সময়ের মধ্যে ধারণা পেতে এই ওয়েবসাইটের জুড়ি মেলা ভার।

ম্যানেজিং ভায়োলেন্স এগেইন্সট উইমেন অ্যান্ড চিলড্রেন

নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা বন্ধে ২০১৬ সালের আগস্ট মাসে এই ওয়েব অ্যাপ্লিকেশনটি উন্মোচন করে বাংলাদেশ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। এক্ষেত্রে নির্ধারিত ওয়েব অ্যাড্রেসে এগিয়ে নির্যাতিত নারী অভিযোগ করতে পারবেন। এরপর অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত হলে অভিযুক্তকে দ্রুত বিচারের আওতায় আনা হবে। এক্ষেত্রে অভিযোগকারী নির্দিষ্ট র্ট্যাকিং নম্বর এবং নিরাপত্তা কোডের মাধ্যমে অভিযোগ করবেন বলে তার নাম-পরিচয় অজ্ঞাত থাকবে। নারীর সুরক্ষা ও নিরাপত্তা জোরদারকরণের ক্ষেত্রে এই অ্যাপ্লিকেশনটি কার্যকর ভূমিকা পালন করবে বলে মনে করছেন নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা।

নাইকি ট্রেইনিং ক্লাব

বর্তমান সময়ে অধিকাংশ মানুষই কমবেশি ফিটনেস সচেতন বলা চলে। ফিটনেস ধরে রাখতে সপ্তাহে বেশ কয়েকবার জিমে যাওয়া-আসা করেন, এমন মানুষের সংখ্যাও নেহাত কম নয়। তবে কর্মজীবী হোন বা গৃহিণী, কর্মব্যস্ত একজন নারী নিয়মিত জিমে যাওয়া বা বাইরে কসরত করার সুযোগ তেমন একটা পান না। তাদের জন্য ফিটনেস ধরে রাখতে বিশেষভাবে কার্যকর হতে পারে এই অ্যাপটি। অ্যাপটিতে নারীদের জন্য রয়েছে মোট একশ’ ওয়ার্কআউট এবং গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা। নিজের এনার্জি লেভেলের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে নারী এই অ্যাপ ব্যবহার করে ঘরেই ফিটনেস ধরে রাখার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যায়ামগুলো সেরে নিতে পারবেন।

মায়া আপা

সুবিধাবঞ্চিত নারীদের কাছে স্বাস্থ্য, আইন-কানুন ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পৌঁছে দিতে রয়েছে বিশেষ অ্যাপ্লিকেশন ‘মায়া আপা’। এর পাশাপাশি মায়া ডটকম বিডি নামের ওয়েবসাইট থেকেও স্বাস্থ্যবিষয়ক তথ্যের পাশপাশি সামাজিক ও আইনি পরামর্শ পাবেন বাংলাদেশের নারীরা। এক্ষেত্রে সুবিধাবঞ্চিত বা নির্যাতিত নারী তার নাম পরিচয় গোপন রেখেই প্রশ্ন করতে পারবেন। এরপর ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই বিশেষজ্ঞের পরামর্শ পৌঁছে যাবে তার কাছে।
হালের ব্যস্ত সমাজে নানা কর্মযজ্ঞের মাঝে সহজ ও নির্ভেজালভাবে চলার জন্য এই অ্যাপগুলো যে-কোনো নারীর জন্যই যে গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ, তা নিঃসন্দেহে বলা যায়।

- নাসিফ