বুধবার,২২ নভেম্বর ২০১৭
হোম / বিবিধ / সমঅধিকারে বাধা কিছু নারী বিরোধী আইন
১২/২৯/২০১৬

সমঅধিকারে বাধা কিছু নারী বিরোধী আইন

-

২০১৫ এর প্রায় শেষ প্রান্তে এসে অনেক অধিকার বিশেষজ্ঞরা এটি বলতেই পারেন যে গত দুই দশক ধরে বিশ্বের নারীর যে অগ্রযাত্রা তা অভাবনীয়। কর্মক্ষেত্রে নারীর অন্তর্ভুক্তি এবং এর ফলে আসা অর্থনৈতিক স্বনির্ভরতা অনেক দেশেই নারীকে করেছে স্বাবলম্বী। কিন্তু এখনো কিছু কিছু দেশে এমনসব আইন প্রচলিত আছে যা শুনলে মনে হবে মধ্যযুগ বর্তমান।

সম্প্রতি নারী অধিকার নিয়ে কাজ করা সংঘ 'ইকুয়ালিটি নাউ' এরকম ৪৪টি দেশের সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু করেছে। গনমাধ্যম ও বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের এই আন্দোলন ব্যপক প্রচার পেয়েছে। 'ইকুয়ালিটি নাউ' নারী বিরোধী সব চেয়ে কালো ১০টি আইনের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে যার মধ্যে আছে মাদাগাস্কারের মেয়েদের রাতে কাজ করার উপর নিষেধাজ্ঞা থেকে বাহামায় স্বামী কত্রিক স্ত্রীকে ধর্ষণ করার পূর্ণ অধিকার।

নারী বিরোধী সেই ১০টি কালো আইনগুলো হলঃ

১। রাশিয়াতে মহিলারা ট্রাক চালাতে পারবেনা। রাশিয়ার শ্রমিক আইনের ১৬২ নং অনুচ্ছেদ অনুযায়ী নারীদের জন্য ৪৫৬টি পেশা নিষিদ্ধ যার মধ্যে আছে ট্রাক, ট্রেন বা ট্র্যাক্টর চালনা থেকে শুরু করে অগ্নি নির্বাপন ও কাঠের কারিগরী কাজ।

২। বাহামা, ভারত ও ফিলিস্তিনে স্বামী তার স্ত্রী কে ধর্ষণ করতে পারবে। বাহামাতে যদি স্ত্রীর বয়স ১৪ বছরের উর্ধে হয় তাহলে স্বামী তার সাথে ধর্ষণ বা যেকোন যৌন অত্যাচার করলে সেগুলোর জন্য স্বামীর কোন শাস্তি হবেনা। বাহামা বাদে ভারত ও ফিলিস্তিনেও স্ত্রীকে ধর্ষণ করাকে আইনত অপরাধ হিসেবে গন্য করা হয়না।

৩। পাকিস্তানে নারী সাক্ষীদের বয়ানকে পুরুষদের থেকে অর্ধেক গুরুত্ব দেয়া হয়। সেখানে কিছু কিছু দেওয়ানি মামলায় ২ জন মহিলার সাক্ষ্য এক জন পুরুষের সাক্ষ্যের সমান। যার মানে একজন মহিলার সাক্ষ্যের গুরুত্ব একজন পুরুষ সাক্ষীর ঠিক অর্ধেক।

৪। মাদাগাস্কারে মেয়েরা রাতে কাজ করতে পারবেনা। নিজের পারিবারিক ব্যবসা ব্যতীত অন্য কোনো জায়গায় মাদাগাস্কারে মহিলারা রাতের বেলা কাজ করতে পারেনা।

৫। ইজরায়েলে ইহুদি আইন অনুযায়ী নারী তালাক দিতে পারেনা। যেসব জায়গায় ইহুদি আইন প্রচলিত আছে সেখানে শুধুমাত্র পুরুষরা তালাক দিতে পারে। স্ত্রীরা যদি তালাক চায় তাহলে তার স্বামীর অনুমতি লাগবে। কোনো কোর্ট তাকে তার স্বামীর অনুমতি ছাড়া তালাক অনুমোদন করবেনা।

৬। যুক্তরাজ্যে মহিলারা রয়াল মেরিন এ যোগদান করতে পারেনা। সকল মেরিনদের যেকোনো মুহুর্তে যুদ্ধে যাবার প্রস্তুতি থাকতে হবে এরকম একটি পূর্বশর্তকে মূল কারণ দেখিয়ে যুক্তরাজ্য সরকার নারীদের মেরিন বাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত করেনা।

৭। নাইজেরিয়াতে স্বামীরা স্ত্রীদের নির্যাতন করতে পারবে। উত্তর নাইজেরিয়াতে একজন স্বামী তার স্ত্রীকে প্রহার বা নির্যাতন করার অধিকার রাখে। তবে নির্যাতন যেন ‘অতি নির্মম’ না হয় তা খেয়াল রাখতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

৮। আফগানিস্তান ও ইয়েমেনে নারীকে তার স্বামীর অনুমতি নিয়ে ঘর থেকে বের হতে হয়। স্বামী চাইলে কোন কারণ ছাড়াই স্ত্রীদের বাসা থেকে বের হওয়া বন্ধ করতে পারে।

৯। বিয়ে করলে সেই নারীকে অপহরণ করার জন্য মাল্টায় পুরুষের কোনো শাস্তি হয়না। মাল্টা পর্যটকদের প্রিয় গন্তব্য কিন্তু এই দেশে কোনো পুরুষ যদি একজন নারীকে অপহরণ বা ধর্ষণ করে পরে তাকে বিয়ে করে তাহলে সেই লোকটির কোনো শাস্তি হবেনা।

১০। সৌদি আরবে মেয়েরা গাড়ি চালাতে পারবেনা। যে দেশে কিছু দিন আগ পর্যন্ত মেয়েরা ভোট দিতে পারতনা সেখানে অনেক আন্দোলনের পরে নারীরা ভোটাধিকার পেলেও এখনো সেখানে নারীরা গাড়ি চালাতে পারেনা।

- তাজরিয়ান শহীদ