মঙ্গলবার,২২ অগাস্ট ২০১৭
হোম / ফ্যাশন / গোড়ালি ঢাকা ম্যাক্সি স্কার্ট
০১/২৬/২০১৭

গোড়ালি ঢাকা ম্যাক্সি স্কার্ট

-

আমাদের নিত্যদিনের পোশাকগুলোর মধ্যে অন্যতম আরামদায়ক পোশাক হলো ম্যাক্সি স্কার্ট। একসময় ম্যাক্সি স্কার্টকে কিছুটা সেকেলে মনে করা হলেও হাল-ফ্যাশানে এর জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়ছে। বর্তমানে ম্যাক্সি স্কার্ট নিয়ে ডিজাইনাররাও বেশ পরিক্ষা-নিরীক্ষা চালাচ্ছেন। অনেকেই এ পরিধেয়র সঙ্গে কেমন জুতা মানাবে বা কোন কানের দুলটা পড়লে আরেকটু বেশি ফ্যাশনেবল দেখাবে তা নিয়ে চিন্তিত থাকেন। আর তাদের কথা মাথায় রেখেই ম্যাক্সি স্কার্টের বিভিন্ন স্টাইল নিয়ে আমাদের এই আয়োজন।

ক্লাসিক বোতাম
ম্যাক্সি স্কার্টকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে ব্যবহার করা যেতে পারে ক্লাসিক বোতাম। এক্ষেত্রে আপনার স্কার্টটি কোমরের সাথে ফিটিং হলে ভালো হয়। পাশাপাশি স্কার্টটি উপর থেকে নিচের দিকে সমান হতে হবে। আর গহনা হিসেবে আপনার প্রিয় যেকোনো নেকলেস সহজেই মানিয়ে যাবে এ ডিজাইনের স্কার্টের সঙ্গে।

ছড়ানো স্কার্ট
অনেকেরই ধারণা স্কার্টের নিচের অংশ ছড়ানো হলে দেখতে মোটা লাগবে। ধারণাটি কিছুটা সত্য হলেও এ ডিজাইনের স্কার্ট খুবই আরামদায়ক। আর মোটা ভাব দূর করতে নজর দিতে হবে স্কার্টের ছাঁটের উপর। লক্ষ্য রাখতে হবে যেন কোমরের ফিটিং ভালো হয়। নাহলে কিন্তু দেখতে সত্যি সত্যিই মোটা লাগবে!

বৈচিত্র্যময় প্রিন্ট
ম্যাক্সি স্কার্ট যে শুধু এক রঙেরই হতে হবে এমনটা নয়। বিভিন্ন প্রিন্টেরও হতে পারে। তবে সেক্ষেত্রে বড় প্রিন্টের সাথে ছোট প্রিন্টের মিশ্রণ স্কার্টকে আরো আকর্ষণীয় করে তুলবে। পাশাপাশি চেক বা স্ট্রাইপের স্কার্টও পরা যেতে পারে। তবে খেয়াল রাখতে হবে টপস যেন এক রঙের হয়। কেননা টপস এবং স্কার্ট দুটোই প্রিন্টের হলে দেখতে বেমানান লাগবে।

চিতা প্রিন্ট স্কার্ট
অনেকেরই জবরজং প্রিন্টের ব্যাপারে আপত্তি থাকে। সেক্ষেত্রে চাইলে চিতাবাঘের প্রিন্ট ব্যবহার করে দেখতে পারেন। এই প্রিন্টের স্কার্ট আপনাকে আরও ট্রেন্ডি করে তুলবে।

চামড়ার জ্যাকেট বা শ্রাগ
গেটআপে আভিজাত্য আনতে টপস বা টি শার্টের সঙ্গে জ্যাকেট বা শ্রাগ পরতে পছন্দ করেন অনেকেই। এক্ষেত্রে শীতকালে ম্যাক্সি স্কার্টের সঙ্গে চামড়ার জ্যাকেট বা শ্রাগ ব্যবহার করে দেখার মধ্যে বৈচিত্র্য আনা যায়। আর এতে স্কার্টের সৌন্দর্যও বেড়ে যাবে অনেকখানি।

টমবয় লুক
আজকাল ম্যাক্সি স্কার্টের সাথে টমবয় লুকও আনা সম্ভব। সেক্ষেত্রে স্নিকারের সঙ্গে কম ছড়ানো স্কার্ট উপযোগী। তবে অন্য রঙের তুলনায় সাদা রঙের স্নিকার বেশি মানানসই।

সাথে পরবেন কেমন জুতো
বিভিন্ন শৈলীর মিশ্রণ ফ্যাশনে আনে বৈচিত্র্য। তাই ম্যাক্সি স্কার্টের সাথে সব সময় একই ধরনের জুতো না পরে অন্যরকম দেখতে পরুন ভিন্ন ভিন্ন জুতো। স্বাভাবিক দেখতে অবশ্যই প্রথম পছন্দ হওয়া উচিত হিল জুতো। এছাড়া আর একটি প্রিয় পছন্দ হলো গ্ল্যাডিয়েটর সু। এতে দেখার মধ্যে পরিবর্তন আসবে।

বর্তমানে তরুণীরা বিভিন্ন পোশাকের সঙ্গে হরদম পরছেন ব্যালেরিনা সুজ। ম্যাক্সি স্কার্টের সঙ্গেও একদম মানানসই এই সু। বিশেষ করে শীতকালে।

সবশেষে ক্যাজুয়াল লুক আনতে পরতে পারেন ম্যাক্সি স্কার্ট বিভিন্ন স্যান্ডেলের সাথে। সে হতে পারে এমনি চামড়ার কিংবা কোলাপুরি অথবা স্টোন বসানো। আপনার রুচি ও পছন্দমতো।

আরও কিছু টিপস
দৈর্ঘ্য: সাধারণত ম্যাক্সি স্কার্ট একটু লম্বা হলে ভালো দেখায়। এক্ষেত্রে স্কার্টের ঝুল গোড়ালির একটু নিচে হওয়া ভালো।

কোমড়ের মাপ: ম্যাক্সি স্কার্টের সাথে উপরে যাই পরুন না কেন, কোমড়ের অংশ যেন ঠিক থাকে। সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। কোমড়ের মাপ ঠিক না থাকলে দেখতে মোটা লাগতে পারে।

পোশাকের উপকরণ: ম্যাক্সি স্কার্টটি যেন বেশি স্বচ্ছ বা পাতলা নাহয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। পাশাপাশি স্কার্ট তৈরিতে কাপড় হিসেবে সুতি, লিনেন, সিল্ক, জর্জেট, গ্যাবার্ডিন ও ডেনিম ব্যবহার করা যেতে পারে।

- সুমি