মঙ্গলবার,২২ অগাস্ট ২০১৭
হোম / ফ্যাশন / কনের পোশাক সম্ভার
০১/১১/২০১৭

কনের পোশাক সম্ভার

-

বিয়ের মৌসুম চলে এসেছে বলা চলে, আর বিয়ের সব থেকে বড় প্রস্তুতি থাকে কনেকে ঘিরে। বিয়ে মানেই কেনাকাটা আর অন্যান্য প্রস্তুতি। আর এই সময় কেনাকাটার লিস্টটাও থাকে বেশ বড়। কিন্তু হাজারো জিনিসের ভিড়ে অনেক সময় জরুরি কিছু জিনিস বাদ পড়ে যায়। তাই বিয়ের আগে-পিছের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে কনের পোশাক কি কি হবে, শ্বশুরবাড়ি যাত্রার সময় তার সুটকেসে কি কি থাকা প্রয়োজন, তার একটি তালিকা তৈরি করে নিতে হবে আগে থেকেই। এখানে কনের জন্য অবশ্য প্রয়োজনীয় কিছু জিনিসের তালিকা দেয়া হোল।

বেনারসি শাড়ি
বেনারসি শাড়ি ছাড়া কনে কল্পনা করাও দুষ্কর। বেনারসি শাড়ির একটি আলাদা বিশেষত্ব রয়েছে; কারণ এই শাড়ি সবাইকেই মানিয়ে যায়। আর কনের পরনে বেনারসি শাড়ি না হলে কি চলে? এই আধুনিক যুগেও বেনারসি শাড়ি ছাড়া বিয়ের প্রস্তুতি অপূর্ণ থেকে যাবে। তাই হবু কনের তালিকায় থাকতে হবে উজ্জ্বল রংয়ের জমকালো একটি বা দুটি বেনারসি শাড়ি।

আধুনিকতা ফুটিয়ে তুলতে ব্লাউজের ডিজাইনে আনা যেতে পারে ভিন্নতা। পিছনে খানিকটা বড় গলা, ব্লাউজে আলাদা নকশা পুরো ‘আউটলুক’ বদলে দিতে পারে।

লেহেঙ্গা
বিয়ে এক দিনের হলেও আয়োজনের তালিকায় অনুষ্ঠানের সংখ্যা কম থাকে না। তাই যে-কোনো একদিনের আয়োজনে কনের পরনে জমকালো লেহেঙ্গা বেশ মানানসই। সোনালি, লাল, মেরুন, বেগুনি বা নীল এমন উজ্জ্বল সব রংয়ের লেহেঙ্গার সঙ্গে মানানসই চোলি আর ওড়না কনেকে সবার থেকে আলাদাভাবে তুলে ধরবে। চোলি দিয়ে লেহেঙ্গা পরতে না চাইলে কিছুটা লম্বা টপস বা কুর্তার সঙ্গেও পরা যেতে পারে।

জ্যাকেট এবং শাল
এখন যেহেতু শীতের সময়, তাই এই আবহাওয়ায় গরম কাপড় অপরিহার্য। কিন্তু বিয়ের কনের পরনে তো আর যেনতেন সোয়েটার বা শাল জড়ালে চলবে না। তাই কনের হাতের কাছেই থাকা চাই ভালো মানের এবং সুন্দর একটি জ্যাকেট বা সোয়েটার। এক্ষেত্রে ব্লেজার স্টাইলের লম্বা কোটও বেছে নেওয়া যেতে পারে। কারণ শাড়ি বা লেহেঙ্গা যে-কোনোটির সঙ্গেই কোট বেশ মানিয়ে যায়। পাশাপাশি একটি ভালো শালও রাখা চাই। কারণ শাড়ির উপর শাল পেঁচালেই সব থেকে ভালো মানায়।

জমকালো জুতা
কনের বিয়ের পোশাক মানেই সোনালি, রূপালি বা অন্যান্য জমকালো কাজের ছড়াছড়ি। আর এমন জমকালো পোশাকের সঙ্গে সুন্দর একজোড়া স্যান্ডেল না হলে কি চলে! তাই সুন্দর পোশাকের পাশাপাশি সুন্দর জুতাও রাখা চাই হাতের কাছে। আর এক্ষেত্রে সবারই উঁচু জুতা পছন্দ, কিন্তু হিল বাছাইয়ের ক্ষেত্রেও স্বাচ্ছন্দ্যের বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে। কারণ অতিরিক্ত উঁচু জুতা পরে যদি ঠিকমতো হাঁটতেই না পারেন, তাহলে সব আয়োজনই বৃথা হয়ে যাবে।

কোলাপুরি স্যান্ডেল
অনুষ্ঠানে জমকালো পোশাকের সঙ্গে হিল মানানসই হলেও সবসময় পরে থাকার জন্য তা মোটেও আরামদায়ক নয়। তাই চাই ফ্ল্যাট স্যান্ডেল। এক্ষেত্রে আরামের সঙ্গে কিছুটা ট্র্যাডিশনাল লুক ধরে রাখতে কোলাপুরি স্যান্ডেল বেশি মানানসই। এছাড়াও কিছুটা ফ্যাশনেবল ফ্ল্যাট স্যান্ডেলও রাখা উচিত এই তালিকায়।

ক্লাচ
বিয়ের সবগুলো অনুষ্ঠানেই কনে থাকবে সবকিছুর কেন্দ্রবিন্দুতে। আর এই অনুষ্ঠানে অনেকটা সময় কনেকে দাঁড়িয়ে থাকতে হতে পারে। তাই সব কিছু মিলিয়ে কনের হাতে ঝোলানো বড় ব্যাগ বেশ বেমানান। সেই তুলনায় ফ্যাশনেবল ক্লাচ সঙ্গে রাখলে টুকিটাকি প্রয়োজনীয় জিনিস যেমন হাতের কাছে থাকবে, তেমনি দেখতেও বেশ ফ্যাশনেবল লাগবে।

অন্তর্বাস
বিয়ের প্রতিটি অনুষ্ঠানের জন্য যেমন আলাদা পোশাক কেনা হবে, তেমনি প্রতিটি পোশাকের জন্য সঠিক অন্তর্বাস বাছাই করাও অনেক জরুরি। একেকটি পোশাকের গলার ডিজাইন, রং, প্যাটার্ন সব কিছুর সঙ্গে মানিয়ে অন্তর্বাস বেছে নিতে হবে। নতুবা পোশাক নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়তে হতে পারে। পাশাপাশি আরামদায়ক এবং সঠিক মাপের অন্তর্বাস বাছাই করাও জরুরি।

আরামাদায়ক ঘুমের পোশাক
সারাদিনের ঝক্কি এবং ভারি পোশাক আর গয়না পরে থাকার পর রাতে আরামদায়ক পোশাক না হলে ঘুমটা ঠিক ভালো হবে না। তাই দিন শেষে নিজের ঘরে ফিরে পরার জন্য আরামদায়ক একটি ঘুমানোর পোশাক রাখা উচিত।

গুছিয়ে রাখুন জরুরি ও ছোটোখাটো অনুষঙ্গগুলো
টিপ, সেফটি পিন, ববি পিন, টুইজার, নেইল ফাইলার, নেইল কাটার ইত্যাদি ছোটোখাটো জিনিসগুলো মাঝেমাঝেই বেশ জরুরি হয়ে পড়ে। আর প্রয়োজনের সময় এই জিনিসগুলো খুঁজে পেতেও বেশ বেগ পেতে হয়। তাই এই ছোটোখাটো জিনিসগুলো এক জায়গায় গুছিয়ে রাখুন। যেন প্রয়োজনের সময়ই হাতের কাছে পাওয়া যায়। একটি সুন্দর বাক্সে এই জিনিসগুলো ভালোভাবে সাজিয়ে রাখুন। সঙ্গে কিছু বেসিক রংয়ের সুতা আর সুঁই রাখুন ওই বাক্সে যেন প্রয়োজনে ঝটপট পাওয়া যায়।

কিছু হালকা গয়না
বিয়ের উৎসবে দুই পক্ষ থেকেই কনে পেয়ে থাকেন স্বর্ণ এবং পাথর বসানো ভারি সব গয়না। কিন্তু এর সঙ্গে নিজের পছন্দমতো হালকা কিন্তু ট্র্যাডিশনাল কিছু গয়না রাখা জরুরি। কারণ বিয়ের পরপরই বিভিন্ন দাওয়াতে যেতে হবে। আর সেখানে সবসময় ভারি সোনার গয়না পরাও বেশ ঝামেলার। তাই নিজের পছন্দের এবং ভিন্ন ধাঁচের কিছু গয়না সঙ্গে রাখা গেলে ওই সমস্যারও সমাধান হয়ে যাবে।

- বেলা দত্ত