বুধবার,২২ নভেম্বর ২০১৭
হোম / খাবার-দাবার / ইয়াম্মি স্ট্রিটফুড
০১/৩১/২০১৭

ইয়াম্মি স্ট্রিটফুড

-

মুখোরোচক জিভে জল আনা খাবারের কথা মনে আসলে প্রথমে স্ট্রিটফুড-এর কথাই বলতে হয়। শুধু চটপটি আর ফুচকাই নয়, আরো কত পদের খাবার যে রয়েছে যা চলার পথে আমাদের ক্ষুধা মেটায়, রসনাতৃপ্তি করে, আর পথচলতি আড্ডায় যোগায় রসদ। সুদূর আমেরিকা থেকে উম্মি সেলিম আলিশবা পাঠিয়েছেন কিছু খাঁটি দেশী স্ট্রিটফুডের রেসিপি।

ছবিঃ উম্মে সালিমা

বিস্কিট চা
উপকরণ: চা পাতা ২ টেবিল চামচ, পানি ১/২ কাপ, চিনি প্রয়োজনমতো, আদা কুচি ১/২ চা চামচ, দারুচিনি ছোট ১টি, এলাচ ৩ টা, দুধ ২ কাপ, মেরি বিস্কুট ৪/৫টি।

প্রস্তুত প্রণালি: প্রথমে একটা বাটিতে মেরি বিস্কিট পানি দিয়ে ৫ মিনিট ভিজিয়ে রাখুন। এবার ছাঁকনি দিয়ে ছেকে নিন। সেই পানিটা দুধের সঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। এবার একটা হাঁড়িতে দুধের মিশ্রণ নিয়ে আদা কুচি, দারুচিনি, এলাচ দিয়ে ফুটিয়ে নিন। একটু ঘন হয়ে এলে চাপাতা দিন। ৩/৪ মিনিট অপেক্ষা করুন। এখন ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে একটা কাপে চা ঢেলে স্বাদমতো চিনি দিয়ে পরিবেশন করুন ভিন্নধর্মী বিস্কিট চা।

ঝালমুড়ি
উপকরণ: ক) মৌরি ১/২ চা চামচ, আস্ত জিরা ১/২ চা চামচ, দারচিনি ১ ইঞ্চি সমান এক টুকরা, এলাচ ৩/৪ টা, লং ৩/৪ টা।
খ) পিঁয়াজ বাটা ১/২ কাপ, আদা ও রসুন বাটা ১ চা চামচ করে,ধনিয়া গুঁড়া ১ চা চামচ, সরিষার তেল ১/২ কাপ, লবণ সামান্য।
গ) টমেটো, শসা ২ টেবিল চামচ করে, কাঁচামরিচ স্বাদমতো, ধনিয়া পাতা ২ টেবিল চা, পিঁয়াজ কুচি ১ টেবিল চামচ, লেবু এক টুকরা, ছোলার ডাল সিদ্ধ ১/৪ কাপ, মুড়ি ও চানাচুর মিলিয়ে ১ কাপ।

প্রস্তুত প্রণালি: ক) এর সব কিছু একটা তাওয়াতে নিয়ে মাঝারি আঁচে ৪/৫ মিনিট ভেজে, পানি ছাড়া বেটে গুঁড়া করে নিতে হবে। এবার একটা হাঁড়িতে সরিষার তেল গরম করে তার সঙ্গে একে একে সব দিয়ে গুঁড়া করা মসলা পুরটাই দিয়ে সব মসলা ভালোভাবে কষিয়ে নিন। কষানোর পরে যখন তেল উপরে ভেসে উঠবে, তখন নামিয়ে ঠান্ডা করে নিতে হবে। এই মসলা ৭ দিন পর্যন্ত ফ্রিজে রেখে সংরক্ষণ করতে পারবেন এবং এটাই হলো ঝাল মুড়ির মসলা। এখন উল্লিখিত সব কিছু মিশিয়ে সঙ্গে স্বাদমতো ঝালমুড়ির মসলা মিশিয়ে সঙ্গে সঙ্গে পরিবেশন করুন মজাদার ঝাল মুড়ি।

ঢাকাই ভেলপুরি
পুরি বানানোর উপকরণ: সুজি ১/২ কাপ, ময়দা ১/২ কাপ, পানি পরিমাণমতো,কালোজিরা ১ চিমটি (ইচ্ছা),লবণ স্বাদ মতো,তেল ভাজার জন্য।

প্রস্তুত প্রণালি: সব কিছু এক সঙ্গে মিশিয়ে একটু একটু করে পানি ঢেলে রুটি বানানোর মতো করে কাই বানাতে হবে। এরপর আধা ইঞ্চি পুরু করে রুটি বানাতে হবে বড় করে। এবার বিস্কিট কাটারের সাহায্যে গোল করে পুরি কেটে নিতে হবে। এবার কাটা চামচের সাহায্যে পুরিগুলো কয়েকটা ছিদ্র করে ফ্যানের নিচে ৩০ মিনিট শুকাতে দিন। ৩০ মিনিট পরে তেল গরম করে সোনালি করে ডুবো তেলে ভেজে নিন পুরিগুলো।

পুর তৈরির উপকরণ: কাবুলি ডাল ১ কাপ (সিদ্ধ করে নিতে হবে), লবণ আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ কুচি ও শুকনা মরিচ টেলে গুঁড়া করা স্বাদমতো, ভাজা জিরা গুঁড়া আধা চা চামচ, বিট লবণ সামান্য, শসা কুচি ১/৪ কাপ, পিঁয়াজ কুচি ৩ টেবিল চামচ, ধনেপাতা কুচি ৩ টেবিল চামচ, তেঁতুল গোলা পানি ১ চা চামচ। ডালের সঙ্গে সব উপাদান মিশিয়ে নিন। এবার পুরির একপাশ থেকে ছুরি দিয়ে কেটে একটু করে পুর সাজিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার ঢাকাইয়া ভেলপুরি।

কলিজার সিঙ্গারা
পুর তৈরি: ১ টি আলু (সিদ্ধ করে নেয়া), গরুর/খাসির কলিজা ১/২ কাপ সিদ্ধ করা, ঙ্গ চা চামচ আদা বাটা, ১ চা চা ধনে ও জিরা গুঁড়ো, ১ চা চামচ হলুদগুঁড়ো, পাঁচফোড়ন আস্ত ১/২ চা চামচ, ঙ্ক কাপ পেঁয়াজ কুচি,২ টেবিল চা তেল, ১/৪ কাপ ধনেপাতা কুচি, কাঁচামরিচ কুচি ও লবণ স্বাদ মতো।
খামির তৈরি: ১ কাপ ময়দা, ২ টেবিল চামচ তেল, ১ চা চামচ কালিজিরা, লবণ,পানি পরিমাণমতো।

প্রস্তুত প্রণালি: প্যানে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে বাদামি করে ভেজে নিন। আদা বাটা ও অন্য গুঁড়ো মসলা দিয়ে অল্প পানি দিয়ে মসলাটা কষিয়ে নিন। এখন কলিজা দিয়ে কিছুক্ষণ ভেজে আলু দিয়ে দিন। ৫ মিনিট দমে রাখুন। কাঁচামরিচ ও ধনেপাতা কুচি দিয়ে নামিয়ে ঠান্ডা করুন।

খামির তৈরির সব উপকরণ পরিমাণমতো পানি দিয়ে মাখিয়ে শক্ত খামির বানিয়ে ১৫ মিনিট ঢেকে রাখুন। এবার রুটি বানানোর পিঁড়িতে ময়দা ছিটিয়ে পাতলা ডিমের আকারের রুটি বানিয়ে নিন। ছুরি দিয়ে রুটির মাঝখানে কেটে নিন। এক ভাগ নিয়ে তার চারপাশে পানি লাগিয়ে পানের খিলির আকারে বানিয়ে মাঝে পুর ভরে দিয়ে মুখ বন্ধ করে দিন। ডুবোতেলে ভেজে গরম গরম পরিবেশন করুন।

রাজ কচুরি
মচমচে পুরি তৈরি: ময়দা ১/৪ কাপ, সুজি ১/৪ কাপ, খাবার সোডা ১/৪চা চামচ, লবণ ঙ্গ চা চামচ, পানি পরিমাণমতো। পানি বাদে সব উপকরণ মিশিয়ে নিন। অল্প অল্প করে পানি মিশিয়ে খামির বানিয়ে খামিরটাকে ঢেকে রাখুন ১০ মিনিট। এবার খামির ৪ ভাগ করে নিন। এক ভাগ নিয়ে পাতলা রুটি বানিয়ে নিন। কড়াইয়ে তেল দিয়ে গরম করে ফুটন্ত তেলে পুরি ছেড়ে বাদামি করে ভেজে তুলুন।

তেঁতুলের চাটনি তৈরি: তেঁতুলের কাথ ঙ্ক কাপ, টালা শুকনা মরিচগুঁড়ো স্বাদমতো, চিনি ৩ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো, পানি ১/৪ কাপ।
উপরের সব উপকরণ এক সঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে চুলায় ৫ মিনিট জ্বাল দিয়ে ফুটে উঠলেই নামিয়ে ঠান্ডা করে নিন।

পুর তৈরি: সিদ্ধ ডাবলি ১কাপ, আলু ১/২ কাপ, কাঁচামরিচ কুচি স্বাদমতো, ধনেপাতাকুচি ২ টেবিল চামচ, ভাজা জিরার গুঁড়া ১/৪ চা চামচ, পিঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চা, লবণ সামান্য। একটা বাটিতে সব কিছু একসঙ্গে মিশিয়ে নিন।

দইয়ের মিশ্রণ: দই ১ কাপ, চিনি ২ টেবিল চা, লবণ সামান্য। সব কিছু একসঙ্গে মিশিয়ে নিন।

এখন একটি করে পুরি নিয়ে মাঝখান এর কিছুটা ভেঙে নিন। ভিতরে পুর দিয়ে উপরের তেঁতুলের ও দই মিশ্রণ দিয়ে, ঝুরিভাজা ছিটিয়ে পরিবেশন করুন টকঝাল মিষ্টি রাজ কচুরি।

ডালপুরি
পুর তৈরি: মসুর ডাল ১/২কাপ, হলুদ, মরিচ, জিরা গুঁড়ো ১/২ চা চামচ করে, তেল ১ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদ মতো। প্যানে তেল গরম করে উপরের সব উপকরণ দিয়ে মিশিয়ে নিন। পানি দিয়ে অল্প আঁচে ডাল সিদ্ধ করুন। শুকনো শুকনো করে নামিয়ে ঠান্ডা করে রাখুন।

পুরি তৈরি: ১ কাপ ময়দা,২ টেবিল চামচ তেল, লবণ স্বাদমতো, পানি পরিমাণমতো। ময়দা, লবণ, তেল ভালো করে মিশিয়ে পরিমাণমতো পানি দিয়ে মাখিয়ে খামির বানিয়ে নিন। ১৫ মিনিট ঢেকে রেখে খামির ৮ ভাগ করে নিন। এক ভাগ নিয়ে ছোট গোল রুটির মতো বানিয়ে নিন। এখন ১ টেবিল চামচ ডালের পুর রুটির মাঝখানে রেখে চারপাশ একসঙ্গে নিয়ে আটকিয়ে দিন। পিঁড়িতে অল্প তেল দিয়ে আস্তে আস্তে বেলে নিন। কড়াইয়ে গরম ডুবোতেলে পুরিগুলো ভেজে সালাদ কিংবা টমেটো সস দিয়ে পরিবেশন করুন।

পিঁয়াজু
উপকরণ: মসুর ডাল ৩/৪ কাপ,পিঁয়াজ কুচি ১/২ কাপ, হলুদ গুঁড়া ১/৪ চা চামচ,আদা ও রসুন বাটা ১/২ চা চামচ করে, চালের গুঁড়া ২ টেবিল চামচ, ধনেপাতা পরিমাণমতো, কাঁচামরিচ স্বাদমতো, লবণ স্বাদমতো, তেল ভাজার জন্য।

প্রস্তুত প্রণালি: ডাল ভালো করে ধুয়ে কয়েক ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে তারপর পানি ঝরিয়ে পানি ছাড়া বেটে নিন। এখন উপরের দেয়া সব উপকরণ দিয়ে ভালো করে মেখে নিন। চুলায় প্যান বসিয়ে তেল গরম করে মাঝারি আঁচে ছোট ছোট করে পিঁয়াজু বানিয়ে মাঝারি করে ভেজে তুলুন ও গরম গরম পরিবেশন করুন।

কাবাব রোল
রুটি তৈরি: ১ কাপ ময়দা, ২ টেবিল চামচ তেল, লবণ স্বাদমতো, পানি পরিমাণমতো। ময়দা, লবণ, তেল ভালো করে মিশিয়ে পরিমাণমতো পানি দিয়ে মাখিয়ে খামির বানিয়ে নিন। ১৫ মিনিট ঢেকে রেখে খামির ৪ ভাগ করে নিন। একভাগ নিয়ে গোল রুটির মতো বানিয়ে নিন। এবার হাল্কা তেলে ভেজে তুলুন।

কাবাব তৈরি: কিমা ১ কাপ, আদা ও রসুন বাটা ১/২ চা চামচ করে, গরম মসলাগুঁড়া ১/৪ চা চামচ, মরিচগুঁড়া স্বাদ মতো, ধনিয়াপাতা কুচি ২ টেবিল চামচ, পিঁয়াজ কুচি ৩টেবিল চামচ, তেল ২ টেবিল চামচ, পাউরুটি ২ পিস, লবণ স্বাদমতো। প্রথমে পাউরুটিগুলো পানি দিয়ে হাল্কা ভিজিয়ে ভালো করে চেপে পানি ফেলে দিতে হবে। এবার একটা বাটিতে তেল বাদে পাউরুটিসহ বাকি সব কিছু ভালো করে মেখে লম্বা করে কাবাবের মতো শেপ দিতে হবে। এই পরিমাণে ৪টা কাবাব হবে। এবার প্যানে তেল গরম করে কাবাবগুলো ভেজে তুলুন। অল্প তেলে সময় নিয়ে ভাজতে হবে, নাহয় ভিতরে কাঁচা থেকে যাবে। এবার একটা রুটি নিয়ে তার উপরে কাবাব, শসা কুচি, টমেটো কুচি, তেঁতুল গোলা পানি প্রয়োজনমতো দিয়ে রোলের মতো পেঁচিয়ে পরিবেশন করুন।